বিশ্বকাপের সাত দিনে আলোচনায় 'পর্নস্টার' থেকে নেইমার

ঢাকা, রবিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮ | ১ পৌষ ১৪২৫

বিশ্বকাপের সাত দিনে আলোচনায় 'পর্নস্টার' থেকে নেইমার

পরিবর্তন ডেস্ক ৪:০২ অপরাহ্ণ, জুন ২১, ২০১৮

বিশ্বকাপের সাত দিনে আলোচনায় 'পর্নস্টার' থেকে নেইমার

রাশিয়া ২০১৮ বিশ্বকাপের সাতটা দিন বা একটা সপ্তাহ দেখতে দেখতে চলে গেল। এর মধ্যে কতো ঘটনারই না জন্ম হলো। ফেভারিটদের অপ্রত্যাশিত ফলে শুরু এবারের বিশ্বকাপ। আছে আরো চমক। কিন্তু এর বাইরেও কিছু ব্যাপার আছে। এবারের বিশ্বকাপের প্রথম সপ্তাহের তেমনই সাতটি বিষয়ে চোখ রাখা যাক।

সেক্সিয়েস্ট ফ্যান

বিস্ময়কর এক ব্লন্ড সুন্দরী রাশিয়ার প্রথম ম্যাচেই গ্যালারি থেকে চোখ কেড়েছিলেন। দ্বিতীয় ম্যাচেও তার সরব উপস্থিতি গ্যালারিতে। স্বদেশি রুশ দলকে উজ্জীবিত করতে তিনি গলা ফাটিয়েছেন। ওদিকে ক্যামেরার চোখ ঘুরেফিরে তার দিকেই গেছে বারবার। এখন পর্যন্ত এই ফ্যানকে বলা হচ্ছে রাশিয়া বিশ্বকাপের সেক্সিয়েস্ট ফ্যান। নাম নাতালিয়া নেমশিনোভা। বিশ্বে ঝড় তোলা এই সুন্দরী কে? অনলাইন ডিটেকটিভরা ইমেজ সার্চ করে বের করে ফেলেছেন তার আসল পরিচয়। ২০০৭ এ তিনি মিস মস্কো হয়েছিলেন। কিন্তু ২০১৬ থেকে পর্ন ইন্ডাস্ট্রিতে। পর্নস্টার। কিন্তু ২০১৬ ফ্রান্স ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপেও ছিলেন তিনি রাশিয়া দলকে সমর্থন জানাতে। তার ফুটবল ও দেশপ্রেম নিয়ে তাই প্রশ্ন নেই কোনো।

এখন পর্যন্ত ঠিকঠাক

রাশিয়া বিশ্বকাপ শুরুর আগে কতো কথাই না উঠল। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ বয়কটের হুমকি দিল। হুলিগান, সাইবার হ্যাকিং নিয়ে কতো কি শঙ্কা। নিরাপত্তাবলয় বাড়াতে হয়েছে কতো ধাপে। কিন্তু এখন পর্যন্ত খুব স্বস্তিতেই কাটছে রাশিয়া বিশ্বকাপ। ঝামেলাহীন। রাশিয়ানরা তাদের দেশে প্রায় ১০ লাখ বিদেশির প্রবেশকে স্বাগত জানিয়েছে বন্ধুতার হাত বাড়িয়ে। আর তাদের দলও অপ্রত্যাশিত দাপুটে ফল দেখিয়ে দুই ম্যাচ খেলে দুই জয়ে চলে গেছে নক আউট পর্বে।

ভিএআর

এবারের বিশ্বকাপেই অভিষেক ভিএআর বা ভিডিও অ্যাসিসট্যান্ট রেফারির। এ নিয়ে বিতর্ক ছিল। বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত যে কটি সিদ্ধান্ত এসেছে তা নিয়েও আছে মিশ্র মত। তবে সব দেখেশুনে ভিএআরকে এখন তেমন হুমকি লাগছে না। উল্টো ইতিবাচক ব্যাপারই মনে হচ্ছে। যদিও ব্রাজিলিয়ানরা ফিফার কাছে সুইজারল্যান্ডের সাথে ড্র করা ম্যাচে কেন ভিএআর পেলেন না তার জবাব চেয়েছিলেন। সেই আপিল অবশ্য খারিজ করে দিয়েছে ফিফা। আর অস্ট্রেলিয়ার পর সৌদির আরবেরও বুক ভেঙেছে ভিএআরের সিদ্ধান্তে। যদিও দুটি সিদ্ধান্তেই ভিএআর ছিল সঠিক।

