৩০২ শতাংশ বেড়ে লেনদেন চলছে কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজের

ঢাকা, রবিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

৩০২ শতাংশ বেড়ে লেনদেন চলছে কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজের

পরিবর্তন প্রতিবেদক ১২:৫৮ অপরাহ্ণ, আগস্ট ০৫, ২০১৯

৩০২ শতাংশ বেড়ে লেনদেন চলছে কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজের

প্রসপেক্টাসের তথ্যে গড় মিল থাকায় নানা নাটকীয়তা শেষে আজ (সোমবার) পুঁজিবাজারে লেনদেন শুরু করেছে কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড।  এসময় ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) কোম্পানিটির প্রারম্ভিক দর ৩০ টাকা হলেও সকাল ১১টায় ৩০২ শতাংশ বেড়ে ৪০.২০ টাকায় লেনদেন হতে দেখা গেছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়, ‘এন’ ক্যাটাগরিভুক্ত কপারটেক ইন্ডাষ্ট্রিজ লিমিটেডের ডিএসইতে ট্রেডিং কোড : “COPPERTECH”। ডিএসইতে কোম্পানি কোড হচ্ছে- ১৩২৪৭, সিএসইতে কোম্পানি কোড- ১৬০৪০।

সোমবার লেনদেন শুরুর প্রথম ৩০ মিনিটে কোম্পানিটির ৪৫ লাখ ২৭ হাজার ৭১৬টি শেয়ার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে লেনদেন হয়েছে। এসময় কোম্পানিটির শেয়ার সর্বনিম্ন ৩০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ৪৩.৪০ টাকায় লেনদেন হতে দেখা গেছে।

এদিকে, ২৯২ শতাংশ দর বেড়ে কোম্পানিটিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) লেনদেন হতে দেখা গেছে। সকাল ১১টায় কোম্পানিটির শেয়ার সর্বশেষ ৩৯.২০ টাকায় লেনদেন হতে দেখা গেছে। প্রথম ৩০ মিনিটে কোম্পানিটির ১০ লাখ ৬৫ হাজার ৬৪৯টি শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এসময় কোম্পানিটির শেয়ার সর্বোচ্চ ৪১ টাকা থেকে সর্বনিম্ন ৩০ টাকায় লেনদেন হতে দেখা গেছে।

কোম্পানি সূত্রে জানা যায়, লেনদেন শুরুর আগে ৩০ জুন ২০১৯ সমাপ্ত  অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে কোম্পানিটি।  প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, তৃতীয় প্রান্তিকে কপারটেক ইন্ডাষ্ট্রিজের কর পরিশোধের পর মুনাফা হয়েছে ১ কোটি ১৭ লাখ ৪০ হাজার টাকা এবং শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ০.২৯ টাকা। গত অর্থবছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল যথাক্রমে ৮১ লাখ ১০ হাজার টাকা এবং ০.৪১ টাকা। এছাড়া আইপিও পরবর্তী ইপিএস দাঁড়িয়েছে ০.২০ টাকা।

এদিকে নয় মাসে (জুলাই’১৮-মার্চ’১৯) কোম্পানির ইপিএস দাঁড়িয়েছে ০.৮৭ টাকা। গত অর্থবছরের একই সময়ে ইপিএস ছিল ১.৬২ টাকা। নয় মাসের আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী আইপিও পরবর্তী ইপিএস দাঁড়িয়েছে ০.৫৮ টাকা। এছাড়া শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) ১১.৯১ টাকা। আইপিও কার্যক্রম শেষে কপারটেকের শেয়ার সংখ্যার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৬ কোটি।

এদিকে, গত ৯ জুন আইপিও’র বরাদ্দ পাওয়া কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের শেয়ার শেয়ারহোল্ডারদের বেনিফিশিয়ারি ওনার্স (বিও) হিসাবে জমা হয়েছে। গত ৩০ এপ্রিল লটারির মাধ্যমে কোম্পানিটির আইপিওতে আবেদনকারীদের মধ্যে শেয়ার বরাদ্দ দেয়া হয়।

এর আগে ৩১ মার্চ থেকে ৯ এপ্রিল পর্যন্ত কোম্পানিটির আইপিওতে আবেদন গ্রহণ করা হয়। গত ২৬ ডিসেম্বর বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৬৭০তম সভায় কোম্পানিটির আইপিও অনুমোদন দেয়া হয়।

কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজ পুঁজিবাজার থেকে ২ কোটি শেয়ার ছেড়ে ২০ কোটি টাকা উত্তোলন করে। এ জন্য প্রতিটি শেয়ারের মূল্য নেয়া হয়েছে ১০ টাকা।

কোম্পানিটি প্লান্ট ও যন্ত্রপাতি ক্রয় ও স্থাপন, ভবন ও সিভিল ওয়ার্ক খাত, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ এবং আইপিও খরচ খাতে ব্যয়ের জন্য শেয়ারবাজার থেকে এ পরিমাণ অর্থ উত্তোলন করে।

৩০ জুন ২০১৮ সমাপ্ত বছরের সর্বশেষ নিরীক্ষিত আর্থিক বিবরণী অনুযায়ী পুন:মূল্যায়ন ছাড়া নীট সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস রিভ্যালুয়েশন ছাড়া) দাঁড়িয়েছে ১২.০৬ টাকা (কোম্পানিটি কোনো সম্পদ পুন:মূল্যায়ন করেনি) এবং শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ২.৬০ টাকা ও ডায়লুটেড শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ১.০৩ টাকা।

আইপিওতে কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে এমটিবি ক্যাপিটাল লিমিটেড।

জেডএস/

 

শেয়ারবাজার: আরও পড়ুন

আরও