দুই বছর পর জরায়ু থেকে বাইকের হ্যান্ডেল বের হল

ঢাকা, সোমবার, ১৭ জুন ২০১৯ | ২ আষাঢ় ১৪২৬

দুই বছর পর জরায়ু থেকে বাইকের হ্যান্ডেল বের হল

পরিবর্তন ডেস্ক ১১:৩৬ অপরাহ্ণ, মে ২৬, ২০১৯

দুই বছর পর জরায়ু থেকে বাইকের হ্যান্ডেল বের হল

বর্বরতা বোধহয় একেই বলে! স্ত্রীকে মারতে মারতে জ্ঞান হারিয়ে যায় স্বামীর। শেষে বাইকের ছ'য় ইঞ্চি দীর্ঘ প্লাস্টিকের হ্যান্ডেলটা সরাসরি ঢুকিয়ে দিয়েছিল যৌনাঙ্গে।

ঘটনাটি ঘটে ভারতের ভোপাল থেকে ২৫১ কিলোমিটার দূরে ধার জেলায়। তারা ১৫ বছরের বিবাহিত আদিবাসী দম্পতি। ছ'টি সন্তানও রয়েছে এই দম্পতির।

ভারতীয় গণমাধ্যম ইটিভির খবরে বলা হয়, অর্থের অভাব ও পারিবারিক লজ্জায় দীর্ঘ ২ বছর ধরে বিষয়টি কাউকে বলতে পারেননি ওই নারী। অবশেষে পুলিশের সহযোগিতায় সরকারি হাসপাতালে তার সফল অস্ত্রোপচার করলেন চিকিৎসকরা। জরায়ু থেকে বের করে আনা হল বাইকের হ্যান্ডেলের টুকরোটি। স্বামীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

খবরে বলা হয়, বছর দু'য়েক আগে একদিন পারিবারিক অশান্তির জেরে মহিলাকে মারধর করে স্বামী। তখন রাগের বশে বাইকের ছ'ইঞ্চি লম্বা প্লাস্টিকের হ্যান্ডেল ঢুকিয়ে দেয় স্ত্রীর জরায়ুতে। এ ঘটনার দু'মাস পর শুরু হয় অসহ্য যন্ত্রণা। বাধ্য হয়ে বেসরকারি হাসপাতালে যান চিকিৎসার জন্য।

চিকিৎসকরা তাৎক্ষণিক অস্ত্রোপচারের নির্দেশ দেন। কিন্তু, তার জন্য লাগবে ১ লাখ টাকা। ফলে গরীব এ নারী অস্ত্রোপচার করাতে পারেননি।

একদিকে পারিবারিক লজ্জা, অন্যদিকে সন্তানদের ভবিষ্যতের কথা ভেবে প্রায় দু'বছর এই অসহ্য যন্ত্রণা সহ্য করেছিলেন ওই আদিবাসী মহিলা। কিন্তু, আর সহ্য করতে পারেননি।

গত রোববার (১২ মে), শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তিনি কোনোরকমে স্থানীয় চন্দননগর থানায় পৌঁছান। পুলিশকে বিষয়টি খুলে বলেন। তৎক্ষণাৎ এম ওয়াই গভর্নমেন্ট হসপিটালে ভর্তি করা হয় তাকে।

হাসপাতালের শল্য বিভাগের প্রধান ডা. আর কে মাথুর বলেন, ‘প্লাস্টিকে টুকরোটি মহিলার জরায়ু, ক্ষুদ্রান্ত্র ও বৃহদন্ত্রের যথেষ্ট ক্ষতি করেছে। চার ঘণ্টার অস্ত্রোপচার শেষে প্লাস্টিকের টুকরোটি বের করা গিয়েছে। তবে বর্তমানে তার অবস্থা স্থিতিশীল।’

এআরই