ক্যান্সার আক্রান্তদের কাছে ক্ষমা চাইল স্যামসাং

ঢাকা, বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

ক্যান্সার আক্রান্তদের কাছে ক্ষমা চাইল স্যামসাং

পরিবর্তন ডেস্ক ৫:২৭ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৩, ২০১৮

ক্যান্সার আক্রান্তদের কাছে ক্ষমা চাইল স্যামসাং

স্যামসাংয়ের কারখানায় কাজ করতে গিয়ে ক্যান্সারে আক্রন্ত শ্রমিকদের কাছে ক্ষমা চেয়েছে বৃহৎ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানটি।

প্রায় এক দশকের বাদানুবাদের পর সেমি-কন্ডাক্টর কারখানার শ্রমিকদের কাছে স্যামসাং ক্ষমা চাইল বলে জানায় বার্তা সংস্থা এএফপি।

আন্দোলনকারী দলটি জানায়, স্যামসাংয় ইলেক্ট্রনিক্সে চাকরি নেয়ার পর ৩২০ জন কর্মক্ষেত্রের সঙ্গে সম্পর্কিত অসুখে আক্রান্ত হয়। এদের মধ্যে ১১৮ জন মৃত্যুপথযাত্রী।

‘অসুস্থ শ্রমিক ও তাদের পরিবারের কাছে আমরা আন্তরিকভাবে ক্ষমা চাইছি,’ শুক্রবার বলেন স্যামসাংয়ের কো-প্রেসিডেন্ট কিম কি-নাম।

তিনি বলেন, ‘আমরা আমাদের সেমি-কন্ডাক্টর কারখানা ও এলসিডি কারখানায় স্বাস্থ্যঝুঁকি মোকাবেলায় ব্যর্থ হয়েছি।’

স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স বিশ্বের বৃহত্তম মোবাইল ফোন ও চিপ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান।

চলতি মাসেই প্রতিষ্ঠানটি জানায়, তারা আক্রান্ত প্রত্যেককে ১ লাখ ৩৩ হাজার ডলার পর্যন্ত দেবে। ১৯৮৪ সাল থেকে প্রতিষ্ঠানটিতে কাজ করতে গিয়ে আক্রান্তরা এই ক্ষতিপূরণ পাবে। ১৬ ধরনের ক্যান্সার, বিরল অসুখ, গর্ভপাত ও ছোঁয়াচে রোগ আক্রান্ত ও তাদের বাচ্চারা এই অর্থ পাবেন।

বিশ্বের বৃহত্তম অর্থনীতির দেশগুলোর মধ্যে ১১তম দক্ষিণ কোরিয়ার উন্নয়নে স্যামসাং উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখেছে। কিন্তু, তাদের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক যোগাযোগের অপব্যবহারসহ ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে।

আক্রান্ত শ্রমিকদের নেতা হোয়াং স্যাং-গির ২২ বছরের মেয়ে ২০০৭ সালে মারা যান। সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘মেয়েকে দেয়া প্রতিশ্রুতি তিনি এখন রক্ষা করতে পারবেন।’

হোয়াং স্যাং-গির বলেন, ‘এই ক্ষমাপ্রার্থনা আসলে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য যথেষ্ট নয়। কিন্তু, আমরা এটা গ্রহণ করব। কোনো পরিমাণ ক্ষমা দিয়েই সব অপমান, বেদনা, শিল্প কারখানার ক্ষতি ও স্বজন হারানোর কষ্ট দূর করা সম্ভব নয়।’

এমআর/আইএম