বিনিয়োগসীমা থেকে বাদ যাচ্ছে অ-তালিকাভুক্ত কোম্পানি

ঢাকা, রবিবার, ২৬ মে ২০১৯ | ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

বিনিয়োগসীমা থেকে বাদ যাচ্ছে অ-তালিকাভুক্ত কোম্পানি

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৯:০৪ অপরাহ্ণ, মে ০৯, ২০১৯

বিনিয়োগসীমা থেকে বাদ যাচ্ছে অ-তালিকাভুক্ত কোম্পানি

পুঁজিবাজারের চলমান তারল্য সংকট কাটিয়ে তুলতে ব্যাংকের বিনিয়োগসীমাসহ অন্যান্য সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবীর। যা আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে সমাধান করা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ব্যাংকে অনুষ্ঠিত এক সভায় গভর্নর এ আশ্বাস দেন।

সভায় বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান ড. এম খায়রুল হোসেন ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলামসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে বিএসইসি চেয়ারম্যান পুঁজিবাজারের চলমান তারল্য সংকটের বিভিন্ন কারণ তুলে ধরেন। তিনি ব্যাংকের বিনিয়োগসীমা হিসাব থেকে অ-তালিকাভুক্ত কোম্পানির বিনিয়োগকে বাদ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন।

এরই ধারাবাহিকতায় গভর্নর বিষয়টি আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন।

বৈঠক সূত্রে জানা যায়, পুঁজিবাজারে স্থিতিশীলতা ফেরানোর বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনার প্রেক্ষিতে সব স্টেকহোল্ডার নড়েচড়ে বসেছে। এর প্রেক্ষিতেই বৃহস্পতিবার অর্থ মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ ব্যাংক ও বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের মধ্যে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এ বৈঠক পুঁজিবাজারের জন্য ফলপ্রসূ নানা সিদ্ধান্ত হয়েছে বলেও জানান সংশ্লিষ্টরা।

সংশ্লিষ্টদের মতে, পুঁজিবাজারকে গতিশীল করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের ইতিবাচক ভূমিকা খুবই জরুরি। পুঁজিবাজারের বিকাশ এবং দীর্ঘমেয়াদী অর্থায়নে ব্যাংক-নির্ভরতা কমলে তা ব্যাংকিং খাতের জন্যেও মঙ্গলজনক হবে।

সভায় স্টেকহোল্ডারদের পক্ষ থেকে কিছু দাবি উত্থাপন করা হয়। এগুলোর মধ্যে রয়েছে- পুঁজিবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগ গণনার পদ্ধতি পরিবর্তন করে শেয়ারের বাজারমূল্যের পরিবর্তে ক্রয় মূল্যের ভিত্তিতে হিসাবায়ন করা; বন্ড, ডিবেঞ্চার ও শেয়ারে কৌশলগত বিনিয়োগকে এক্সপোজারের বাইরে রাখা; ব্যাংক কোম্পানি আইন, ১৯৯১(সংশোধিত ২০১৩) বাধ্যবাধকতার বাইরেও নতুন করে ২০১৪ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি যে প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগসীমা হিসাবায়নের ক্ষেত্রে সমন্বিত ভিত্তি গণনা করার বিষয়টি আরোপিত হয়েছে, সেটি বাতিল করা।

জেডএস/এসবি