‘আমার জীবনের ১৬টি বছর খুব সুন্দর ছিলো’

ঢাকা, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

‘আমার জীবনের ১৬টি বছর খুব সুন্দর ছিলো’

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি ৬:৩৮ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৯, ২০১৯

‘আমার জীবনের ১৬টি বছর খুব সুন্দর ছিলো’

‘আমার জীবনের ১৬টি বছর খুব সুন্দর ছিলো। কিন্তু ১৭তম বছরে অনেক কিছু ঘটে গেছে।’

চিরকুটে এমনটি লিখেই শারমীন আক্তার (১৭) নামে এক কলেজছাত্রী ঘরের ভেতর ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার হাজীপুর ইউনিয়নের বালিয়াটিলা গ্রামে। শারমীন ওই গ্রামের লাল মিয়ার মেয়ে ও শমসেরনগর সুজা মেমোরিয়াল কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী।

মা বাবা ও পরিবারের সদস্যদের উদ্দেশ করে চিরকুটে সে আরও লিখে, ‘আমি খুব ভালো ছাত্রী ছিলাম। আমার আব্বা, আম্মা ও ভাই আমাকে খুব আদর করেন ভালোবাসেন। আমার মা-বাবা আমাকে তাদের পছন্দে বিয়ে দিতে চাইছিলেন। কিন্তু আমি বিয়ের জন্য রাজি নই। আবার আমি বিয়েতে অমত করলে মা-বাবা কষ্ট পাবেন। আমি মা-বাবাকে কষ্ট দিতে চাই না। কাঁদতে আমার খুব কষ্ট হয়। আত্মহত্যা মহাপাপ। তবে বেঁচে থাকা আমার জন্য অসম্ভব, তাই মৃত্যুর পথ বেছে নিয়েছি। আমি জানি, আল্লাহ আমাকে ক্ষমা করবেন না। ওপারে জাহান্নামের আগুনে আমি জ্বলবো। তবুও আমাকে সবাই মাফ করে দিয়েন খুশি হবো। ইতি S. A।’

পুলিশ জানায়, রোববার দিনগত রাতে শারমীন গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

সোমবার ভোরে শারমীনের ছোট বোন শাহরীন ঘুম থেকে উঠে বড় বোনকে গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় দেখে চিৎকার দেয়। পরে মা-বাবা এসে তাকে ঝুলন্ত দেখে পুলিশে খবর দেন।

খবর পেয়ে কুলাউড়া থানার উপ পরিদর্শক মো. আবুল বাশার শারমীনের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়ে দেন। এ সময় ঘর থেকে শারমীনের হাতে লেখা দুই পৃষ্ঠার একটি চিরকুট উদ্ধার করে পুলিশ।

চিরকুটটির বিষয়টি জানিয়ে স্থানীয় হাজিপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল বাছিত বাচ্চু বলেন, ধারণা করছি, এটা আত্মহত্যা।

কুলাউড়া থানার উপ-পরিদর্শক মো. আবুল বাশার বলেন, ফ্যানের সাথে ঝুলে সে আত্মহত্যা করেছে। চিরকুটটি ছিড়ে ফেলা হয়েছিলো। পরে ছেড়া চিরকুটটি ঘর থেকে উদ্ধার করেছি। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইয়ারদৌস হাসান লাশ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এইচআর

 

সিলেট: আরও পড়ুন

আরও