শিল্পকলায় ‘সার্কাস সার্কাস’

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৪ আশ্বিন ১৪২৫

শিল্পকলায় ‘সার্কাস সার্কাস’

পরিবর্তন প্রতিবেদক ১২:০৫ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০১৮

শিল্পকলায় ‘সার্কাস সার্কাস’

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালায় সোমবার সন্ধ্যা ৭টায় প্রদর্শিত হবে প্রাচ্যনাটের আলোচিত প্রযোজনা ‘সার্কাস সার্কাস’। নাটকটি রচনা ও নির্দেশনা দিয়েছেন আজাদ আবুল কালাম।

এতে দেখা যাবে— দ্য গ্রেট বেঙ্গল সার্কাস নামে একটি সার্কাস দল এক সময় প্রচুর খ্যাতি অর্জন করে। দলটি এখন পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছে প্রতিষ্ঠাতার ভাই। তিনিই সার্কাস দলটিকে মূক্তিযুদ্ধের সময়কার ধ্বংসাবস্থা থেকে পুনরুজ্জীবিত করে তোলেন।

ঘটনাক্রমে, সার্কাস দলটি একটি গ্রামে আসে শো করতে। দলটিতে সমস্যার অন্ত নেই। অদক্ষ খেলোয়াড়, সদস্যদের মধ্যে হিংসা-বিদ্বেষ ইত্যাদি সমস্যায় জর্জরিত। সমস্যা আরো ঘনীভূত হয় যখন মৌলবাদের কালো থাবা এসে পড়ে।

স্থানীয় ধর্মীয় প্রভাবশালী নেতারা সার্কাস বন্ধ করার জন্য হুমকি দেয়। শুধু দলের বাইরে থেকে নয়, ভেতরেও কলহের সূত্রপাত হয়। এমনি এক সময়ে মৌলবাদীরা দ্য গ্রেট বেঙ্গল সার্কাসে আগুন দেয়। লাশ পড়ে তিন খেলোয়াড়ের, ভস্মীভূত হয় সার্কাসের সব পশু।

‘সার্কাস সার্কাস’ এর মঞ্চ, আলো ও মুখোশ পরিকল্পনা করেছেন মো. সাইফুল ইসলাম, সহকারী পরিচালনা ও পোশাক তৌফিকুল ইসলাম ইমন এবং ধ্বনিতে আছেন রাহুল আনন্দ।

প্রযোজনা হিসেবে চতুর্থ হলেও ‘সার্কাস সার্কাস’ প্রাচ্যনাটের প্রথম মূলধারার নাট্য প্রযোজনা। ইন্টারন্যাশনাল থিয়েটার ইন্সটিটিউটের (আইটিআই) ১৯৯৮ এর বাৎসরিক প্রতিবেদনে ‘সার্কাস সার্কাস’কে নতুন একটি দলের পরিবেশনা হিসেবে সবচেয়ে বেশি সম্ভাবনাময় প্রযোজনা হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়।

ডব্লিউএস