হাসপাতালে ঢুকে নবজাতককে খুবলে খেল পথকুকুর

ঢাকা, শনিবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২০ | ৪ মাঘ ১৪২৬

হাসপাতালে ঢুকে নবজাতককে খুবলে খেল পথকুকুর

পরিবর্তন ডেস্ক ৪:৪৪ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৪, ২০২০

হাসপাতালে ঢুকে নবজাতককে খুবলে খেল পথকুকুর

হাসপাতালে মৃত শিশু।

ভারতের উত্তরপ্রদেশে একটি বেসরকারি হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটারে ঢুকে সবার সামনেই একটি সদ্যোজাত শিশুকে নিমিষে খুবলে খেয়ে শেষ করে দিল একটি পথকুকুর। এর মাত্র কয়েক মিনিট আগেই পৃথিবীর আলো দেখেছিল নবজাতকটি।

সোমবার সকাল সাড়ে আটটা নাগাদ ফররুখাবাদ জেলার আবাস বিকা কলোনির এক হাসপাতালে ঘটে মর্মান্তিক এই ঘটনা।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম এই সময়ের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী কাঞ্চনের লেবার পেইন ওঠায় তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যান বেসরকারি ফিনান্স ফার্মে কর্মরত স্বামী রবি কুমার।

তিনি জানিয়েছেন, ‘হাসপাতালে নিয়ে গেলে প্রথমে নার্সিং স্টাফরা জানান, নরমাল ডেলিভারি হবে। তবে কয়েক মুহূর্ত পরেই ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করে তারা জানান, সিজার করতে হবে।

রবি কুমার বলেন, ‘তাই কাঞ্চনকে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাওয়া হয়। এক ঘণ্টা পর তারা জানান অস্ত্রোপচার সফল হয়েছে। তারা কাঞ্চনকে ওয়ার্ডে দিয়ে দিলেও বাচ্চাটি ওটিতেই ছিল। তারা আমাকে বাইরে অপেক্ষা করতে বলেছিলেন।’

প্রথমবার বাবা হওয়া রবি কাঁদতে কাঁদতে আরও জানান, ‘কয়েক মিনিট পর হাসপাতালের এক কর্মী চিত্‍‌কার করে বলতে থাকে, ওটিতে কুকুর ঢুকেছে। বিপদ আঁচ করে আমি ওটির দিকে ছুটে গিয়ে দেখি আমার সন্তান রক্তাক্ত অবস্থায় মেঝেতে পড়ে রয়েছে।

‘বাচ্চাটার বুকে ও বাঁ চোখে কুকুরের কামড়ের দাগ ছিল। ও স্থির হয়ে পড়ে ছিল। নড়াচড়া করছিল না। কুকুরটি আবার অপারেশন থিয়েটারে ঢুকে পড়ার চেষ্টা করলে আমি চিত্‍‌কার করে উঠি।’

রবি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ আনায় তারা টাকা দিয়ে তাকে চুপ করিয়ে দিতে চেয়েছিল বলে অভিযোগ। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দাবি করে, বাচ্চাটি মৃত অবস্থাতেই ছিল। আর কুকুরটি ভুলবশত ওটিতে ঢুকে পড়েছিল।

জেলাশাসক মহেন্দ্র সিং জানিয়েছেন, ‘আমরা তদন্ত করেছি। হাসপাতালের গাফিলতির জন্যই শিশুটির মৃত্যু হয়েছে। এ ব্যাপারে তদন্ত শুরু করেছে ডাক্তারদের কমিটি।’

এই ঘটনায় হাসপাতালের মালিক বিজয় প্যাটেল ও তার কর্মীদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে পুলিশ। আপাতত হাসপাতালটি বন্ধ রাখা হয়েছে। সূত্র: এই সময়।

এমএফ/

 

দক্ষিণ এশিয়া: আরও পড়ুন

আরও