‘ক্রুসের গোল জার্মানিকে শিরোপা জয়ে উজ্জীবিত করবে’

ঢাকা, সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

বিষয় :

হ্যামেলস

ফুটবল

জার্মানি

বিশ্বকাপ

ক্রুস

গোল

‘ক্রুসের গোল জার্মানিকে শিরোপা জয়ে উজ্জীবিত করবে’

পরিবর্তন ডেস্ক ২:৩২ অপরাহ্ণ, জুন ২৪, ২০১৮

‘ক্রুসের গোল জার্মানিকে শিরোপা জয়ে উজ্জীবিত করবে’

কখনো কখনো একটা গোলই হয়ে উঠে মহাগুরুত্বপূর্ণ। গতকাল রাতে সুইডেনের বিপক্ষে করা টনি ক্রুসের গোলটি তেমনই মহাগুরুত্বপূর্ণ এক গোল। আর একটু হলেই গভীর খাদে পড়ে যেত বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন জার্মানি। ম্যাচটা ড্র হলেই জার্মান শিবিরে ঘণিভূত হতো গ্রুপপর্ব থেকেই বিদায়ের শঙ্কা। ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের সেই চরম বিপদ থেকে উদ্ধার করেছে টনি ক্রুসের গোলটি। ম্যাচের ইনজুরি সময়ের শেষ মুহূর্তে করা রিয়াল মাদ্রিদ তারকার গোলটি জার্মানিকে এনে দিয়েছে মহামূল্যবান এক জয়। যে জয়ে বাদ পড়ার গোমটভাব কাটিয়ে জার্মান শিবিরে বয়ে এনেছে স্বস্তি।

না, এখনো জার্মানদের গ্রুপপর্ব থেকেই বাদ পড়ার শঙ্কা পুরোপুরি দূর হয়নি। সেই সম্ভাবনা বরং এখনো আছে। তবে সুইডেনের বিপক্ষে কষ্টের জয়ে সেই শঙ্কা অনেকটাই হালকা হয়ে গেছে। বাদ পড়ার শঙ্কার কথা ভুলে জার্মানরা বরং নতুন করে স্বপ্ন দেখছে শিরোপা জয়ের। গতকালের জয়ের প্রতিক্রিয়ায় ম্যাটস হ্যামেলস যেমন বলেই দিয়েছেন, টনি ক্রুসের এই গোল তাদের শিরোপা জয়ে উজ্জীবিত করবে। তার কথা, ক্রুসের গোলটি দলকে এনে দিয়েছে নতুন করে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করার অনুভূতি।

গলার চোটের কারণে হ্যামেলস গতকালের ম্যাচটা খেলতে পারেননি। তবে ডাগআউটে বসে দেখেছেন সতীর্থদের সংগ্রাম। দেখেছেন জয়ের জন্য মাঠে কতটা মরিয়া ছিলেন তার সতীর্থরা। প্রথম ম্যাচে মেক্সিকোর বিপক্ষে হার। দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠার আশা বাঁচিয়ে রাখতে হলে সুইডেনের বিপক্ষে জিততেই হবে-কঠিন এই সমীকরণ সামনে রেখেই ম্যাচটা শুরু করেছিল জার্মানি। তাদের সেই সমীকরণটাকে আরও কঠিন বানিয়ে ম্যাচে প্রথমে এগিয়ে যায় সুইডেনই। ১-০ গোলে পিছিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় জার্মানরা।

বিরতির পর ফিরেই অবশ্য সুইডেনের গোলটা শোধ দিয়ে দেয় জার্মানি। দারুণ এক গোল করে জার্মানদের সমতায় ফেরান মার্ক রুয়েস। এরপর শত চেষ্টা করেও জার্মানরা জয়সূচক গোলটা আর করতে পারছিল না। উল্টো ৮২ মিনিটে ড্র শঙ্কাকে আরও বাড়িয়ে দেন জেরম বোয়াটেং। বায়ার্ন মিউনিখ ডিফেন্ডার মাঠ ছাড়েন দ্বিতীয় হলুদকার্ড তথা লালকার্ড দেখে।

তবে ১০ জনের দল হয়েই হাল ছাড়েনি জার্মানি। বরং জয়ের জন্য মরিয়া চেষ্টাই করে যায় তারা। কিন্তু নির্ধারিত ৯০ মিনিট পেরিয়ে যোগ করা সময়ও শেষ হয়ে যাচ্ছিল প্রায়। কিন্তু জয়সূচক গোল আর পাচ্ছিল না। অবশেষে জার্মানদের কাঙ্খিত সেই সোনার হরিণ এনে দেন টনি ক্রুস। যোগ করা সময়ের পঞ্চম মিনিটে ডি-বক্সের ডান পাশ থেকে ফ্রি কিক থেকে করেন অবিশ্বাস্য এক গোল।

হ্যামেলসের দাবি, ক্রুসের এই গোল নতুন শুরুর আত্মবিশ্বাসই এনে দিয়েছে দলকে। গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচে দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে জয়ের ব্যাপারেই শুধু নয়, ক্রুসের এই গোল দলকে উজ্বীবিত করছে অনেক দূর এগিয়ে যাওয়ার। নির্দিষ্ট করে বললে, শিরোপা জেতার। ‘রোববারের ম্যাচের (মেক্সিকোর বিপক্ষে) তুলনায় আমরা আজ অনেক ভালো খেলেছি। তবে সামনের ম্যাচে আরও বেশি ভালো খেলতে পারব। কারণ, ক্রুসের এই গোলের পর দল এখন অনেক বেশি উজ্জীবিত।’-তাৎক্ষণিক এক প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন হ্যামেলস।

গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচে দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে জয়ের আশাবাদ ব্যক্ত করে হ্যামেলস বলেছেন, ‘এটা হবে সম্পূর্ণ আলাদা একটা ম্যাচ। আলাদা প্রতিপক্ষের বিপক্ষে। আমরা তাদের নিয়ে পর্যালোচনা করব। তাদের খেলা নিয়ে গবেষণা করব, বিশ্লেষণ করব। আশা করি, ওই ম্যাচে ভালো কিছুই হবে। কারণ, আমরা এখন অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী।’

সুইডেনের বিপক্ষে জয় সম্পর্কে বলেন, ‘যদি আবেগের কথা বলেন, সেদিক থেকে আজকের(গতকাল) এই জয়টা অসাধারণ। কারণ, আমরা ম্যাচটা শুরুই করেছিলাম এই ভয় নিয়ে যে, বাদ পড়ে যেতে পারি। বিশ্বকাপের মতো বড় টুর্নামেন্টে এ রকম একটা মুহূর্ত সত্যিই দারুণ কিছু। যদি আমরা দক্ষিণ কোরিয়ার কাছে হেরেও যাই বা দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠতে না পারি, তাহলেও এই জয়ের মাহাত্ম্য এতটুকু কমবে না। সত্যিই আজ আমরা কিছুটা ভাগ্যবান ছিলাম। আমরা প্রমাণ করেছি যে, আমরা আরও ভালো করতে পারি।’

কেআর