ফজলুর রহমান থাকতে ইহুদিচক্রান্তের কী প্রয়োজন : ইমরান

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

ফজলুর রহমান থাকতে ইহুদিচক্রান্তের কী প্রয়োজন : ইমরান

পরিবর্তন ডেস্ক ৭:২০ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০৪, ২০১৯

ফজলুর রহমান থাকতে ইহুদিচক্রান্তের কী প্রয়োজন : ইমরান

পাকিস্তানে মাওলানা ফজলুর রহমান থাকতে ইয়াহুদিদের চক্রান্তের আর কী প্রয়োজন থাকতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।  পাকিস্তানের উত্তরাঞ্চলে গিলগিত-বালতিস্তানের এক জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এই মন্তব্য করেন। খবর ডন নিউজ উর্দুর।

ইমরান খান বলেন, আজ আমরা এখানে গিলগিত-বালতিস্তানের স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করছি যখন ইসলামাবাদে আরেকটি ‘স্বাধীনতা পদযাত্রা’র মিছিল চলছে। এখন দেখা হবে যে তারা ইসলামাবাদে আসলে কার কাছ থেকে স্বাধীনতা নিতে এসেছে।   

তিনি বলেন, সেখানে বিশাল সংখ্যক লোক একত্রিত হয়েছে। আমি চাই যে পাকিস্তানের মিডিয়াগুলো সেখানে গিয়ে লোকদেরকে জিজ্ঞাসা করুক তারা কোন জিনিস থেকে স্বাধীনতা নিতে এসেছে? 

ইমরান বলেন, ‘যদি পিপিপির লোকদের জিজ্ঞাসা করা হয়, তারা অন্যকোনো কথা শুরু করে দেবে যেমন মুদ্রাস্ফীতি হয়েছে ইত্যাদি।

যদি মুসলিম লীগ নওয়াজের লোকদের জিজ্ঞাসা করা হয় তাহলে দেখা যাবে তাদের জানাই নেই যে তারা এই পদযাত্রায় কেন অংশ নিয়েছে।

আর যদি জমিয়তের লোকদের জিজ্ঞাসা করা হয়, তারা বলবে ইয়াহুদিরা ইসলামাবাদকে দখল নিচ্ছে। আমি তাদের সবাইকে বলব যে, ফজলুর রহমান থাকতে ইয়াহুদিদের চক্রান্তের আর কী প্রয়োজন রয়েছে?’

ইমরান খান বলেন, ফজলুর রহমানের মার্চ থেকে পাকিস্তানের শত্রুরা খুশি হচ্ছে। শুধু ভারতের মিডিয়াগুলোই দেখুন, তারা ফজলুর রহমানকে দেখিয়ে খুশি হচ্ছে। অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে, যেনো সে ভারতের নাগরিক আর ভারতের জন্য কোন দেশ স্বাধীন করতে এসেছে।

উল্লেখ্য যে, নির্বাচনে জালিয়াতির মাধ্যমে পাকিস্তানের ক্ষমতায় আসার অভিযোগসহ বেশকিছু ব্যর্থতার দায় চাপিয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে অপসারণ করতে কয়েক লাখ কর্মী-সমর্থকসহ রাজধানী ইসলামাবাদে অবস্থান করছেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের প্রধান মাওলানা ফজলুর রহমান।

ইমরান খানের পদত্যাগ এবং পুনরায় নির্বাচন দাবিতে শুক্রবার রাতে বেঁধে দেয়া দুদিনের (৪৮ ঘণ্টা) আলটিমেটাম শেষে রোববার নতুন করে কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন পাকিস্তানের এই আলেম রাজনীতিবিদ।

সোমবার দুপুরে পরবর্তী করণীয় নিয়ে আলোচনায় বসে পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ ও পাকিস্তান পিপলস পার্টিসহ বিরোধী দলগুলো। এ নিয়ে ক্রমেই উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে পাকিস্তানজুড়ে।

রোববার আলোচনা শেষে মাওলানা ফজলুর রহমান জানান, তাদের পরবর্তী কর্মসূচি হবে এইচ-৯ অ্যাভিনিউতে অবস্থান কর্মসূচি। এতেও সরকারের টনক না নড়লে সারা দেশব্যাপী এ কর্মসূচি পালন করা হবে।

পদত্যাগের জন্য ইমরান খানকে বেঁধে দেয়া সময়সীমার পরিপ্রেক্ষিতে এ দিন দলীয় নেতাদের সঙ্গে জরুরি বৈঠক করেন জমিয়তপ্রধান। এ বৈঠক থেকে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তে উপনীত হতে চান তিনি।

বৃহস্পতিবার রাত থেকে কয়েক লাখ কর্মী-সমর্থক নিয়ে পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে অবস্থান করছেন মাওলানা ফজলুর রহমান।

এমএফ/

 

দক্ষিণ এশিয়া: আরও পড়ুন

আরও