ঘরবন্দি মমতা, পিসির পাশে শুধুই ভাইপো

ঢাকা, সোমবার, ১৭ জুন ২০১৯ | ২ আষাঢ় ১৪২৬

ঘরবন্দি মমতা, পিসির পাশে শুধুই ভাইপো

পরিবর্তন ডেস্ক ১০:০২ পূর্বাহ্ণ, মে ২৪, ২০১৯

ঘরবন্দি মমতা, পিসির পাশে শুধুই ভাইপো

লোকসভার ফলাফলে রাজ্যে বিজেপি অনেক আসনে এগিয়ে যেতেই কলকাতায় বিজেপি দফতরে শুরু হয় উৎসব৷ অন্যদিকে, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ি কালীঘাটের ৩০বি, হরিশ চ্যাটার্জির স্ট্রিট শুনসান৷ ঘরবন্দি থাকলেন মমতা৷

বৃহস্পতিবার বিকালে কালীঘাটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ির সামনে গিয়ে দেখা গেল নিরাপত্তার ঘেরাটোপে ঘরবন্দি মমতা৷ শুনসান হরিশ চ্যাটার্জির স্ট্রিট৷ নিস্তব্দ এলাকা৷ মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ি থেকে মলিন মুখে বেরিয়ে গেলেন কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম৷ তার পরই ৩/৪টি বাইকে কয়েকজন যুবক তৃণমূলের পতাকা হাতে মমতার বাড়ির দিকে যাওয়ার চেষ্টা করে৷ যদিও পুলিশ তাদেরকে বাধা দেয়৷ এবং ফিরিয়ে দেয়৷

সন্ধ্যায় কালো কাচ ঘেরা গাড়িতে ভাইপো (অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়) পিসির এই দুর্দিনে তার বাড়িতে যান৷ যদিও এদিন কোনো নেতামন্ত্রীকে সেভাবে কালীঘাটের মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে দেখা যায়নি।

কলকাতা২৪ বলছে, লোকসভার ভোট নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতিক্রিয়া জানার জন্য তার বাড়ির অদূরে অপেক্ষা করছিল একাধিক সংবাদমাধ্যম৷ যদি কিছু বলেন তিনি…। কিন্তু কয়েক ঘণ্টা পর মমতার প্রতিনিধি হয়ে একজন এসে জানান, মুখ্যমন্ত্রী আজ কোনো প্রেস মিট করবেন না৷ যা বলার তিনি তার টুইট বার্তায় বলেছেন৷

এর আগে ফলাফল নিয়ে এদিন বিকালে টুইট করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। টুইটে তিনি লেখেন, জয়ীদের শুভেচ্ছা৷ যারা হেরেছেন তারা প্রকৃত পরাজিত নন৷ আমাদের সম্পূর্ণ পর্যালোচনা করতে হবে৷ তার পরই আমরা মানুষের রায় নিয়ে নিজেদের দৃষ্টিভঙ্গি ভাগ করে নেব৷ কিন্তু আগে গণনা সম্পূর্ণ হোক ও প্রদত্ত ভোটের সঙ্গে ভিভিপ্যাটের মিলিয়ে দেখার পক্রিয়া শেষ হোক৷

অন্যদিকে, বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই একের পর এক কেন্দ্রে এগিয়ে যেতে থাকে বিজেপি। আর এই ট্রেন্ড দেখার পরই কলকাতায় বিজেপি দফতরে ভিড় বাড়তে থাকে নেতাকর্মীদের। একে একে দফতরে এসে উপস্থিত হয় বিজেপির রাজ্যসভার সাংসদ রূপা গঙ্গোপাধ্যায়সহ একাধিক শীর্ষ নেতৃত্ব। পার্টি অফিসের বাইরে অকাল হোলির উৎসবে মেতে উঠে বিজেপি কর্মীরা। সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউয়ের ওপরেই গেরুয়া আবিরে মেতে উঠে কর্মীরা। চলে লাড্ডু খাওয়ানো।

উল্লেখ্য, ২০০৯ লোকসভা ভোটে রাজ্যে ১৫ আসন জিতেছিল তৃণমূল৷ শুরু হয়েছিল রাজ্যপাটে রাজনৈতিকভাবে ‘পরিবর্তনের যাত্রা’৷ সময় গড়িয়েছে ১০ বছর৷ মহাকরণের অলিন্দে বদল হয়েছে৷ ক্ষমতায় তৃণমূল৷ এর পর ২০১৩-র পঞ্চায়েত, ২০১৪-র লোকসভা, ২০১৬-র বিধানসভা ভোটে ব্যাপক পরিমাণ ভোট পেয়ে ক্ষমতা দখল করে তৃণমূল।

কিন্তু ২০১৯ এর লোকসভায় যে ধাক্কা খেল তৃণমূল তাতে সামনের দিনগুলোতে কীভাবে পরিস্থিতি সামাল দেবেন মমতা সেটাই দেখার বিষয়।

আরপি