অ্যাপলে চাকরির ইচ্ছা, তাই তাদের সিস্টেম হ্যাক করল কিশোর

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০১৯ | ৪ আষাঢ় ১৪২৬

অ্যাপলে চাকরির ইচ্ছা, তাই তাদের সিস্টেম হ্যাক করল কিশোর

পরিবর্তন ডেস্ক ৬:২২ অপরাহ্ণ, মে ২৮, ২০১৯

অ্যাপলে চাকরির ইচ্ছা, তাই তাদের সিস্টেম হ্যাক করল কিশোর

প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান অ্যাপলে কাজ করার স্বপ্ন ছিল অস্ট্রেলিয়ার ১৭ বছর বয়সী এক কিশোরের। বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় এই প্রতিষ্ঠানের কাছে কিভাবে নিজের যোগ্যতা প্রমাণ করা যায় তাই ভাবতে ভাবতে শেষ পর্যন্ত অ্যাপলের সিস্টেমই হ্যাক করে বসে সে।

অস্ট্রেলীয় সংবাদমাধ্যম এবিসি ডট নেট সোমবার জানায়, অ্যাডিলেইডের ওই কিশোর মেলবোর্নের আরেক কিশোরের সঙ্গে মিলে ২০১৫ সালে অ্যাপলের প্রধান কম্পিউটার সিস্টেম হ্যাক করার কথা স্বীকার করেছে। পরে ২০১৭ সালে তারা আবারও অ্যাপলের সিস্টেম হ্যাক করে বিভিন্ন অভ্যন্তরীণ তথ্য ও দলিল ডাউনলোড করেন।

ওই কিশোর জানায়, তথ্যপ্রযুক্তি সম্পর্কে তার ‘উচ্চপর্যায়ের অভিজ্ঞতা’ কাজে লাগিয়ে সে অ্যাপলের সার্ভারের কাছে নিজেকে অ্যাপলের একজন কর্মচারী হিসেবে উপস্থাপন করতে সক্ষম হয়। পরে তার কাজকর্ম মার্কিন তদন্ত সংস্থা এফবিআইকে জানানো হলে তারা অস্ট্রেলিয়ার পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করে বলে জানায় বার্তা সংস্থা এফবিআই।

ছেলেটির আইনজীবী মার্ক টুইগ আদালতকে বলেন, তার মক্কেল এসব কাজের গুরুত্ব সম্পর্কে সচেতন ছিল না এবং সে মনে করেছিল, প্রতিষ্ঠানটি হয়ত তাকে কোনও চাকরি দিতে চাইবে।

‘ও ১৩ বছর বয়সে এসব শুরু করেছিল। এই অপরাধের গুরুত্ব সম্পর্কে ওর কোনও ধারণা ছিল না। বরং ও মনে করেছিল ঘটনাটা প্রকাশ পেলে ও হয়ত ওই কোম্পানিতে চাকরি পাবে,’ বলেন টুইগ।

আইনজীবী টুইগ আরও জানান, একই রকম একটি ঘটনায় ইউরোপের এক হ্যাকার শেষ পর্যন্ত অ্যাপলে চাকরি পেয়েছিল।

তার মক্কেল হ্যাক করার ফলে অ্যাপলের কোনও আর্থিক বা বুদ্ধিবৃত্তিক ক্ষতি হয়নি, বলেন তিনি।

অ্যাডেলেইড ইউথ কোর্টে ছেলেটি কম্পিউটার হ্যাকিংয়ের একাধিক অভিযোগে নিজের দোষ স্বীকার করেছে।

ম্যাজিস্ট্রেট ডেভিড হোয়াইট তাকে দোষী সাব্যস্ত না করে ৫০০ ডলারের বন্ডের বিনিময়ে ভাল ব্যবহারের আদেশ দিয়ে ছেড়ে দিয়েছেন।

এমআর/এএসটি