ভারতে ‘তিতলি’র আঘাত, নিহত ৮

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৮ | ২ কার্তিক ১৪২৫

ভারতে ‘তিতলি’র আঘাত, নিহত ৮

পরিবর্তন ডেস্ক ৫:৫১ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১১, ২০১৮

ভারতে ‘তিতলি’র আঘাত, নিহত ৮

ভারতের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের অন্ধ্রপ্রদেশে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’। এতে রাজ্যে অন্তত ৮ জনের প্রাণহানি ঘটেছে।

বৃহস্পতিবার সকালে প্রদেশটির শ্রীকাকুলাম ও বিজয়নগরাম জেলায় ঘূর্ণিঝড়টি আঘাত হানলে এ প্রাণহানির ঘটনা ঘটে।

একই সঙ্গে পার্শ্ববর্তী দক্ষিণাঞ্চলীয় উড়িষ্যা উপকূল এলাকাতেও আঘাত হেনেছে তিতলি। তবে সেখানে কোনো ধরনের হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

অন্ধ্রপ্রদেশ দুর্যোগ মোকাবেলা ও ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ জানায়, তিতলির আঘাতে ছয় জেলেসহ আটজন মারা গেছেন। নিহতের মধ্যে গাছের নিচে চাপা পড়ে ৬২ বয়সী এক নারী ও বাড়ি ধসে ৫৫ বছর বয়সী এক পুরুষ রয়েছেন।

এনডিটিভি খবর দিয়েছে, উড়িষ্যার উপকূলে ও অন্ধ্রপ্রদেশের কয়েকটি জেলায় তিতলির আঘাতে বিদ্যুতের খুঁটি ও গাছ পালা উপড়ে গেছে। এতে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। যোগাযোগ ব্যবস্থাও বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। এমনকি ঘূর্ণিঝড়ের তীব্র আঘাতে লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে অন্ধ্রপ্রদেশের পালাসা রেলস্টেশন।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৪টা থেকে সাড়ে ৫টার মধ্যে উড়িষ্যায় গোপালপুরে ১২৫ কিলোমিটারের বেশি বেগে আঘাত হানে তিতলি। একই সময়ে অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীকাকুলামেও ১৪০ থেকে ১৬০ কিলোমিটার বেগে আঘাত হানে ঘূর্ণিঝড়টি।

তীব্র বাতাস ও ভারী বৃষ্টিপাতের ফলে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে দুই প্রদেশের মধ্যে। সড়ক যোগাযোগ ছাড়াও বন্ধ রয়েছে বিমান ও রেল যোগাযোগ। ভূবনেশ্বর থেকে বিমানের পাঁচটি ফ্লাইট বাতিল করেছে ইন্ডিগো এয়ারলাইন্স।

উড়িষ্যায় বিদ্যুতের খুঁটি ও গাছ উপড়ে পড়া, বাড়িঘর ধসে পড়লেও কোনো ধরনের হতাহতের ঘটনা ঘটেনি বলে দাবি করেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী নবীন পাটনায়েক।

এর আগে ঘূর্ণিঝড় তিতলি আঘাত হানার সতর্কতা ও প্রস্তুতিতে বুধবার উড়িষ্যার উপকূলীয় অঞ্চল থেকে প্রায় তিন লাখ মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেয় রাজ্য সরকার। আবহাওয়া পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করে।

তবে ভারতের আবহাওয়া বিভাগ আইএমডি জানিয়েছে, উড়িষ্যা এবং অন্ধ্রপ্রদেশে আঘাত হানার পর ঘূর্ণিঝড়টি ক্রমান্বয়ে দুর্বল হয়ে পড়ছে। বর্তমানে এ দুই রাজ্যে বাতাসের সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটার।

আরজি/আইএম