এক জমিতেই হরেক ফলের চাষ

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯ | ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

এক জমিতেই হরেক ফলের চাষ

জেলা প্রতিনিধি ৬:১৫ অপরাহ্ণ, জুন ১৬, ২০১৬

এক জমিতেই হরেক ফলের চাষ

শ্রীমঙ্গল শহর থেকে ৩ কিলোমিটার দূরে উত্তরসুর গ্রামের জাহের ভাণ্ডারি। শখের বসে ধানের ঢালু জমিকে উঁচু জমিতে পরিণত করে গড়ে তুলছেন মিশ্র ফলের বাগান। ১৬৫ শতক জায়গা জুড়ে গড়ে ওঠা ওই বাগানের বেশিরভাগ অংশে রয়েছে আনারস।

সরেজমিনে বাগানে গিয়ে দেখা যায়, গাছে গাছে শোভা পাচ্ছে আনারসসহ বিভিন্ন ধরনের ফল ও সবজি। সবুজ পাতার আড়ালে পাতা ঝরা ডালেও ঝুলে আছে লেবু নাগা মরিচ। বর্তমানে তার বাগানে বাগানে লেবু, আনারস, নাগা মরিচ, কলা, পেঁপে, পেয়ারাসহ হরেক প্রজাতির গাছ। রয়েছে নানারকম বনজ-ওষুধি গাছও।

যে আনারস পাহাড় বা উঁচু টিলায় চাষ হয় জাহের মণ্ডল সে আনারস চাষ করছেন নিজের বাগানে।

বাগান রক্ষক শফিকুর রহমান জানান এ বছর প্রায় ৭ হাজার আনারসের চারা রোপণ করা হয়েছে। এই বছরে নতুন অবস্থায় ৭০০-৮০০ আনারস বিক্রি করা হয়েছে। আগামীতে আনারস থেকে প্রায় ৩ থেকে ৪ লক্ষাধিক টাকা বিক্রি করা যাবে।

বাগান মালিক জাহের ভাণ্ডারি বলেন, আমি প্রথমে লেবু চাষ শুরু করি। এরপর আনারস চাষের চিন্তা মাথায় আসে। এই বছর আনারস বিক্রির মাধ্যমে আমি তিন থেকে চার লাখ টাকা আয় করতে পারব।

সরজমিনে বাগান পর্যবেক্ষণের সময় স্থানীয় বাসিন্দা মিল্লাদ হোসেন বলেন, পাহাড়ি অঞ্চল থেকে যে আনারস বাজারজাত করা হয় জাহের ভাণ্ডারির এ বাগান থেকে ২-৩ বছর পর পাহাড়ি এলাকায় চাষকৃত আনারস এর মত বাজারে বিক্রি করা সম্ভব হবে।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সুকল্প দাস বলেন, শ্রীমঙ্গল শহরে এই প্রথম এরকম একটি বাগান আছে। উপজেলা কৃষি অফিস থেকে সব ধরনের সহযোগিতা দেওয়া হবে বলে আশ্বাস দেন তিনি।

এআই/জেআই/একে