নারী ফুটবলের সোনা জার্মানির

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯ | ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

নারী ফুটবলের সোনা জার্মানির

পরিবর্তন ডেস্ক ৮:৩৭ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২০, ২০১৬

নারী ফুটবলের সোনা জার্মানির

রিও অলিম্পিকের পুরুষ ফুটবলের ফাইনালে স্বাগতিক ব্রাজিলের বিপক্ষে মাঠে নামার আগেই আত্মবিশ্বাসের জ্বালানি পেল জার্মানি। শুক্রবার রাতে সুইডেনকে হারিয়ে নারীদের ইভেন্টে সোনা জয় করেছে জার্মানি। সুইডিশদের বিপক্ষে জার্মানদের জয় ২-১ ব্যবধানের।

সোনা জয়ের মধ্য দিয়ে কোচ সিলভিয়া নেইডকে সেরা বিদায় জানাল জার্মানি। জার্মানি নারী দলের হয়ে ১১ বছরের বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ার শেষে কোচ হিসেবেও দারুণ সফল ছিলেন সিলভিয়া। তবে অলিম্পিকের সোনা জয় সব কিছুকেই ছাপিয়ে গেল।

ব্রাজিলের ঐতিহাসিক মারাকানা স্টেডিয়ামে প্রথমার্ধে কোনো দলই গোল করতে পারেনি। দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম ১৭ মিনিটে ২-০ গোলে এগিয়ে গিয়ে শিরোপায় এক হাত দিয়ে রাখে জার্মানি। বিরতির দুই মিনিট পর বক্সের ভেতর থেকে কোনোকুনি শটে গোল করে জার্মানিকে এগিয়ে নেন জেনিফার মারোজান।

এরপর ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করে যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রাজিলের মতো দলকে হারিয়ে ফাইনালে জায়গা করে নেয়া সুইডেন। তবে ৬২তম মিনিটে আত্মঘাতী গোল হজম করে ম্যাচ থেকে অনেকটাই ছিটকে যায় সুইডিশরা। মারোজানের দুর্দান্ত ফ্রি-কিক পোস্টে লেগে ফিরে আসলে বল সুইডেনের লিন্ডা সেমব্রান্টের গায়ে লেগে জালে আশ্রয় নিলে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় জার্মানি।

কোচ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রকে ২০০৮ ও ২০১২ সালের শিরোপা জেতানো পিয়া সান্ডাগ জন্মভূমি সুইডেনকে অলিম্পিকের শিরোপা জিতিয়ে হ্যাটট্রিক করতে চেয়েছেন। কোসোভারের নিচু ক্রস থেকে বল পেয়ে দারুণ এক গোল করে স্তিনা ব্লাকস্তেনাস ব্যবধান কমালেও পরে আর সমতায় ফিরতে পারেনি সুইডেশ। ফলে কোচ হিসেবে হ্যাটট্রিক শিরোপার স্বপ্ন ভেঙে যায় সান্ডাগের।

একই দিন ব্রোঞ্জের লড়াইয়ে কানাডার কাছে ২-১ গোলে হেরে যায় স্বাগতিক ব্রাজিল। এর আগে সুইডেনের বিপক্ষে সেমিতে টাইব্রেকারে হেরে ঘরের মাঠে সোনা জয়ের স্বপ্ন ভেস্তে গিয়েছিল মার্তাদের।

এই নিয়ে ষষ্ঠবারের মতো অলিম্পিকে নারী ফুটবল অনুষ্ঠিত হয়। সব মিলিয়ে চতুর্থ পদক জেতা জার্মানির এটা প্রথম সোনা। এর আগে ২০০০, ২০০৪ ও ২০০৮ সালে ব্রোঞ্জ জিতেছিল জার্মানির মেয়েরা।

এমএআই