শচীনের সেরা ১০ স্মরণীয় মুহূর্ত

ঢাকা, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯ | ২৯ কার্তিক ১৪২৬

শচীনের সেরা ১০ স্মরণীয় মুহূর্ত

পরিবর্তন ডেস্ক ১২:১১ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৪, ২০১৯

শচীনের সেরা ১০ স্মরণীয় মুহূর্ত

শচীন টেন্ডুলকার

বিশ্ব ক্রিকেটের এক উজ্জ্বল নাম শচীন টেন্ডুলকার। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে একমাত্র শত সেঞ্চুরির মালিক তিনি। সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডও তার দখলে। সব সংস্করণ মিলিয়ে ৬৬৪ ম্যাচে ৩৪৩৫৭ রান করেছেন শচীন। তার ধারে কাছে নেই আর কোন ব্যাটসম্যানই। ২০১৩ সালের ১৬ নভেম্বর ক্যারিয়ারের ২০০তম টেস্ট খেলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিদায় নেন এই ব্যাটিং জিনিয়াস।

আজ তার জন্মদিন। ২৪ এপ্রিল পা দিয়েছেন ৪৬ বছরে। বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারের বহু স্মরণীয় মুহূর্তই আছে তার। তার মধ্যে সেরা ১০টি স্মরণীয় মুহূর্ত জেনে নেওয়া যাক—

১. ১৬ মার্চ, ২০১২ : প্রথম এবং এখন পর্যন্ত একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে শততম সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন শচীন। বাংলাদেশের বিপক্ষের ওই ম্যাচে ১১৪ রান করেছিলে তিনি। ম্যাচটি অবশ্য ৫ উইকেটে জেতে টাইগাররাই।

২. ক্রিকেটের প্রায় সমস্ত রেকর্ডের শীর্ষে উঠলেও বিশ্বকাপ অধরাই ছিল শচীনের। ২০১১ সালে ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বকাপ জেতে ভারত। আর ভারতের ‘ক্রিকেট ঈশ্বর’ শচীন পান বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ। দিনটি ছিল ২ এপ্রিল।

৩. ওয়ানডে ক্রিকেটের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরির মালিক শচীন। ২০১০ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে অপরাজিত ২০০* রানের একটি অসামান্য ইনিংস খেলেন লিটল মাস্টার।

৪. ‘হেলিকপ্টার’ শটের জন্য বিখ্যাত মহেন্দ্র সিং ধোনি। কিন্তু শচীনের ব্যাটেও দেখা গেছে এই শট। ২০০২ সালের ৪ জুলাই প্রথম এই বিশেষ শট খেলেন শচীন।

৫. ১৯৯৯ সালে ইংল্যান্ডে বসেছিল বিশ্বকাপের আসর। কিন্তু বিশ্বকাপের মাঝপথেই বাবা রমেশ টেন্ডুলকারের মৃত্যুর কারণে ভারতে ফিরতে হয় শচীনকে। তবে বাবার শেষকৃত্য শেষে আবার বিশ্বকাপে যোগ দেন এই ব্যাটিং জিনিয়াস। আর মাঠে নেমেই ২৩ মে কেনিয়ার বিপক্ষে ১৪০ রানের এক অসামান্য ইনিংস খেলেন তিনি।

৬. ২২ এপ্রিল, ১৯৯৮ : শারজায় শচীন ঝড় দেখেছিল অস্ট্রেলিয়া। করেছিলেন ব্যাক-টু-ব্যাক সেঞ্চুরি।

৭. ২৭ মার্চ, ১৯৯৪ : প্রথমবারের মতো ওপেনিং পজিশনে নামেন শচীন। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষের ওই ম্যাচে ৪৯ বলে ৮২ রানের এক ঝড়ো ইনিংস খেলেছিলেন তিনি।

৮. ২৪ নভেম্বর, ১৯৯৩ : হিরো কাপের সেমি ফাইনালের শেষ ওভারে মাত্র ৩ রান দিয়ে ভারতকে ফাইনালে তোলেন শচীন। শেষ ওভারে জয়ের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকার প্রয়োজন ছিল ৬ রান। বোলিংয়ে আসেন শচীন। তার ওভার থেকে মাত্র ৩ রান তুলতে পারে প্রোটিয়ারা। ফলে ২ রানের জয় নিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করে ভারত।

৯. ৯ আগস্ট, ১৯৯০ : মাত্র ১৭ বছর ১১২ দিন বয়সে শচীন তার আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরিটি করেন। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যানচেস্টার টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ১১৯* রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি। টেস্টটি ড্র হয়েছিল।

১০. পাকিস্তানের বিপক্ষে করাচি টেস্টের মধ্যে দিয়ে মাত্র ১৬ বছর বয়সে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় শচীনের। দিনটি ছিল ১৯৮৯ সালের ১৫ নভেম্বর।

পিএ

 

ফিচার: আরও পড়ুন

আরও