হোয়াটসঅ্যাপে অপহরণ গুজব, শিশুকে চকোলেট দেয়ায় বৃদ্ধাকে হত্যা

ঢাকা, সোমবার, ২৩ জুলাই ২০১৮ | ৮ শ্রাবণ ১৪২৫

হোয়াটসঅ্যাপে অপহরণ গুজব, শিশুকে চকোলেট দেয়ায় বৃদ্ধাকে হত্যা

পরিবর্তন ডেস্ক ৭:৫৩ অপরাহ্ণ, মে ১১, ২০১৮

print
হোয়াটসঅ্যাপে অপহরণ গুজব, শিশুকে চকোলেট দেয়ায় বৃদ্ধাকে হত্যা

শিশু অপহরণকারী সন্দেহে ৫৫ বছর বয়সী এক বৃদ্ধাকে পিটিয়ে মেরে ফেলার অভিযোগে ভারতের তামিল নাড়ুতে ৩০ জনেরও বেশি মানুষকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সামাজিক মাধ্যম হোয়াটসঅ্যাপে শিশু পাচারকারীদের বিষয়ে ভুয়া সতর্কবার্তা ছড়িয়ে পড়ার পর গত বুধবার ওই বৃদ্ধা ও তার পরিবারের সদস্যরা গণপিটুনির শিকার হন।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই মহিলা ও তার পরিবারের সদস্যরা কয়েকটি বাচ্চাকে চকোলেট দিচ্ছে দেখে তাদের আক্রমণ করে স্থানীয় জনগণ।

হতাহতরা তিরুভান্নামালাই জেলায় তাদের গন্তব্যে যাওয়ার পথনির্দেশনা জানতে গাড়ি থামালে ওই ঘটনা ঘটে।

একজন পুলিশ কর্মকর্তা বলেছেন, ‘ওই মহিলা কয়েকটি শিশুকে রাস্তার ধারে খেলতে দেখে তাদের কয়েকটি চকোলেট দেন।’

সম্প্রতি হোয়াটসঅ্যাপে শিশু অপহরণ বিষয়ে সচেতন থাকতে বলে ভুয়া একটি মেসেজ ছড়িয়ে পড়ায় ওই এলাকার মানুষ ভীত-সন্ত্রস্ত ছিল। তারা ওই বৃদ্ধার গাড়ি ঘিরে ফেলে তাদের পিটুনি দেয়।

এসময় গাড়িতে থাকা আরো চারজন মারাত্মক আহত হন। তারা এখন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

শিশু অপহরণের গুজব কিভাবে ছড়িয়ে পড়েছে তা পরিষ্কার নয়। তামিল নাড়ুতে সাম্প্রতিক সময়ে শিশু পাচারকারী সন্দেহে বেশ কয়েকজনকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

গত সপ্তাহে রাস্তায় উদ্দেশ্যবিহীনভাবে হাঁটতে থাকা এক ব্যক্তিকে শিশু পাচারকারী সন্দেহে গণপিটুনি দিয়ে হত্যা করা হয়েছিল।

তিরুভান্নামালাইতে ভুয়া মেসেজ ছড়ানোর অপরাধে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মেসেজে বলা হয়, ওই এলাকায় প্রায় ২০টি শিশু অপহৃত হয়েছে। মানুষ ওই মেসেজ পড়েই বৃদ্ধা ও তার মহিলাকে আক্রমণ করেছে কিনা পরিষ্কার নয়।

স্থানীয় মিডিয়ার রিপোর্টে বলা হয়েছে, একটি অডিও মেসেজে অজ্ঞাতপরিচয় এক ব্যক্তি দাবী করেছেন, এপ্রিল মাসে শিশু অপহরণের উদ্দেশ্যে ৪০০ মানুষ তামিল নাড়ুতে গিয়েছেন। রাস্তা থেকে বাচ্চাদের তুলে নিয়ে যাওয়া দেখাচ্ছে এমন একটি ভিডিও ওই মেসেজের সঙ্গে জুড়ে দেয়া হয়।

এমআর/এমএসআই

 
.



আলোচিত সংবাদ