৭ বছর পর চ্যাম্পিয়ন রানী হামিদ

ঢাকা, শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮ | ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

৭ বছর পর চ্যাম্পিয়ন রানী হামিদ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ১০:১১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৮, ২০১৮

৭ বছর পর চ্যাম্পিয়ন রানী হামিদ

বাংলাদেশের মহিলা দাবার রানী তিনি। কিন্তু রানী হামিদ গত ৭ বছর ধরে জাতীয় মহিলা দাবা চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা মুকুটটা নিজের মাথায় তুলতেই পারছিলেন না। অবশেষে দীর্ঘ ৭ বছরের অপেক্ষা ফুরোল তার। আজ শনিবার শেষ রাউন্ডে মহিলা ফিদে মাস্টার জাকিয়া সুলতানাকে হারিয়ে ৩৮তম জাতীয় মহিলা দাবা চ্যাম্পিয়নশিপে চ্যাম্পিয়ন হলেন রানী হামিদ। জাতীয় মহিলা দাবায় এটা তার ১৯তম শিরোপা।

সর্বশেষ এই শিরোপাটা তিনি জিতেছিলেন ২০১১ সালে। এর পর থেকে অপেক্ষার প্রহরটা শুধু দীর্ঘই হচ্ছিল। এবারের আসরে ৯ খেলায় ৮ পয়েন্ট পেয়েছেন তিনি। মানে ৯ ম্যাচের ৮টিতেই জিতেছেন। হেরেছেন শুধু প্রতিভা তালুকদারের কাছে। ৭ পয়েন্ট পেয়ে রানার্সআপ হয়েছেন মহিলা ফিদে মাস্টার নজরানা খান ইভা। শনিবার শেষ রাউন্ডের ম্যাচে যিনি হেরে গেছেন জান্নাতুল ফেরদৌসের কাছে। জিতলে রানী হামিদের সঙ্গে তিনিও যৌথভাবে চ্যাম্পিয়ন হতে পারতেন।

শিরোপার পথে এই ইভাই ছিলেন রানী হামিদের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী। যাকে তিনি হারিয়েছেন ষষ্ঠ রাউন্ডে। বলা যায়, ওই জয়টিই দাবার রানীর মাথায় আবার ‘   রানীর মুকুট’ পরিয়ে দিল। টুর্নামেন্টে সমান সাড়ে ৬ পয়েন্ট করে অর্জন করেছেন মোট ৩ জনে। তবে টাইব্রেকিং পদ্ধতিতে তাদের মধ্য থেকে তৃতীয় হয়েছেন নরসিংদীর নোশিন আনজুম, চতুর্থ জান্নাতুল ফেরদৌস এবং পঞ্চম হয়েছেন ঢাকা বিভাগের কাজী জারিন তাসনিম।

সমান ৬ পয়েন্ট করেও পেয়েছেন ৩ জনে। তবে ষষ্ঠ হয়েছেন জাকিয়া সুলতানা, সপ্তম ঠাকুর জানিয়া হক এবং অষ্টম ওয়াফিদা আহমেদ। সমান সাড়ে ৫ পয়েন্ট করে পেয়েছেন ৪ জন। পজিশনের ভিত্তিতে তারা হলেন উন্মে তাসলিাম প্রতিভা তালুকদার (নবম), মহিলা ফিদে মাস্টার আফরোজা খানম বাবলী (দশম), আহমেদ ওয়ালিজা (একাদশতম) ও নারায়নগঞ্জের মোসাম্মৎ ঝর্না বেগম (দ্বাদশ)।

হঠাৎ অসুস্থ হয়ে আগের দিন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ছেলে বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার কায়সার হামিদ। পরের দিনই মা রানী হামিদ দীর্ঘদিন পর জিতলেন জাতীয় দাবার মুকুট। আনন্দ-বেদনার যোগসূত্র কি নিবিড়!

কেআর