হাঁটুর বয়সীর কাছে ধরাশায়ী ফেদেরার

ঢাকা, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯ | ২৯ কার্তিক ১৪২৬

হাঁটুর বয়সীর কাছে ধরাশায়ী ফেদেরার

পরিবর্তন ডেস্ক ৭:১০ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২০, ২০১৯

হাঁটুর বয়সীর কাছে ধরাশায়ী ফেদেরার

যেন অঘটনের মঞ্চ সাজিয়ে বসেছে এবারের অস্ট্রেলিয়ান ওপেন। নারী এককে একই দিন সিটকে গেছেন মারিয়া শারাপোভা ও অ্যাঞ্জেলিক কেরবার। তাদের বিদায় ঘণ্টা বাজান দুই অখ্যাত তারকা।

অঘটনের এই তালিকায় রোববার যুক্ত হলেন টেনিসের মহাতারকা রজার ফেদেরার। তিনি স্টেফ্যান্স সিটসিপাসের কাছে হেরে আসর থেকে ছিটকে গেছেন।

সুইডিশ তারকা রজার ফেদেরারের বর্তমান বয়স ৩৭ বছর। আর গ্রিসের সিটসিপাসের মাত্র ২০। বলা চলে, হাঁটুর বয়সীর কাছে হেরে গেলেন ২০ বারের গ্র্যান্ডস্লাম বিজয়ী ফেদেরার।

গ্রিসের রড লেভার অ্যারিনাতে ফেদেরার ৭-৬, ৬-৭, ৫-৭ ও ৬-৭ সেটে সিটসিপাসের কাছে হেরে যান।

নিসন্দেহে ফেদেরারের বিপক্ষে সিটসিপাসের এটি ছিল ক্যারিয়ারের সেরা ম্যাচ। সেটিকে চার সেটের তুমুল লড়াইয়ে রাঙিয়ে রাখলেন। এই জয়ে গ্রিসের ১৪তম বাছাই সিটসিপাস প্রথম গ্র্যান্ডস্লাম বিজয়ের লক্ষ্যে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছেন।

অবশ্য প্রথম সেটেই ধাক্কা খান সিটসিপাস। গ্রেট ফেদেরার ৭-৬ ব্যবধানে জিতে নেন। প্রথম সেটের লড়াই জিইয়ে রেখে দ্বিতীয় সেটে ঘুরে দাঁড়ান গ্রিক বাছাই, একই ব্যবধান (৭-৬) ফেদেরারকে ফিরিয়ে দেন তিনি।

এরপর আর সিটসিপাসকে আটকানো যায়নি। শেষ দুটি সেট তিনি সরাসরি ৭-৫ ও ৭-৬ ব্যবধানে জিতে ‘জায়ান্ট কিলারের’ তকমা পান।

বিজয়ের পর ভাষা হারিয়ে ফেলেন সিটসিপাস, ‘আমার কিছুই বলার নেই। অনুভূতি ভাষায় বলে বোঝাতে পারব না। তবে, এটুকু বলতে পারি, আমিই জগতের সবচেয়ে সুখী মানুষ।’

তিনি বলেন, ‘শুরু থেকেই আমি আমার সক্ষমতা জানি এবং নিজের প্রতি বিশ্বাস ছিল। রজার লিজেন্ড। তিনি দীর্ঘদিন টেনিসে অসাধারণ কিছু করেছেন। এই ম্যাচের আগে আমি তার ৬ বছরের খেলা বিশ্লেষণ করেছি। এরপর তার মুখোমুখি হতে স্বপ্নে বিভোর ছিলাম। অবশেষে সেটিতে বিজয়ী হলাম, আমি ভাষা হারিয়ে ফেলেছি।’

এই জয়ে দেশের পক্ষেও ইতিহাস গড়লেন সিটসিপাস। প্রথম তারকা হিসেবে তিনি কোনো গ্র্যান্ডস্লাম আসরের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠলেন। সেখানে তিনি স্পেনের ২২তম বাছাই রবার্তো বাতিস্ততা অগাটের মুখোমুখি হবেন।

আইএম

 

টেনিস: আরও পড়ুন

আরও