জীবনের সবচেয়ে বড় শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান ‘মা’

ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮ | ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

জীবনের সবচেয়ে বড় শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান ‘মা’

মো: গোলাম মোস্তফা (দুঃখু) ৩:৪৫ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১৮

জীবনের সবচেয়ে বড় শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান ‘মা’

আমি যখন মায়ের সাত মাসের গর্ভে তখন আমার বাবা মারা যান, পৃথিবীর আলো দেখার পর মাকে আমি পেয়েছি মাত্র তিন বছর। তাই মাকে আমি সবসময় খুব মিস করি, মা শব্দের সাথে আছে আমার বেঁচে থাকা।

আমি যখন মা কি বুঝতে শিখেছি তখন থেকে আজ পর্যন্ত কোনো ঈদে নতুন জামা কিনে পরিনি শুধু মার জন্য। কারণ আমার মা আমার ঈদ হয়ে আমার সাথে থাকে সেই দিনটিতে, আমি আজ এত বড় হয়েছি শুধু মায়ের দোয়ার জন্য।

কখনো মায়ের সাথে ছবি তোলা হয়নি কারণ মায়ের দ্বিতীয় বিয়ে হওয়ার পর মা অনেক দূরে থাকতো, মাকে ‘মা’ বলতে ভয় পেতাম যদি আমার জন্য মায়ের সংসারে সমস্যা সৃষ্টি হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের সেমিস্টার পরীক্ষা দিয়ে মায়ের সাথে দেখা করতে যাই।

মা শুধু আমার মুখের দিকে তাকিয়ে বলে কেমন আছিস বাবা?

আমি কোনো কিছু বলতে পারছি না। বার বার ইচ্ছে করছিলো চিৎকার করে ‘মা’ বলে ডাকি।

আমি আড়ালে গিয়ে কান্না করতে লাগলাম, আমার অনেক কষ্ট হচ্ছিলো। আমি প্রতিটি রাত মাকে নিয়ে কান্না করি। কারণ আমি মায়ের কোলে মাথা রেখে ঘুমাতে চাই, আমার খুব ইচ্ছে মা আমাকে মুখে তুলে খাবার খাইয়ে দিক।

সেদিন মার কাছ থেকে বিদায় নেওয়ার আগে ‘মা’ বলে ডাকলে, মা আমার মুখের দিকে তাকিয়ে কান্না করে দিলো।

আমি মায়ের বুকে মাথা রেখে বার বার বললাম, মা আমার রাতে খুব কষ্ট হয়। তোমাকে খুব মিস করি, তোমাকে আমার জীবনে অনেক প্রয়োজন। আমি খাবার খাওয়ার সময় প্রতিদিন রাতে একমুটু ভাত আলাদা তুলে রাখি তোমার জন্য, পরে তোমার নাম করে আমি অভিনয় করে বলি বাবা ভাত টুকু খেয়ে নে। আমি তোমার ভালোবাসা আর দোয়া পেতে চাই, মাগো আমি তোমাকে ভালোবাসি আমার জীবনের চেয়ে বেশি। আমি বড় হয়ে তোমার সেবা করতে চাই, তুমি যে আমার মা।

ছোট বেলা তোমার সাথে একবার দেখা করতে গিয়েছিলাম, তখন তুমি আমায় বলেছিলে শিক্ষাগ্রহণ যেন হয় আমার প্রধান লক্ষ্য। মা আজ আমি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তোমার বলা কথাটি এখনো আমার মনে আছে। আমার জীবনের সবচেয়ে বড় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তুমি, আমার সবচেয়ে বড় ডিগ্রি হচ্ছে মায়ের সেবা করা। প্রতিটি রাত তুমি আমার খাবার টেবিলের আলো, সকালের ঘুম থেকে উঠে প্রথম দেখা তুমি।

আমি বাবাকে দেখিনি কখনো তবে তোমার মাঝে আমি পেয়েছি বাবার আদর ভালোবাসা, মা ছোট বেলা থেকে এখন পর্যন্ত আমি তোমার সাথে থাকতে পারিনি বলে আমার কোনো রাগ নেই তোমার প্রতি। প্রতিটি দিন তুমি সবসময় আমার সাথে ছিলে একবারের জন্যও মনে হয়নি তুমি পাশে নেই, মাগো সবসময় তুমি এমনভাবে ছায়া হয়ে থেকো আমার সাথে।

তোমাকে জড়িয়ে ধরে প্রথম ছবি তুললাম যেদিন, সেদিন মনে হচ্ছিল আমি তোমার কোলে নতুন করে জন্ম নিয়েছি। তোমার শরীরের স্পর্শ আমার সাথে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত থাকবে। মা আমি তোমাকে অনেক অনেক ভালোবাসি।

ইতি

তোমার অসহায় সন্তান

লেখক : শিক্ষার্থী, সাংবাদিকতা বিভাগ, পোর্ট সিটি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, খুলশী, চট্টগ্রাম।

লেখকদের উন্মুক্ত প্লাটফর্ম হিসেবে পরিচালিত হচ্ছে মুক্তকথা বিভাগটি। পরিবর্তনের সম্পাদকীয় নীতি এ লেখাগুলোতে সরাসরি প্রতিফলিত হয় না।