শ্রীমঙ্গলে শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানী, গ্রেফতার ২

ঢাকা, ১১ আগস্ট, ২০১৯ | 2 0 1

শ্রীমঙ্গলে শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানী, গ্রেফতার ২

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি ৫:৪৩ অপরাহ্ণ, মে ১০, ২০১৯

শ্রীমঙ্গলে শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানী, গ্রেফতার ২

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে পঞ্চম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে বেড়ানোর কথা বলে রাবার বাগানের ভেতরে নিয়ে শ্লীলতাহানীর ঘটনা ঘটেছে। ওই ঘটনায় শিক্ষার্থীর বাবার লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্ত দু'জনকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

তারা হলেন- শ্রীমঙ্গল সদর ইউনিয়নের শহরতলীর বিরাইমপুর এলাকার বাসিন্দা আব্দুর রহমানের ছেলে রাজা মিয়া (১৮) ও ভুরভুরিয়া চা বাগানের সুধীর রিকিয়াশনের ছেলে  আকাশ রিকিয়াশন (১৬)। এছাড়া মামলার অপর আসামি একই এলাকার আব্দুল হাইয়ের পুত্র সুমন মিয়া( ২৩) পলাতক রয়েছে।

এদিকে থানায় দায়ের করা মামলায় আপোস করার জন্য আসামিপক্ষের লোকজন ভয়ভীতি ও নানা চাপ দিচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী ওই শিক্ষার্থীর বাবা।

লিখিত অভিযোগ ওই ছাত্রীর বাবা উল্লেখ করেন, ‘বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় শহরতলীর বিরাইমপুর এলাকার আব্দুর রহমানের পুত্র রাজা মিয়া (১৯) এবং একই এলাকার সুধীর রিকিয়াশনের ছেলে আকাশ রিকিয়াশন (১৬) বেড়ানোর কথা বলে আমার মেয়েটিকে ফুলছড়া চা বাগানের রাবার বাগানের দিকে নিয়ে যায়। ওই রাবার বাগানের উত্তর দক্ষিণমুখি রাস্তার মাঝখান হতে তাকে পূর্ব পাশের বাগানের ভেতরে নিয়ে গিয়ে তার পরনের কাপড় টানা হেঁচড়া করে শ্লীলতাহানী করে। এ সময় সে চিৎকার করলে তারা পলিয়ে যায় এবং আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে আমার মেয়েকে উদ্ধার করে। পরবর্তীতে একই এলাকার আব্দুল হাইয়ের পুত্র সুমন মিয়া (২৩) দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে এ ঘটনাটি কাউকে না বলার জন্য মেয়েটিকে ভয়ভীতি দেখিয়ে চড়থাপ্পর মারে’।

শিক্ষার্থীর বাবা শুক্রবার দুপুরে মুঠোফোনে বলেন, ‘আমার বাড়ি কমলগঞ্জ উপজেলার তিলকপুর গ্রামে। মা মারা যাওয়া আমার মেয়েটি শ্রীমঙ্গল শহরের পূর্বাশা আবাসিক এলাকায় তার নানী ছালেহা বেগমের ভাড়া বাসায় থেকে লেখাপড়া করে। আমি থানায় অভিযোগ দিয়েছি, গত রাতে মামলা রেকর্ড হয়েছে। এখন আসামিপক্ষের লোকজন মামলাটি আপোস মিমাংসার জন্য ভয়ভীতিসহ নানা চাপ দিচ্ছে। আমিতো গরীব মানুষ। কিভাবে তাদের সাথে মামলা মোকদ্দমা চালিয়ে যাবো। এখন আমি কি করবো, বুঝতে পারছি না। খুব ভয়ের মধ্যে আছি।’

শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুস ছালেক বলেন, 'অভিযোগ পাওয়ার পর ঘটনার দিন বিকালেই দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়। অন্য আসামিকে সুমনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। ভিকটিমের পরিবারকে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা দেয়া হবে।'

পিএসএস

 

সিলেট: আরও পড়ুন

আরও