এস-৪০০: তুরস্ককে আল্টিমেটাম আমেরিকার

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০১৯ | ৪ আষাঢ় ১৪২৬

এস-৪০০: তুরস্ককে আল্টিমেটাম আমেরিকার

পরিবর্তন ডেস্ক ৯:৫৬ পূর্বাহ্ণ, জুন ০৯, ২০১৯

এস-৪০০: তুরস্ককে আল্টিমেটাম আমেরিকার

মার্কিন সরকার রাশিয়ার কাছ থেকে এস-৪০০ আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কেনার পরিকল্পনা বাতিল করার জন্য তুরস্ককে জুলাইয়ের শেষ পর্যন্ত চূড়ান্ত সময়সীমা বেঁধে দিয়ে বলেছে, এ সময়ের মধ্যে এটি বাতিল করতে ব্যর্থ হলে আঙ্কারাকে এফ-৩৫ জঙ্গিবিমান দেবে না ওয়াশিংটন।

মার্কিন সহকারী প্রতিরক্ষামন্ত্রী এলেন লর্ড সাংবাদিকদের বলেন, আগামী ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে তুরস্ক রাশিয়ার কাছ থেকে এস-৪০০ কেনার চুক্তি বাতিল করতে ব্যর্থ হলে দেশটিকে এফ-৩৫ স্টিল্‌থ জঙ্গিবিমান দেয়া হবে না।

এ ছাড়া নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দুই মার্কিন কর্মকর্তা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, এখন থেকে ওয়াশিংটন নতুন করে আর কোনো তুর্কি পাইলটকে এফ-৩৫ জঙ্গিবিমান চালানোর প্রশিক্ষণ দেবে না। এ সম্পর্কে এলেন লর্ড বলেন, শুধু তাই নয়, এরই মধ্যে যেসব তুর্কি পাইলট আমেরিকায় এফ-৩৫ জঙ্গিবিমানের প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন তাদেরকেও বহিষ্কার করা হবে।

ইরানি গণমাধ্যম পার্সটুডে বলছে, বর্তমানে আমেরিকার অ্যারিজোনা অঙ্গরাজ্যের লিউক বিমানঘাঁটিতে চারজন তুর্কি পাইলট এফ-৩৫ বিমান চালনার প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন। এ ছাড়া, আরো দুই তুর্কি পাইলট সেখানে প্রশিক্ষক হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। পাশাপাশি ২০ তুর্কি প্রকৌশলী ওই ঘাঁটিতে এই বিমান পরিচালনার প্রশিক্ষণ গ্রহণ করছেন।

এর আগে মার্কিন কর্মকর্তারা যুক্তি তুলে ধরে বলেছিলেন, ন্যাটো জোটের সদস্যদেশ হিসেবে এই জোটের শত্রু রাশিয়ার আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ক্রয় করা তুরস্কের উচিত হবে না। এর পরিবর্তে ওয়াশিংটন আঙ্কারাকে আমেরিকার তৈরি প্যাট্রিয়ট ব্যবস্থা কেনার প্রস্তাব দিয়ে বলেছিল, প্যাট্রিয়ট কিনলে এফ-৩৫ জঙ্গিবিমান সংক্রান্ত চুক্তি বাতিল করা হবে না।

তবে তুরস্ক শুরু থেকেই আমেরিকার এ বিরোধিতা প্রত্যাখ্যান করে এসেছে। সম্প্রতি তুর্কি প্রেসিডেন্ট রজব তৈয়ব এরদোয়ান বলেছেন, রাশিয়ার কাছ থেকে এস-৪০০ কেনার চুক্তি থেকে আর পিছিয়ে আসা সম্ভব নয়।

উল্লেখ্য, এই আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার সাহায্যে ক্ষেপণাস্ত্র ও জঙ্গিবিমানসহ আকাশপথে আসা যেকোনো হুমকি শনাক্ত করে তা আকাশেই ধ্বংস করে দেয়া সম্ভব।

আরপি