গ্রামীণফোনের মুনাফার প্রবৃদ্ধি ৯.৫ শতাংশ

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গ্রামীণফোনের মুনাফার প্রবৃদ্ধি ৯.৫ শতাংশ

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৬:৫৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২১, ২০১৯

গ্রামীণফোনের মুনাফার প্রবৃদ্ধি ৯.৫ শতাংশ

পুঁজিবাজারের টেলিকমিউনিকেশন খাতের তালিকাভূক্ত গ্রামীণফোন চলতি অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিকের (৯ মাসের) আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। তৃতীয় প্রান্তিক শেষে কোম্পানিটির প্রবৃদ্ধি আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৯.৫ শতাংশ বেড়েছে।

সোমবার  গ্রামীণফোনের আনিং কলে (আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ পরবর্তী অনুষ্ঠান) প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মাইকেল প্যাট্রিক ফোলি এ তথ্য জানান।

তৃতীয় প্রান্তিক অর্থাৎ ২০১৯ সালের প্রথম ৯ মাসে কোম্পানিটির আয় হয়েছে ১০ হাজার ৭৫০ কোটি টাকা। যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৯.৫% বেশি। অপারেটরটির গ্রাহক সংখ্যা ৬% বেড়ে বছরের প্রথম ৯ মাসে ৭ কোটি ৫৭ লাখে দাঁড়িয়েছে।

এবছরের তৃতীয় প্রান্তিকে প্রতিষ্ঠানটি ৪ লাখ নতুন গ্রাহক নেটওয়ার্কে সংযুক্ত করেছে যা ২০১৮ সালের শেষ প্রান্তিকের থেকে ৬% বেশি। এ সময়ে প্রতিষ্ঠানটির ইন্টারনেট গ্রাহক বৃদ্ধি পেয়েছে ৯ লাখ। বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটির ৫৩.৭% গ্রাহক ইন্টারনেট সেবা ব্যবহার করছে।

গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মাইকেল প্যাট্রিক ফোলি বলেন, প্রতিকূল নিয়ন্ত্রকমূলক পরিবেশ থাকা সত্বেও আমরা তৃতীয় প্রান্তিকে শক্তিশালী ব্যবসায়িক ফলাফল অর্জন করেছি। নেটওয়ার্ক সম্প্রসারনে নিয়ন্ত্রক সংস্থার অনুমোদন বা এনওসি প্রদান বন্ধের কারণে আমরা ক্ষতিগ্রস্ত হলেও গ্রামীণফোন দেশের ৯৯.৫% গ্রাহককে তার নেটওয়ার্কে আওতায় মোবাইল সেবা প্রদান করছে। ৬৯% জনগোষ্ঠী আমাদের ফোরজি নেটওয়ার্কের আওতায় রয়েছে। ভয়েস সেবা থেকে আমাদের প্রাপ্ত আয় বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং এর পাশাপাশি ইন্টারনেট সেবা ব্যবহার সহ ইন্টারনেট ভিত্তিক আয় বৃদ্ধিও পরিলক্ষিত হচ্ছে। আমাদের গ্রাহক সংখ্যার ৫৩.৭% বর্তমানে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী।

তিনি আরো বলেন, আমাদের শেয়ারহোল্ডারদের স্বার্থরক্ষা, গ্রাহকদের সর্বোচ্চ মানের সেবা প্রদান এবং দেশজুড়ে শক্তিশালী নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ করাই আমাদের মূল লক্ষ্য এবং এটি ধরে রাখতে আমরা বদ্ধ পরিকর।

১৯.৯% মার্জিনসহ তৃতীয় প্রান্তিকে কর পরবর্তী নীট মুনাফা ছিলো ৭৩০ কোটি টাকা। এই সময়কালের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ৫.৩৮ টাকা।

২০১৯ সালের তৃতীয় প্রান্তিকে গ্রামীণফোন উল্লেখযোগ্য মার্জিন সহ উল্লেখযোগ্য ব্যবসায়িক ফলাফল অর্জন করেছে জানিয়েন গ্রামীণফোনের প্রধান অর্থ কর্মকর্তা (সিএফও) ইয়েন্স বেকার।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের জনগণের জন্য যথাযথ মোবাইল সেবা নিশ্চিত করতে আমরা মানসম্মত গ্রাহক বৃদ্ধির পাশাপাশি শক্তিশালী নেটওয়ার্ক এবং পরিচালন ব্যবস্থা তৈরি করতে বিনিয়োগ অব্যাহত রাখবো।

তৃতীয় প্রান্তিকে গ্রামীণফোন নেটওয়ার্ক কভারেজ এর জন্য ২১০কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে। এনওসি প্রদান বন্ধের কারণে পরিকল্পনার তুলনায় এই বিনিয়োগের পরিমান কমেছে। নেটওয়ার্ক আধুনিকায়নের জন্য প্রতিষ্ঠানটি ১ হাজার ৮১২টি নতুন ফোরজি সাইট চালু করেছে, যার ফলে মোট সাইটের সংখ্যা এখন ১৬ হাজার ৩৮৯টি। কর, ভ্যাট, ফিস, ফোরজি লাইসেন্স এবং তরঙ্গ বরাদ্দের ফিস বাবদ গ্রামীণফোন বছরের প্রথম ৯ মাসে সর্বমোট ৬ হাজার ১৪০ কোটি টাকা পরিশোধ করেছে, যা প্রতিষ্ঠানটির মোট আয়ের ৫৭%।

জেডএস/এইচকে

 

শেয়ারবাজার: আরও পড়ুন

আরও