নকলে বাধা দেয়ায় শিক্ষককে পেটালো স্কুলছাত্র

ঢাকা, ১৫ জুলাই, ২০১৯ | 2 0 1

নকলে বাধা দেয়ায় শিক্ষককে পেটালো স্কুলছাত্র

তাহিরপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি ৭:৫২ অপরাহ্ণ, জুন ৩০, ২০১৯

নকলে বাধা দেয়ায় শিক্ষককে পেটালো স্কুলছাত্র

পরীক্ষার্থীকে নকলে বাধা দেয়ায় শিক্ষককে পেটালো এক স্কুলছাত্র। ঘটনাটি ঘটেছে বাদাঘাট পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ে রোববার সকালে বিদ্যালয়ের অর্ধবাষিক পরীক্ষা চলাকালে।

ওই স্কুলছাত্রের নাম তোফায়েল আহমেদ তার বাবা আবু তাহের মিয়া ওই বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য।

বাদাঘাট পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, গত কয়েকদিন ধরে বাদাঘাট পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ে বিভিন্ন শ্রেণিতে অধ্যায়নরত শিক্ষার্থীদের অর্ধবাষিক পরীক্ষা চলছে। রোববারও ছিল বিভিন্ন শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা।

পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী শত শত শিক্ষার্থীর মধ্যে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য আবু তাহের মিয়ার নাতি ৮ম শ্রেণি পড়ুয়া শিক্ষার্থী পারভেজ মিয়া পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছিল।

পরীক্ষা চলাকালীন পরীক্ষার্থী পারভেজ মিয়া বাড়ি থেকে নকল নিয়ে যাওয়াসহ অন্য শিক্ষার্থীদের খাতা টানা-হেছড়া করে পরীক্ষায় খাতায় লিখছিল। সে সময় বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মাজেদুল ইসলাম তা দেখতে পেয়ে তাকে বাধা দেন। তারপরও শিক্ষার্থী পারভেজ বিভিন্ন শিক্ষার্থীকে বিরক্ত করছিল। এক সময় বাধ্য হয়ে তাকে বিদ্যালয় থেকে বের করে দেন শিক্ষক মাজেদুল ইসলাম।

বিদ্যালয় থেকে বের করে দেয়ার পর পরীক্ষার্থী মাজেদুল ইসলাম বাড়িতে গিয়ে তার দাদা বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আবু তাহের মিয়াকে জানায়। সে সময় পাশে থেকে আবু তাহের মিয়ার সন্তান তোফায়েল মিয়া শুনতে পেয়ে তাৎক্ষণিক বিদ্যালয়ে চলে আসে এবং পরীক্ষার হলে ঢুকে শিক্ষক মাজেদুল ইসলামকে মারধর করে। সেই সাাথে  বিভিন্ন শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার খাতা টেনে-হেছড়ে ছিড়ে ফেলে।

ঘটনাটি দেখে প্রধান শিক্ষক দৌড়ে এসে তোফায়েলকে বাধা দিলে তোফায়েল প্রধান শিক্ষকের দিকেও তেড়ে আসে। পরবর্তীতে বিদ্যালয়ে সকল শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা মিলে এগিয়ে আসলে শিক্ষার্থীদের তোপের মুখে সে পালিয়ে যায়।

বাদাঘাট পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সফিুকল ইসলাম ধানু মিয়া বলেন, নকলে বাধা দেয়ার জের ধরে তোফায়েল ঘটনাটি ঘটিয়েছে। আমরা এ বিষয়ে আইনি সাহায্য চেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয়কে জানিয়েছি।

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি নিজাম উদ্দিন বলেন, শিক্ষককে মারধেরের ঘটনায় ওই শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্বান্ত নেয়া হয়েছে।

তবে এ ঘটনায় অভিযুক্ত বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আবু তাহের মিয়া কিংবা তার ছেলে তোফায়েল মিয়া কারো সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয় নি।

তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আসিফ ইমতিয়াজ বলেন, শিক্ষকরা আমার কাছে এসেছিলেন। আমি তাদের বলেছি বিষয়টি থানায় জানানোর জন্য।

তিনি আরো জানান, তোফায়েলকে থানা পুলিশের মাধ্যমে যত দ্রুত সম্ভব গ্রেফতার করে মোবাইল কোট পরিচালনার মাধ্যমে তার শাস্তি প্রদান করা হবে।

এইচআর

 

সিলেট: আরও পড়ুন

আরও