ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’, আতঙ্কে গুজরাট-মহারাষ্ট্র

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’, আতঙ্কে গুজরাট-মহারাষ্ট্র

পরিবর্তন ডেস্ক ৫:০৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০৬, ২০১৯

ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’, আতঙ্কে গুজরাট-মহারাষ্ট্র

ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে পারাদীপের উপকূলে মেঘলা আকাশ ও ঝিরঝিরে বৃষ্টি। ছবি: এএফপি

ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ ও ‘মহা’ আতঙ্কে ভারতের গুজরাট ও মহারাষ্ট্র। ভারতের পশ্চিমবঙ্গ উপকূলে সাগরদ্বীপের কাছে আছড়ে পড়তে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’।

অন্য দিকে পূ্র্ব-মধ্য আরব সাগরে অতি প্রবল ঝড়ের রূপ নিয়েছে ঘূর্ণিঝড় ‘মহা’। ধারণা করা হচ্ছে সেটি আরও শক্তিশালী হয়ে বৃহস্পতিবার গুজরাটে আছড়ে পড়বে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

বুধবার সকালে ভারতের আবহাওয়া বার্তায় বলা হয়েছে, পশ্চিমবঙ্গের উপকূলে সাগরদ্বীপের কাছে এবং বাংলাদেশের খেপুপাড়ায় উপকূলে আছড়ে পড়তে পারে ঘূর্ণিঝড়।

অন্য দিকে পূ্র্ব-মধ্য আরব সাগরে ‘সিভিয়ার সাইক্লোনিক স্টর্ম’ বা অতি প্রবল ঝড়ের রূপ নিয়েছে ঘূর্ণিঝড় ‘মহা’। আরও শক্তি বাড়িয়ে তা আগামিকাল বৃহস্পতিবার গুজরাটের কচ্ছ উপকূলে দেবভূমি-দ্বারকা জেলায় এবং দিউ এর উপকূলে আছড়ে পড়তে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। এর জন্য সতর্কতা জারি হয়েছে।

বঙ্গোপসাগরে যে গভীর নিম্নচাপটি সক্রিয়, সেটি খুব শীঘ্রই ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে বলে জানাচ্ছেন আবহাওয়াবিদরা। যার নাম আগে থেকেই নির্ধারিত রয়েছে ‘বুলবুল’।

প্রথম দিকে নিম্নচাপের যে গতিপথ ছিল, সেটা বিশ্লেষণ করে আবহাওয়া অফিসের কর্মকর্তারা জানিয়েছিলেন, উড়িষ্যা উপকূলের কেন্দ্রাপড়া এবং জগৎসিংহপুর জেলায় উপকূলে আছড়ে পড়তে পারে প্রবল ঘূর্ণিঝড়।

সেই অনুযায়ী এই দুই জেলা ছাড়া বালেশ্বর, ভদ্রক, গঞ্জাম, পুরী, গজপতি, মলকানগিরি, কোরাপুট, রায়গড়, নবরঙপুর, কালাহান্ডি, কন্ধমাল, বৌধ এবং নৌপাড়া— এই ১৫ জেলায় সতর্কতা জারি করেছিল উড়িষ্যা প্রশাসন। এলাকার বাসিন্দাদের সরানোর প্রস্তুতিও শুরু হয়েছিল।

আগামিকাল ৭ নভেম্বর থেকে মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যাওয়ার উপরেও জারি হয়েছিল নিষেধাজ্ঞা। ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে উড়িষ্যা ও পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন এলাকায় ভারী বৃষ্টি হবে বলেও জানিয়েছিল আবহাওয়া অফিস।

কিন্তু আজ বুধবার সকালে ভারতের উড়িষ্যার ত্রাণ কমিশনার প্রদীপ জেনা বলেন, “আবহাওয়া ভবনের শেষ বুলেটিন অনুযায়ী, উড়িষ্যা উপকূলে ‘বুলবুল’-এর আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা ক্ষীণ। তবে ১৫ জেলার জেলাশাসকদের সতর্ক থাকতে এবং পরিস্থিতির উপর নজর রাখতে বলা হয়েছে।”

একই সঙ্গে তিনি বলেন, সোশ্যাল মিডিয়ায় আতঙ্ক ছড়ানো হচ্ছিল। কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতরের উপর ভরসা রাখা উচিত সাধারণ মানুষের। কারণ সাইক্লোন ‘পিলিন’-এর পর থেকে আবহাওয়া ভবনের বার্তা সবসময় সত্যি হয়ে আসছে।

অন্যদিকে আবহাওয়া ভবন জানিয়েছে, পূর্ব-মধ্য ও দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর এবং উত্তর আন্দামান সাগরের উপর অবস্থিত ঘূর্ণিঝড়টি ঘণ্টায় ৯ কিলোমিটার বেগে পশ্চিম-উত্তর-পশ্চিমের দিকে সরে যাচ্ছে। সকাল সাড়ে ৮টার বার্তায় বলা হয়েছিল, সেটি উড়িষ্যার পারাদ্বীপ বন্দর থেকে ৮১০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছে।

এদিকে ঘূর্ণিঝড় ‘মহা’র আছড়ে পড়ার আশঙ্কায় গুজরাতের কছ উপকূলে জারি হয়েছে সতর্কতা। সকাল সাড়ে ৮টায় আবহাওয়া ভবনের বার্তায় জানানো হয়েছে, আরব সাগরে পোরবন্দরের পশ্চিম-দক্ষিণ-পশ্চিমে ৪০০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে ঘূর্ণিঝড় মহা।

‘মহা’র জেরে ভারী বৃষ্টির আশঙ্কায় মহারাষ্ট্রের উপকূলীয় জেলা পালঘরে ৬ থেকে ৮ নভেম্বর পর্যন্ত সমস্ত স্কুল কলেজ বন্ধ রাখা হয়েছে। সংলগ্ন ঠাণে জেলার মৎসজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। গুজরাট ও মহারাষ্ট্রের উপকূলে সতর্ক রয়েছে নৌবাহিনী।

খাবার, পানি, ওষুধের মতো ত্রাণসামগ্রী মজুত করে দুই রাজ্যের উপকূল এলাকায় সতর্ক রয়েছে ওয়েস্টার্ন ন্যাভাল কমান্ডের চারটি যুদ্ধজাহাজ। এ ছাড়া প্রস্তুত রাখা হয়েছে অতিরিক্ত হেলিকপ্টার ও অন্যান্য উদ্ধার সামগ্রী।

এমএফ/

 

দক্ষিণ এশিয়া: আরও পড়ুন

আরও