পাকিস্তানে আইডি কার্ড দেখে দেখে ১৪ জনকে হত্যা

ঢাকা, সোমবার, ২০ মে ২০১৯ | ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

পাকিস্তানে আইডি কার্ড দেখে দেখে ১৪ জনকে হত্যা

পরিবর্তন ডেস্ক ১:২৯ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৮, ২০১৯

পাকিস্তানে আইডি কার্ড দেখে দেখে ১৪ জনকে হত্যা

পাকিস্তানের বেলুচিস্তানে যাত্রীবাহী বাস থেকে জোরপূর্বক নামিয়ে পরিচয় পত্র (আইডি কার্ড) দেখে দেখে অন্তত ১৪ জনকে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার ভোররাতে বেলুচিস্তানের ওরমারা এলাকার মাকরান কোস্টাল হাইওয়েতে এ ঘটনা ঘটে।

অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা এ ঘটনা ঘটিয়েছে এবং তাৎক্ষণিকভাবে এর দায় কেউ স্বীকার করেনি বলে খবর দিয়েছে পাকিস্তানি গণমাধ্যম ডন।

বেলুচিস্তান পুলিশের আইজিপি মহসিন হাসান বাট বলেছেন, ১৫ থেকে ২০ জন অজ্ঞাত সশস্ত্র সন্ত্রাসী ছদ্মবেশে পাঁচ অথবা ছয়টি বাস থামিয়ে ওই হত্যাকাণ্ড ঘটায়। বাসগুলো করাচি থেকে গোয়াদরে যাতায়াত করছিল।

বেলুচিস্তানের স্বরাষ্ট্র সচিব হায়দার আলি বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানান, হামলাকারীরা ফ্রন্টিয়ার কর্পসের ইউনিফর্ম পরে ছিল।

আইজিপি মহসিন জানান, বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টা থেকে ১টার মধ্যে বুজি এলাকায় বন্দুকধারীরা একটি বাস থামিয়ে যাত্রীদের পরিচয় পত্র দেখে এবং প্রায় ১৬ জনকে নামিয়ে নেয়।

স্থানীয় কর্মকর্তা জেহাঙ্গীর দাশতি বলেছেন, ওই সময় বাসটিতে অন্তত ৩৬ জন যাত্রী ছিল।

মহসিন বাট বলেন, এটা ‘পরিকল্পিত হত্যা’। নিহতদের পরিচয় নিশ্চিত করে খুব কাছ থেকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, ওই সময় দুই যাত্রী পালিয়ে পার্শ্ববর্তী শুল্ক অফিসে যেতে সক্ষম হয়। পরে তাদের ওরমারা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

স্বরাষ্ট্র সচিব জানান, নিহতদের মধ্যে নৌবাহিনীর এক কর্মকর্তা এবং কোস্টগার্ডের এক সদস্য রয়েছেন।

এ ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এবং বেলুচিস্তানের মুখ্যমন্ত্রী জাম কামাল। সেইসঙ্গে হামলাকারীদের খুঁজে বের করার কথাও বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

আরপি