রোনালদো বনাম মেসি

ক্রিস্তিয়োনা রোনালদো না লিওনেল মেসি, কে বিশ্বের সেরা? এই বিতর্ক চলমান। কিন্তু প্রথম সপ্তাহে বিশ্বের সেরা দুই খেলোয়াড়ের পারফরম্যান্স বলছে এগিয়ে রোনালদো। দুই ম্যাচে ৪ গোল করে এই পর্তুগিজ সুপারস্টার মেসিকে অনেক পেছনে ফেলেছেন। প্রথম ম্যাচে হ্যাটট্রিক করে দলকে বাঁচিয়েছেন স্পেনের বিপক্ষে ড্র এনে দিয়ে। আর দ্বিতীয় ম্যাচে তার একমাত্র গোলে জয় নিয়েই নক আউট পর্বের পথে পর্তুগাল। ওদিকে আর্জেন্টাইন জাদুকর মেসির দল প্রথম ম্যাচে পুচকে আইসল্যান্ডের সাথে ড্র করেছে। মেসি পেনাল্টি মিস করেছেন। সমালোচনার মুখে পড়েছেন।

বিশ্বকাপ জিতবে ইংল্যান্ড

সেই ১৯৬৬ সালে নিজ দেশে বিশ্বকাপ আয়োজন করে প্রথমবার শিরোপা জিতেছিল ইংল্যান্ড। ওটাই শেষবার হয়ে আছে। এবারের দল নিয়ে অনেকে আশা দেখছেন না সেমি ফাইনালেরও। কিন্তু সাদামাটা তিউনিসিয়ার বিপক্ষে অধিনায়ক হ্যারি কেনের শেষ মিনিটের গোলের পর ইংলিশ প্রেস আশা দেখতে শুরু করেছে। সবসময় নিজেতে মুগ্ধ ইংলিশ মিডিয়া ১৯৬৬ বিশ্বকাপের মতো কিছু ঘটার গল্প লিখতে শুরু করেছে।

পেরুর ফ্যানরাই সেরা

সারানস্কের মরদাভিয়া স্টেডিয়ামে পেরু খেলেছে দারুণ। জিততে পারেনি প্রথম ম্যাচে। কিন্তু লাতিন আমেরিকার দলটি ৩৬ বছর পর বিশ্বকাপে ফিরেছে এবং তা দারুণভাবে উদযাপন করেছেন পেরুভিয়ান ফ্যানরা। স্টেডিয়ামে ডেনমার্কের বিপক্ষে পেরুর সমর্থন ছিল চোখকাড়া। নানা সাজগোজে সারানস্ককে তারা যেন লিমা বানিয়ে ফেলেছিলেন। এখন পর্যন্ত প্রায় ৫০, ০০০ পেরুভিয়ান সমর্থক রাশিয়া গেছেন। ডেনিশদের বিপক্ষের ম্যাচে এই ফ্যানরাই ছিলেন হিরো।

সেরা বল

নান্দনিকতার বিচারে এবারের বিশ্বকাপের বল টেলস্টার ১৮ যখন উড়তে থাকে তখন তা দেখার মতো দৃশ্যই তৈরি করে। প্রতি চার বছরে বল বদলায়। গোলকিপারদের আপত্তি থাকে। কিন্তু বলা হচ্ছে ১৯৭৮ আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপে ব্যবহৃত ট্যাঙ্গোর পর টেলস্টার ১৮-ই তর্কসাপেক্ষে সেরা বল। দক্ষিণ আফ্রিকায় ২০১০ বিশ্বকাপে জুবিলানি বল খেল দেখিয়েছিল। কিন্তু এবার দেখা যাচ্ছে গোল হচ্ছে বেশ। লম্বা ফ্রি-কিকেও সহায়তা আছে টেলস্টারে। রোনালদো, রাশিয়ার গোলিভিন কিংবা সার্বিয়ার কোলারভরা বলের সৌন্দর্য্যটা বেশ ফুটিয়ে তুলেছেন।

নেইমারকে নিয়ে শঙ্কা

প্রথম ম্যাচেই সুইজারল্যান্ডের সাথে ড্র করল নেইমারের ব্রাজিল। ৫বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের সেরা তারকা ফেব্রুয়ারির ইনজুরির অস্ত্রোপচারের পর বিশ্বকাপের ঠিক আগেই ফিট হয়েছেন। কিন্তু সেদিন সুইসরা তার পা টার্গেট করেছিল। ১০টি ফাউলের শিকার নেইমার। এর মাঝে অবশ্য বিতর্কও আছে। কেউ কেউ বলছে, অতি নাটকীয়তার জন্ম দিচ্ছেন নেইমার। সেট পিস আদায় করতে অভিনয় চলছে। কিন্তু ব্রাজিলের প্রথম ম্যাচের পর টানা দুদিন অনুশীলনে নেইমারের অনুপস্থিতি সেকথা পুরোপুরি বলছে না। শুক্রবার ব্রাজিলের দ্বিতীয় ম্যাচ কোস্টা রিকার বিপক্ষে। তার আগে নেইমারের অনুশীলনে ফেরার খবর এবং ম্যাচ খেলতে পারবেন এমন আস্বস্ত করা কথা ব্রাজিলের সমর্থকদের স্বস্তি দিচ্ছে।

সূত্র : টেলিগ্রাফ, দ্য সান।

ক্যাট