কিলোগ্রামের নতুন সংজ্ঞা কী ঠিক করলেন বিজ্ঞানীরা?

ঢাকা, বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

কিলোগ্রামের নতুন সংজ্ঞা কী ঠিক করলেন বিজ্ঞানীরা?

পরিবর্তন ডেস্ক ১:৪০ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৭, ২০১৮

কিলোগ্রামের নতুন সংজ্ঞা কী ঠিক করলেন বিজ্ঞানীরা?

বিজ্ঞানীরা সম্প্রতি কিলোগ্রামের নতুন একটি সংজ্ঞা নির্ধারণ করেছেন।

১৮৮৯ সাল থেকে প্যারিসের এক প্লাটিনাম-ইরিডিয়াম ধাতুতে তৈরি এক বাটখারার ভিত্তিতে পরিমাপ করা হতো ওজনের। এবার পাল্টাতে চলেছে সেই পদ্ধতি। একে বলা হতো ইন্টারন্যাশনাল প্রোটোটাইপ কিলোগ্রাম। ‘ল্য গ্রঁদ কে' নামের এই বাটখারাকে প্রমাণ ধরে পৃথিবীর বাকি সব কিছুর ওজন মাপা হতো এতদিন।

কিন্তু, এই পদ্ধতিতে সমস্যা হচ্ছিল। প্লাটিনামের ওজন সব সময় এক থাকে না। কাঁচের বেলজারের মধ্যে রাখা হলেও এর ওপরে জমছিল ধুলোর মিহি আস্তরণ। আবার আবহাওয়ার তারতম্যের জন্যও সামান্য পরিবর্তিত হতে পারে। এবার এই সামান্য পরিবর্তন আমাদের রোজকার জীবনে তেমন ছাপ না ফেললেও বৈজ্ঞানিক গবেষণায় রীতিমতো সমস্যা তৈরি করছিল।

শুক্রবার গবেষকরা ভার্সেইতে পুরনো পদ্ধতি বদলে ইলেকট্রিক কারেন্ট বা বিদ্যুৎ প্রবাহের সঙ্গে সম্পর্কের ভিত্তিতে কিলোগ্রামের সংজ্ঞা নির্ধারণের পক্ষে রায় দেন।

প্যারিসের কাছে ভার্সেই শহরে ৫০টিরও বেশি দেশের ভোটে ‘ল্য গ্রঁদ কে’-কে বাতিল করে মাক্স প্লাঙ্কের ধ্রুবকের ভিত্তিতে এক কেজি নির্ধারণের সিদ্ধান্ত হল। কারণ, ওই ধ্রবক অক্ষয়।

এতদিন কিলোগ্রাম ছাড়া পরিমাপের অন্যান্য একক প্রকৃতির বিশেষ কোনও ধ্রুব সংখ্যার ওপর ভিত্তি করে নির্ধারিত হতো। এখন থেকে কিলোগ্রামের সংজ্ঞাও একইভাবে নির্ধারণ করা হবে।

নতুন পদ্ধতি কিভাবে কাজ করবে?

তড়িৎচুম্বক একধরনের শক্তি সৃষ্টি করে। বিভিন্ন জায়গায় ক্রেন দিয়ে ভারি গাড়ি তোলার জন্য এই শক্তি ব্যবহার করা হয়। কোনও তড়িৎচুম্বকের শক্তি এর কয়েলের মধ্যে দিয়ে প্রবাহিত বিদ্যুতের সঙ্গে সরাসরি সম্পর্কিত। এবং এই শক্তি দিয়ে কৃত কাজের পরিমাণ অর্থাৎ কোনও ওজন তুলতে প্রয়োজনীয় শক্তিও বিদ্যুৎ প্রবাহের সঙ্গে সম্পর্কিত।

বিজ্ঞানীরা এই সম্পর্ক ব্যবহার করেই কিলোগ্রামের নতুন সংজ্ঞা নির্ধারণ করেছেন।

এমআর/এএসটি