টনি ক্রুসে বাঁচল জার্মানি

ঢাকা, রবিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮ | ১ পৌষ ১৪২৫

টনি ক্রুসে বাঁচল জার্মানি

পরিবর্তন ডেস্ক ২:০৯ পূর্বাহ্ণ, জুন ২৪, ২০১৮

টনি ক্রুসে বাঁচল জার্মানি

ম্যাচের ৯৫ মিনিটে ফ্রি কিক পেল জার্মানি। দুর্দান্ত এক লড়াইয়ে সুইডেনের বিপক্ষে জিততে সেটিই শেষ সুযোগ হয়ে এলো বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের জন্য। প্রথমার্ধে পিছিয়ে পড়েও দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ম্যাচে সমতা এনেছে তারা। কিন্তু মেক্সিকোর কাছে হারের পর এম্যাচে যে জয় চাই জোয়াকিম লোর দলের। ড্র করলেও চলে যেতে হবে খাদের কিনারে। ওদিকে দারুণ দারুণ সব আক্রমণ ভেস্তে গেছে। ভক্তদের তাই পয়েন্ট হারানোর শঙ্কা। তবে শেষ সুযোগটা দারুণভাবেই কাজে লাগালেন টনি ক্রস। ফ্রি কিক থেকে দেখার মতো গোল করলেন। আসলে সুইডেনের বিপক্ষে ২-১ গোলের জয় এনে দিয়ে বাঁচালেন জার্মানিকে।

সোচিতে শনিবার বাংলাদেশ সময় রাত ১২টা শুরু হওয়া ম্যাচের পরতে পরতে মিশে থাকলো রোমাঞ্চ। বল দখলে জার্মানি এগিয়ে থাকলো অনেক। কিন্ত নিজেদের রক্ষণ দারুণ ভাবে আগলে রাখা সুইডেন পাল্টা আক্রমণে বারবার কাঁপন ধরিয়ে গেল জার্মান রক্ষণে। আর তা সামলাতেই ম্যাচের ৮২ মিনিটে দ্বিতীয় লাল কার্ড দেখতে হলো জার্মানির ডিফেন্ডার জেরোমে বোয়াটেংকে। ১০ জনের দল নিয়েও শেষ পর্যন্ত অবশ্য নাটকীয় জয় তাদের।

এদিন ম্যাচের শুরু থেকেই মরিয়া জার্মানির দেখা মিলে। দারুণ কিছু সুযোগও তৈরি করে। ম্যাচের ৭ মিনেটে সুইডেন রক্ষণ কাঁপিয়ে জুলিয়ান ড্র্যাক্সলার দুর্দান্ত এক ক্রস করেন। কিন্তু ফিনিশিং দেওয়ার মতো কেউ ছিলেন না। পরে জার্মানির আরেকটি আক্রমণ কর্নারের বিনিময়ে রুখে সুইডেন। ১২ মিনেটে পাল্টা আক্রমণ থেকে গোল পেয়েই যাচ্ছিল সুইডেন। কিন্তু দুর্দান্ত সেভ করে ম্যানুয়েল ন্যয়ার। মার্কোস বার্গকে অবশ্য ট্যাকেল করেছিল জার্মান রক্ষণ। কিন্তু রেফারি পেনাল্টির বাঁশি বাজাননি। ভিডিও রেফারির সাহায্যও নেননি।

তবে ৩২ মিনিটে আর রক্ষা পায়নি জার্মানি। ভিক্টর ক্লায়েসনের এসিস্ট থেকে নয়ারকে পরাস্ত করেন ওলা টোইভোনেন। হমভম্ভ তখন জার্মান শিবির। এই সুইডেন নিজেদের প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ কোরিয়াকে হারিয়ে পূর্ণ ৩ পয়েন্ট পেয়েছে। জার্মানির বিপক্ষে ড্র করতে পারলেও অনেক এগিয়ে যাওয়া হবে তাদের। তবে দলটির খেলায় শুধু এক পয়েন্টের জন্য লড়াইয়ের চেষ্টা থাকলো না। তারা আসলে জার্মানদের হারানোর জন্যই খেলে গেল।

