‘লিও, আমি কি আগুয়েরোকে নামাব?’

ঢাকা, বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৪ আশ্বিন ১৪২৫

‘লিও, আমি কি আগুয়েরোকে নামাব?’

পরিবর্তন ডেস্ক ৭:৪৩ অপরাহ্ণ, জুন ২৭, ২০১৮

‘লিও, আমি কি আগুয়েরোকে নামাব?’

বেচারা হোর্হে সাম্পাওলি! ফুটবলে কোচরাই দলের সর্বেসর্বা। দলে কাকে খেলাবেন, কাকে বসিয়ে রাখবেন, সেই সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতা একমাত্র কোচের। অথচ আর্জেন্টিনা জাতীয় দলে হোর্হে সাম্পাওলির মতামতের কোনো গুরুত্বই নেই! একাদশ নির্বাচন করা দূরের কথা, বদলি হিসেবে কাকে নামাবেন, সেই সিদ্ধান্তও নাকি সাম্পাওলি অধিনায়ক লিওনেল মেসির পরামর্শ ছাড়া নিতে পারেন না! গতকাল নাইজেরিয়ার বিপক্ষে সার্জিও আগুয়েরোকে নামানোর আগে কোচ সাম্পাওলি নাকি রীতিমতো আকুতি জানান মেসির কাছে। আর্জেন্টিনার জনপ্রিয় পত্রিকা টিওয়াইসি জানিয়েছে, আগুয়েরোকে বদলি হিসেবে নামানোর আগে সাম্পাওলি মেসিকে হাত ধরে অনুনয় করেন, ‘লিও, আমি কি আগুয়েরোকে নামাব?’

আর্জেন্টাইন গণমাধ্যমে অনেক দিন ধরেই গুঞ্জন, সাম্পাওলি নামেমাত্র কোচ। আর্জেন্টিনা দলের আসল কোচ মেসি। মেসিই দলের সর্বেসর্বা। কোচ সাম্পাওলি নন, দলে কে কে ডাক পাবেন, সেই সিদ্ধান্ত মেসিই নেন। আর্জেন্টিনার কোনো কোনো সাংবাদিক তো মেসিকে আর্জেন্টিনা দলের মালিক বলেও আখ্যায়িত করেছেন। গত বৃহসম্পতিবার ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে হারের পর আর্জেন্টিনার জনপ্রিয় সাংবাদিক ফার্নান্দো নিয়েমব্রো তো সরাসরিই বলেন, ‘মেসি আর্জেন্টিনা দলের মালিক।’

সেসব পুরোনো গুঞ্জন তো আছেই। রাশিয়া বিশ্বকাপ কোচ সাম্পাওলির সঙ্গে মেসিদের দ্বন্দ্বটা নাকি চরম মাত্রায় নিয়ে গেছে। ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ৩-০ গোলের হারের পরপরই গুঞ্জন ছড়ায়, কোচ সাম্পাওলির সঙ্গে বিদ্রোহ শুরু করে দিয়েছেন আর্জেন্টাইন খেলোয়াড়েরা! সাম্পাওলির পরিবর্তে নাইজেরিয়া ম্যাচে হোর্হে বুরুচাগাকে কোচ করার দাবিও নাকি জানান মেসিরা। আর্জেন্টিনার খেলোয়াড়েরা নাকি সরাসরিই বোর্ড কর্তাদের জানিয়ে দেন কোচ সাম্পাওলির অধীনে তারা আর খেলবেন না!

সেই গুঞ্জন শেষ পর্যন্ত সত্য হয়নি। সাম্পাওলিকে কোচের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়নি। আর্জেন্টিনার ১৯৮৬ বিশ্বকাপজয়ী তারকা বুরুচাগাকেও নতুন কো করা হয়নি। গতকাল নাইজেরিয়ার বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচটিতেও সাম্পাওলিই ছিলেন আর্জেন্টিনার ডাগআউটে। কিন্তু ওই থাকা পর্যন্তই।

টিওয়াইসির দাবি, সাম্পাওলি কোচের পদে বহাল থাকলেও নাইজেরিয়ার বিপক্ষে ম্যাচের একাদশ নির্বাচনে তার কোনো ভূমিকাই ছিল না! খেলোয়াড়দের সঙ্গে বৈঠক করে নাইজেরিয়া ম্যাচের একাদশ নাকি নির্বাচন করেন মেসিই। দল নির্বাচন তো নয়ই, এমনকি বদলি হিসেবে নামানোর সিদ্ধান্তও সাম্পাওলি নিজের ইচ্ছায় নেননি। ডাগআউটে ‘পুতুল কোচ’ হিসেবে দায়িত্বপালন করা সাম্পাওলি বদলিও নামিয়েছেন ‘দলের নেতা’ মেসির পরামর্শ অনুযায়ী!

আগুয়েরোকে নামানোর জন্য তো রীতিমতো অনুরোধই করেন! দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠতে হলে জিততেই হবে, এই সমীকরণ সামনে রেখেই কাল নাইজেরিয়ার মুখোমুখি হয়েছিল আর্জেন্টিনা। কিন্তু ৮৬ মিনিট পর্যন্তও ম্যাচে ১-১ সমতা ছিল। দল কাঙ্খিত জয়সূচক গোল করতে পারছে না ভেবে কোচ সাম্পাওলি সিদ্ধান্ত নেন, একজন ডিফেন্ডার তুলে আগুয়েরোকেও নামিয়ে দেবেন। কিন্তু তার সিদ্ধান্ত তো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নয়। বাধ্যবালকের মতো তিনি তাই মেসির কাছে আকুতি করেন, আগুয়েরোকে নামানোর জন্য।

ম্যাচের ৭৮ মিনিটের দিকে বল ক্লিয়ার করতে গিয়ে বল আর্জেন্টিনার ডিফেন্ডার গ্যাব্রিয়েল মেরসেদোর হাতে লাগে। সঙ্গে সঙ্গেই নাইজেরিয়ান ফুটবলাররা পেনাল্টির দাবি জানান। তাদের দাবিতে সাড়া দিয়ে রেফারি রিভিউ নেন। তো রিভিউয়ের ওই সময়টাতেই মেসি ডাগআউটের কাছে চলে আসেন পানি পান করার জন্য। ঠিক তখনই তার হাত টেনে ধরে সাম্পাওলি বিড় বিড় করে কি যেন বলেন!

সাম্পাওলি বিড় বিড় করে কি বলছিলেন মেসিকে? ওই দৃশ্যের ভিডিও বারবার দেখে মাইক্রোফোনের সেই আওয়াজ ঠিকই শুনতে পেরেছে টিওয়াইসি। জেনে গেছে সাম্পাওলি মেসিকে বলছিলেন, ‘লিও, আমি কি আগুয়েরোকে নামাব?’ উত্তরে মেসি কি বলেন, সেটা জানতে পারেনি। তবে তার মিনিট খানেক পরই ডিফেন্ডার ত্যাগলিয়াফিকোকে তুলে নিয়ে আগুয়েরোকে নামিয়ে দেন সাম্পাওলি।

আগুয়েরো নামলেও গোল করতে পারেননি। তবে তার নামার ৬ মিনিট পরই আর্জেন্টিনার মহামূল্যবান গোলটি করেন ডিফেন্ডার মার্কোস রোহো। যে গোলটি সব শঙ্কা মুছে দিয়ে আর্জেন্টিনাকে নিয়ে গেছে দ্বিতীয় রাউন্ডে।

কেআর