ভ্রমণ ও পাওয়া না পাওয়ার গল্প  

ঢাকা, ২৭ জুলাই, ২০১৯ | 2 0 1

ভ্রমণ ও পাওয়া না পাওয়ার গল্প  

পরিবর্তন ডেস্ক ৪:০৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৩, ২০১৯

ভ্রমণ ও পাওয়া না পাওয়ার গল্প  

ভ্রমণ সবসময়ই সারা জীবন মনে রাখার মতো অভিজ্ঞতা যা আপনার মনকে কিছু সময়ের জন্য মুক্ত করে দেয় এবং স্মৃতি তৈরি করতে সাহায্য করে। একজন প্রাপ্তবয়স্ক তরুণের জন্য সব দায়িত্ব অগ্রাহ্য করা অথবা সবকিছু থেকে বিরতি নেওয়ার জন্য সময় বের করা খুব কঠিন। একটু বিষদ আকারে চিন্তা করলে অনেকগুলো কারণ রয়েছে যে কারণে বিশেষ করে প্রাপ্তবয়স্ক তরুণদের জন্য ভ্রমণ গুরুত্বপূর্ণ।

১. জীবনের লক্ষ্যগুলো দৃষ্টিভঙ্গির মধ্যে নিহিতঃ যখন আপনি জীবনের মানসিক চাপ থেকে নিজেকে দূরে নিয়ে যেতে পারবেন তখন ভালোমত বুঝতে পারবেন যেকোতো বিষয়গুলো আসলে গুরুত্বপূর্ণ। ভ্রমণ আপনাকে বৃহৎ দৃষ্টিভঙ্গি থেকে জীবনকে দেখার সুযোগ করে দেবে। আপনাকে মনে করিয়ে দেবে যে আপনি আগে যেখানে ছিলেন সেখানেই আটকে নেই। এই পৃথিবীটা আপনার ঘুরে দেখার জন্য।

২. নতুন কিছু জানার সুযোগ পাবেনঃ ভ্রমণের মাধ্যমে বিভিন্ন সংস্কৃতি এবং জীবনযাপনের ধরন সম্পর্কে জানতে পারবেন। এর মধ্যে যেকোনোটা আপনাকে আকৃষ্ট করতে পারে এবং আপনি তা নিজের মধ্যে ধারণ করতে পারেন।

৩. ভ্রমণ আপনার মনকে অনুরাগী করে তোলেঃ বলা হয়ে থাকে দূরত্ব মনকে অনুরাগী করে তোলে। আপনার প্রতিদিনের অভ্যস্ত জীবন থেকে দূরে যাওয়ার মাধ্যমে বাড়ির প্রতি এক নতুন আবেদন সৃষ্টি হয়।

৪. খাবারঃ চলুন এর মুখোমুখি হওয়া যাক। নতুন এবং দারুণ খাবারের খোঁজ পেতে ভ্রমণ সবচেয়ে ভালো সুযোগ। আপনি প্রতিদিন যা খান সেসব খাবার এবং আপনার এলাকার ফাস্ট ফুড থেকে কিছু সময়ের জন্য হলেও ভ্রমণ আপনাকে নিষ্কৃতি দেবে। দুনিয়ায় আরো কী কী অন্য জিনিস আছে তা আপনার ইন্দ্রিয়কে মনে করিয়ে দিন। ভিন্ন সংস্কৃতি এবং তাদের প্রিয় খাবার সম্পর্কে জানার এটাই দারুণ সুযোগ।

৫. নিজেকে মনে করিয়ে দিতে পারবেন যে আপনি জীবন থেকে কী চানঃ

পড়াশোনা এবং পরিবার থেকে দূরে যাওয়ার মাধ্যমে আপনি এবং আপনার মন চিন্তা করার অবসর পাবে। নতুন দৃষ্টিকোণ থেকে পৃথিবীকে দেখার শ্রেষ্ঠ উপায় হলো ভ্রমণ। আপনার জীবনে কী করা উচিত তা বাড়ির লোকদের কাছ থেকে না শুনে নিজে নিজে ভাবুন। নিজেকে মনে করিয়ে দিন যে জীবন খুবই ছোট এবং বাঁধাহীনভাবে অন্বেষণের মাধ্যমে আপনি জীবনের সঠিক ব্যবহার করতে পারেন।

৬. পিন্টারেস্ট দূরে রাখুনঃ পিন্টারেস্টে সবচেয়ে জনপ্রিয় ট্যাগগুলোর মধ্যে রয়েছে ভ্রমণ এবং অনুসন্ধান। কিন্তু শুধু ওই জায়গাগুলোর ছবি দেখে আর ভ্রমণের স্বপ্ন দেখে আপনি স্বশরীরে সেখানে গিয়ে ভ্রমণের যে স্বাদ তা পাবেন না। নিজেকে এবং নিজের ভ্রমণের অনুভূতিকে গড়ে তোলার লক্ষ্য নিন এবং যে জায়গাগুলোয় যাওয়ার স্বপ্ন দেখেন সেখানে ভ্রমণ করে নিজের স্মৃতিভাণ্ডার সমৃদ্ধ করবেন।

৭. আপনি সারাজীবন অর্থ উপার্জন করতে পারবেন কিন্তু স্মৃতি তৈরি করতে পারবেন নাঃ নতুন কোনো জায়গার অভিজ্ঞতার চেয়ে টাকার মূল্য বেশি নয়। ব্যাপারটি এভাবে ভাবুন। আপনি কি কখনো কাউকে বলতে শুনেছেন, ‘আহা! আমি যদি হাওয়াই বেড়াতে না যেতাম আর তার বদলে সেই টাকাটা জমাতাম!’ মানুষ তার সেই ভ্রমণের অভিজ্ঞতার কথা বার বার ভাবে এবং সেই সময়টা ফিরে পেতে চায়। ভ্রমণের মাধ্যমে আপনি সেসব গল্প বলতে পারবেন যা খুব কম লোকই বলতে পারে।

৮. নিজের স্বাচ্ছন্দ্যের জায়গা থেকে বেরিয়ে আসুনঃ যত দূরে যাবেন, তত নিজেকে আবিষ্কার করবেন। ভ্রমণ নিজের স্বাচ্ছন্দ্যের জায়গা থেকে বের করে এনে আপনাকে নতুন স্বাচ্ছন্দ্যের বিষয়ের সাথে পরিচয় করিয়ে দেবে যা আপনি নিজেও জানতেন না। হয়তো যতটা ভেবেছিলেন আসলে তার চেয়েও বেশি দুঃসাহসী আপনি। কিন্তু কোনো দুঃসাহসিক অভিযানে না গেলে তা কী করে বুঝবেন?

ইসি/

 

ভ্রমণ: আরও পড়ুন

আরও