চুরির ৪০ বছর পর সন্তান উদ্ধার

ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮ | ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

চুরির ৪০ বছর পর সন্তান উদ্ধার

পরিবর্তন ডেস্ক ৭:০৬ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ০৬, ২০১৭

চুরির ৪০ বছর পর সন্তান উদ্ধার

জন্মের পরই চুরি হয়ে গিয়েছিল আর্জেন্টিনার আদ্রিয়ানা। তার মা সেসময় মেয়েকে ভালো করে দেখারও সুযোগ পাননি। তবে মেয়ের ইচ্ছাশক্তির জোরে আর প্লাজা ডি মায়ো নামের বৃদ্ধাদের একটি সংস্থার সহযোগিতায় হারিয়ে যাওয়ার ৪০ বছর পর সন্তানকে ফিরে পেয়েছেন মা।

বুধবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানায়, আসল বাবা-মা সম্পর্কে কোনো ধারণা না থাকলেও আদ্রিয়ানা তাদের দেখতে চেয়েছিল। এজন্যে প্রচার সংস্থাটির সহযোগিতায় সে ডিএনএ পরীক্ষা করার সিদ্ধান্ত নেয়। আর সেই পরীক্ষার মাধ্যমেই দীর্ঘ ৪ দশক পর আবারও আসল পরিবারের কাছে সে ফিরে আসতে সক্ষম হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, আর্জেন্টিনায় যখন সেনাশাসন চলছিল তখন পরিবারের কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় আদ্রিয়ানা। সেসময় যেসব পরিবার তাদের স্বজনদের হারিয়েছিল তাদের ডিএনএ’র সঙ্গে আদ্রিয়ানার ডিএনএ মেলানো হয়।

ভাগ্যগুণে এক পরিবারের সঙ্গে তার ডিএনএ মিলেও যায়! জানা যায়, প্রসবের পর সন্তানকে হারিয়ে ফেলেছিলেন পরিবারের কর্ত্রী। এরপর আসল বাবা-মার কাছে আসতে কোনো বাঁধাই আর থাকে না আদ্রিয়ানার।

অবশ্য দাদীদের সংগঠন প্লাজা ডি মায়ো আদ্রিয়ানার মতো অনেক হারিয়ে যাওয়া সন্তানদের পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দিয়েছে। সংগঠনটির সদস্যদের মতে, আর্জেন্টিনায় সেই সময় ‘ডার্টি ওয়্যার’ অর্থাৎ নোংরা যুদ্ধ চলছিল।

আর্জেন্টিনায় সেনাশাসন চলাকালে হারিয়ে যাওয়া এমন শতাধিক শিশুকে পরবর্তীতে আসল অভিভাবকদের কাছে ফিরিয়ে দিয়েছে সংগঠনটি। বিবিসি জানিয়েছে, আদ্রিয়ানা হচ্ছে ১২৬ তম সন্তান যে সংগঠনটির মাধ্যমে বাবা-মাকে ফিরে পেয়েছে।

সংবাদমাধ্যমে আদ্রিয়ানা জানায়, যে দম্পতির কাছে সে বড় হয়েছে তাদের কাছ থেকে আসল সত্যতা জানতে পারে। যদিও তাকে নয়, অন্য কাউকে তারা বলছিলেন যে আদ্রিয়ানা তাদের পালিত সন্তান।

এরপর থেকেই সে আসল বাবা-মার খোঁজ শুরু করে দেয়। একসময় দাদিদের সংগঠনের সঙ্গে যোগাযোগ হলে তারা সাহায্যে এগিয়ে আসে।

কেবিএ