হামলা নিয়ে সেনা গোয়েন্দাকে সতর্ক করেন মুসলিম নেতা

ঢাকা, ১৮ জুলাই, ২০১৯ | 2 0 1

হামলা নিয়ে সেনা গোয়েন্দাকে সতর্ক করেন মুসলিম নেতা

পরিবর্তন ডেস্ক ৪:১৫ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৩, ২০১৯

হামলা নিয়ে সেনা গোয়েন্দাকে সতর্ক করেন মুসলিম নেতা

শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোয় ভয়াবহ হামলায় স্থানীয় উগ্রগোষ্ঠী ‘এনটিজে’র নাম আসায় অবাক নন দেশটির মুসলিম জনগোষ্ঠী।

গির্জা ও হোটেলসহ আটটি স্থানে গত রোববারের ওই হামলায় এখন পর্যন্ত ৩১০ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ৫ শতাধিক মানুষ। গির্জায় হামলার সময় বহু খ্রিস্টান ইস্টার সানডেতে প্রার্থনা করতে জড়ো হয়েছিলেন।

হামলায় এনটিজে’র নাম আসার পর মুসলিম কাউন্সিল অব শ্রীলঙ্কার ভাইস-প্রেসিডেন্ট হিলমি আহমেদ বলেছেন, তিন বছর আগে তিনি স্থানীয় উগ্রগোষ্ঠী এবং তার নেতাদের সম্পর্কে সেনা গোয়েন্দাদের সতর্ক করেছিলেন।

ভয়াবহ এই হামলার পর এখন পর্যন্ত কোনো গোষ্ঠী দায় স্বীকার করেনি। সোমবার বিকেলে শ্রীলঙ্কা সরকারের তরফে বলা হয়, ৭ আত্মঘাতী এই হামলা চালিয়েছে। হামলার সঙ্গে এনটিজে (ন্যাশনাল তৌহিদ জামাত) জড়িত। আন্তর্জাতিক নেটওয়ার্কের সহায়তায় তারা হামলায় সফল হয়েছে।

ব্লুমবার্গকে হিলমি আহমেদ বলেন, ‘ধর্মের নামে অমুসলিম হত্যার বিষয়ে মুসলিমের উৎসাহ দিতো গোষ্ঠীটি। বিষয়টি বুঝতে পেরে আমি স্বশরীরে তিন বছর আগে সেনা গোয়েন্দাকে সব ব্যক্তির নাম এবং তথ্য-প্রমাণ দিয়ে আসি। কিন্তু, দুঃখের বিষয়, তারা (সেনা গোয়েন্দা সংস্থা) কোনো পদক্ষেপই নেয়নি।’

তিনি বলেন, ‘নেতারা ব্যক্তিগতভাবে আলাদা আলাদা উৎস থেকে তহবিল সংগ্রহ করতে গিয়ে এনটিজে কয়েকটি সংগঠনে ভাগ হয়ে যায়। যদিও সংগঠনের সব সদস্যই উগ্রপন্থী নন। তবে চিন্তা-ভাবনায় সংগঠনটি চরমপন্থী।’

হামলার পর শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহে নিজেও, কেন সরকার আগাম সতর্কতা পেয়েও দ্রুত ব্যবস্থা নিতে পারেনি সেই প্রশ্ন তুলেছেন।

এখন হামলায় এনটিজে’র সঙ্গে বিদেশি কোন সন্ত্রাসী নেটওয়ার্ক জড়িত, তা তদন্ত করে দেখছে সরকার।

আইএম

আরও পড়ুন...
‘হামলায় ন্যাশনাল তাওহিদ জামাত জড়িত’
শ্রীলঙ্কায় ৩ মিনিটের নীরবতায় জাতীয় শোক শুরু
আন্তর্জাতিক সহায়তায় সন্ত্রাস নির্মূলের ঘোষণা বিক্রমাসিংহের

 

দক্ষিণ এশিয়া: আরও পড়ুন

আরও