তবে জার্মানির ভাগ্যভালো বার পোস্টের নিচে নয়ার দারুণ আস্থা জুগিয়ে গেলেন। বেশ কিছু নিশ্চিত গোলও রুখে দেন ব্রাজিল বিশ্বকাপের সেরা গোলরক্ষক। ৪৩ মিনিটে দারুণ আক্রমণে জার্মান রক্ষণ ফের কাঁপিয়ে দেয় সুইডেন। তবে ডিফেন্ডাররা সেটি ক্লিয়ার করেন ভালোভাবে। প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে রেফারির শেষ বাঁশি বাজার আগেও দারুণ এক সেভ করেন নয়ার।

বিরতির পর গোল পরিশোধে আরো মরিয়া হয়ে উঠে জার্মানি। ফল পায় তারা ৪৮ মিনিটে। মারিও গোমেজের বাড়ানো বলে রক্ষণকে বোকা বানিয়ে গোল মার্কো রয়েসের। বিশ্ব জোড়া জার্মান ভক্তদের মনে যা স্বস্তি আনে।

গোল পরিশোধের পর জার্মানির ধার আরো বাড়ে। ৫৬ মিনিটে জোনাস হেক্টরের শট রুখে দেন সুইডেন গোলরক্ষক রবিন ওলসেন। ৭২ মিনিটে জার্মানদের আরেকটি সম্ভাবনাময় আক্রমণ ভেস্তে যায়। টিমো ওয়ার্নারের শট রুখে দেন সুইডেন গোলরক্ষক। ৭৬ মিনিটে সুইডেনের দারুণ এক আক্রমণ রুখে দেন নয়ার।

ম্যাচে দুই দল যখন ছেড়ে না দেওয়ার মানষিকতায়, রামাঞ্চে ভরে গেছে সোচি, ঠিক তখনই জার্মান শিবিরে ঝড়। ৮২ মিনিটে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন জেরোম বোয়াটেং। তখন যে ফ্রি কিক পায় সুইডেন তা থেকে তৈরি হওয়া আক্রমণ থেকে গোলও পেয়ে যাচ্ছিল তারা। তবে নয়ার ফের রুখে দেন তা। ৮৮ মিনিটে মারিও গোমেজের হেড দুর্দান্ত ভাবে রুখে দেন সুইডেন গোলরক্ষক রবিন ওলসেন।

খেলা নির্ধারিত ৯০ মিনিটের শেষ মিনিটে গড়ালে ৫ মিনিট অতিরিক্ত সময় দেওয়া হয়। তাতে জার্মানদের আশা বাড়েই বটে। ৯৫ মিনিটের গোলই যার প্রমাণ। ফ্রিক কিক থেকে ক্রুস ছোট্ট করে বাড়িয়ে দেন রয়েসকে। তিনি বলটা থামালেন। ক্রুস এবার দারুণ এক ক্রস করে তা জড়িয়ে দিলেন জালে। তাতে ১০ জনের দল নিয়েও জয় মিয়ে মাঠ ছাড়ল জার্মানি।

২ ম্যাচে ১ জয় আর ১ হারে মোট ৩ পয়েন্ট জার্মানির। ‘এফ’ গ্রুপে তাদের অবস্থান দ্বিতীয়। ৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে দুই ম্যাচের দুটিতেই জেতা মেক্সিকো। জার্মানদের সমান খেলায় সমান পয়েন্ট নিয়েও তৃতীয় স্থানে সুইডেন।

বুধবার বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে মুখোমুখি হবে জার্মানি। একই সময়ে মেক্সিকোর মুখোমুখি হবে সুইডেন। কোরিয়ার ছিটকে যাওয়াটা নিশ্চিত হলোও অন্য তিন দলেরই সুযোগ থাকছে দ্বিতীয় পর্বে যাওয়ার। এখন দেখার বিষয় কোন দুই দল টিকিট পায় এই গ্রুপ থেকে।

টিএআর