জার্মানির খেলার সময় পলক ফেলা ভার!

ঢাকা, বুধবার, ১৫ আগস্ট ২০১৮ | ৩১ শ্রাবণ ১৪২৫

জার্মানির খেলার সময় পলক ফেলা ভার!

পরিবর্তন ডেস্ক ৬:৫১ অপরাহ্ণ, জুন ১২, ২০১৮

print
জার্মানির খেলার সময় পলক ফেলা ভার!

শৈল্পিক ফুটবলের সাথে জার্মানি দলটির নাম বড় বেমানান। মাঠে শক্তির খেলা খেলতে দলটির জুড়ি নেই। তাই তো ১৯৯০ সালের বিশ্বকাপে কিংবদন্তি পেলে জার্মান দলকে উদ্দেশ্য করে বলেছিলেন, 'একজন লোথার ম্যাথাউস ও দশজন রোবট'। তবে এই দলটিই বিশ্বকাপ ইতিহাসে দ্বিতীয় সেরা। যৌথভাবে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ চারবারের চ্যাম্পিয়ন। সবচেয়ে বেশিবারের ফাইনালিস্ট। আর যাই হোক ফেভারিটের তালিকা থেকে জার্মানি ফেলে দেয়ার মত দল না। আর তারা রাশিয়ায় লড়বে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন হিসেবে। এখন অবশ্য তাদের খেলায় পাওয়ার ও শিল্পের একটা মিশ্রনের দেখা মেলে। রোমাঞ্চ থাকে। পুরো যান্ত্রিক আর লাগে না।

গত চার বিশ্বকাপের দুটিতেই (২০০২ ও ২০১৪ সাল) ফাইনাল খেলেছে জার্মানি। ২০০৬ ও ২০১০ সালে গিয়েছিল সেমি ফাইনাল পর্যন্ত। ২০০৬ সালের বিশ্বকাপের পর থেকেই দলটির কোচের দায়িত্ব পালন করছেন জোয়াকিম লো। তার শিষ্যদের সামনে ইতালি ও ব্রাজিলের পর তৃতীয় দল হিসেবে টানা দ্বিতীয় এবং ব্রাজিলের সমান সর্বোচ্চ ৫টি শিরোপা জয়ের হাতছানি। লো দাঁড়িয়ে আছেন ইতালির ভিত্তোরিও পজ্জোর পর দ্বিতীয় কোচ হিসেবে টানা দুই বিশ্বকাপ জয়ের রেকর্ডের সামনে।

জার্মান দলের অধিনায়ক ও বিশ্বের সেরা গোলরক্ষকদের একজন ম্যানুয়েল নয়্যার ইনজুরি কাটিয়ে ফিরেছেন স্কোয়াডে। দলটির গত বিশ্বকাপ জয়ে বড় ভূমিকা রাখা নয়্যারের বিশ্বস্ত গ্লাভসজোড়া গোলপোস্টের সামনে এবারও অনেকটা নিশ্চিন্ত রাখবে জার্মানিকে।

গত বিশ্বকাপের পর ফিলিপ লাম, মিরোস্লাভ ক্লোসা, বাস্তিয়ান শোয়েনস্টাইগারদের মত তারকার অবসর নিয়েছেন। এসেছেন টিমো ভার্নার, জোশুয়া কিমিচের মত তরুণেরা। আর টমাস মুলার, সামি খেদিরাদের মত অভিজ্ঞ ফুটবলাররা তো আছেনই। ২৮ বছর বয়সী মুলার দাঁড়িয়ে আছেন রেকর্ডের সামনে। গত দুই বিশ্বকাপে তার গোল মোট ১০টি। এবার ৬টি করতে পারলেই সাবেক সতীর্থ ক্লোসার বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ ১৬ গোলের রেকর্ড স্পর্শ করতে পারবেন। আর বেশি করতে পারলে রেকর্ডটি গড়ে নিতে পারবেন নিজের মত করে।

তারুণ্য ও অভিজ্ঞতা মিলিয়ে ভারসাম্যপূর্ণ একটি দল নিয়েই জার্মানি যাচ্ছে বিশ্বকাপে। এবারও কি সাফল্যের পুনরাবৃত্তি করতে পারবেন লোয়ের শিষ্যরা?

এসএম/ক্যাট

 

 
.


আলোচিত সংবাদ