স্যাটেলাইট বিধ্বংসী অস্ত্র ব্যবহার করায় ভারতের তীব্র সমালোচনায় নাসা

ঢাকা, ৩০ জুন, ২০১৯ | 2 0 1

স্যাটেলাইট বিধ্বংসী অস্ত্র ব্যবহার করায় ভারতের তীব্র সমালোচনায় নাসা

পরিবর্তন ডেস্ক ৩:২৯ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ০২, ২০১৯

স্যাটেলাইট বিধ্বংসী অস্ত্র ব্যবহার করায় ভারতের তীব্র সমালোচনায় নাসা

অস্ত্র প্রয়োগ করে মহাশূন্যে একটি স্যাটেলাইট ধ্বংস করায় ভারতের তীব্র সমালোচনা করেছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা। সংস্থাটি মনে করে এটা ‘একটা ভয়াবহ জিনিস’ এবং এতে ইন্টারন্যাশনাল স্পেস স্টেশন বা আইএসএসের ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে, মঙ্গলবার জানায় ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি।

নাসার প্রধান জিম ব্রিডেন্সটাইন বলেন, ভারতের ওই পরীক্ষার পর গত দশ দিনে মহাকাশে ভাসমান আবর্জনার সঙ্গে আইএসএসের সংঘর্ষের সম্ভাবনা বেড়ে গেছে ৪৪%।

তিনি আরও জানান, ‘ইন্টারন্যাশনাল স্পেস স্টেশন এখনও নিরাপদ আছে। এটার গতিপথ বদলাতে হলে আমরা তাই করব।’

অস্ত্র ব্যবহার করে মহাকাশে কোনও কিছু ধ্বংস করার জন্য পরীক্ষা চালানো চতুর্থ দেশ ভারত।

গত ২৭ মার্চ ভারতের প্রধানমন্ত্রী ব্যাপক ঢাকঢোল পিটিয়ে এই পরীক্ষার সাফল্য প্রচার করে বলেন, ভারত এখন ‘স্পেস পাওয়ার বা মহাকাশের পরাশক্তি’ হিসেবে প্রতিষ্ঠা পেয়েছে।

এক বক্তৃতায় কর্মীদের ব্রিডেন্সটাইন অ্যান্টি-স্যাটেলাইট বা অ্যাস্যাট অস্ত্রের কঠোর সমালোচনা করেন। তিনি জানান মহাকাশে কক্ষপথে ঘুরতে থাকা ৪০০ টুকরো আবর্জনা তারা চিহ্নিত করেছেন। এর মধ্যে ১০ সেন্টিমিটারের বেশি ব্যাস এমন ৬০টি আবর্জনার টুকরোকে তারা নজরদারিতে রেখেছেন।

‘ইন্টারন্যাশনাল স্পেস ষ্টেশনের ওপরে কক্ষপথে আবর্জনা ছড়িয়ে দেয় এমন ঘটনা ঘটানোটা একটা ভয়ানক, ভয়ানক জিনিস। ভবিষ্যতে মহাকাশ জয়ের প্রত্যাশার সঙ্গে এটা সঙ্গতিপূর্ণ নয়,’ বলেন তিনি।

আগে ২০০৭ সালে চীন একই রকম পরীক্ষা চালিয়ে আন্তর্জাতিক মহলে দারুন সমালোচিত হয়েছিল।

এমআর/এএসটি 

 

প্রযুক্তির খবর: আরও পড়ুন

আরও