তিন কোম্পানিতে পুঁজিবাজারের বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ

ঢাকা, রবিবার, ২৬ মে ২০১৯ | ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

তিন কোম্পানিতে পুঁজিবাজারের বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৪:০৭ অপরাহ্ণ, মে ০৯, ২০১৯

তিন কোম্পানিতে পুঁজিবাজারের বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ

টানা তিন কার্যদিবসে ধারাবাহিক দর পতন শেষে বৃহস্পতিবার ঘুরে দাঁড়িয়েছে পুঁজিবাজার। এসময় বাজারের লেনদেন হওয়া ৩টি কোম্পানিতে বিনিয়োগকারীদের ব্যাপক আগ্রহ দেখা গেছে। দিনশেষে কোম্পানিগুলোর শেয়ার ৯ শতাংশের বেশি বেড়েছে। পাশাপাশি বিক্রেতা সংকটে হল্টেড হয়েছে ২টি কোম্পানি। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

কোম্পানিগুলো হলো-ওয়াইম্যাক্স ইলেকট্রোড, ন্যাশনাল ফিড মিলস ও ফু-ওয়াং সিরামিক লিমিটেড।

ওয়াইম্যাক্স ইলেকট্রোড

বৃহস্পতিবার প্রকৌশল খাতের তালিকাভুক্ত কোম্পানিটির শেয়ার দর বেড়েছে ৯.৮৬৮ শতাংশ। এসময় কোম্পানিটির শেয়ারে ক্রেতা থাকলেও বিক্রেতা ছিল না। তাই বিক্রেতা সংকটে হল্টেড হয়েছিল কোম্পানিটি শেয়ার।

এদিন, কোম্পানিটির শেয়ার ৩০.৪ টাকা থেকে বেড়ে ৩৩.৪ টাকায় সর্বশেষ লেনদেন হয়েছে। অর্থাৎ এসময় কোম্পানিটির শেয়ার দর বেড়েছে ৩ টাকা। দিনশেষে কোম্পানিটির ১০ লাখ ৯৯ হাজার ৮৮৯টি শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

তৃতীয় প্রান্তিক (জানুয়ারি-মার্চ’১৯) শেষে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৪১ টাকা। আগের বছরের একই সময় কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছিল ০.৪০ টাকা।

এদিকে, তৃতীয় প্রান্তিকের নয় মাস (জুলাই’১৮-মার্চ’১৯) শেষে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.২৮ টাকা। যা আগের বছর একই সময় ছিল ১.২৪ টাকা। এসময় কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নগদ কার্যকরী অর্থ প্রবাহ (এনওসিএফপিএস) হয়েছে ০.৪৭ টাকা ও শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৪.৭৫ টাকা।

ন্যাশনাল ফিড মিলস

বৃহস্পতিবার দিনশেষে বিক্রেতা সংকটে হল্টেড হয়েছিল বিবিধ খাতের ন্যাশনাল ফিড মিলস লিমিটেডও। এদিন কোম্পানিটির শেয়ার দর বেড়েছে ৯.৭৩৫ শতাংশ। এসময় কোম্পানিটির ১১.৩ টাকা থেকে বেড়ে সর্বশেষ ১২.৪ টাকায় লেনদেন হতে দেখা গেছে। দিনশেষে কোম্পানিটির ১৭ লাখ ৯৮ হাজার ৮০১টি শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

এদিকে, সদ্য সমাপ্ত তৃতীয় প্রান্তিকে ন্যাশনাল মিড মিলসের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) বেড়েছে ১৮৮.৮৯ শতাংশ। তৃতীয় প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ’১৯) শেষে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.২৬ টাকা। আগের বছর একই সময় কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছিল ০.০৯ টাকা।

তৃতীয় প্রান্তিকের নয় মাস (জুলাই’১৮-মার্চ’১৯) শেষে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.২৩ টাকা। যা আগের বছর একই সময় ছিল ০.৪৯ টাকা। এসময় কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নগদ কার্যকরী অর্থ প্রবাহ (এনওসিএফপিএস) হয়েছে ০.১৫ টাকা ও শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ১২.৭৯ টাকা।

ফু-ওয়াং সিরামিক

৯.২৪৪ শতাংশ দর বেড়ে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহের তালিকায় তৃতীয় অবস্থানে ছিল ফু-ওয়াং সিরামিক। বৃহস্পতিবার কোম্পানিটির ১৬ লাখ ৬৮ হাজার ৩৯৪টি শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এসময় কোম্পানিটির সর্বশেষ শেয়ার দর ছিল ১৩ টাকা।

তৃতীয় প্রান্তিক (জানুয়ারি-মার্চ’১৯) শেষে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.১৬ টাকা। আগের বছরের একই সময় কোম্পানিটির ইপিএস ছিল ০.১৫ টাকা। এদিকে, বিগত ৯ মাসে (জুলাই’১৮-মার্চ’১৯) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৪৪ টাকা। যা আগের বছরের একই সময় ছিল ০.৪০ টাকা।

জেডএস/এএসটি