ভেনিজুয়েলার ভাইস-প্রেসিডেন্টকে বন্দি করেছে সরকার

ঢাকা, রবিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

ভেনিজুয়েলার ভাইস-প্রেসিডেন্টকে বন্দি করেছে সরকার

পরিবর্তন ডেস্ক ১০:৪৫ পূর্বাহ্ণ, মে ১০, ২০১৯

ভেনিজুয়েলার ভাইস-প্রেসিডেন্টকে বন্দি করেছে সরকার

ভেনিজুয়েলার জাতীয় সংসদের ভাইস-প্রেসিডেন্ট এবং বিরোধী নেতা জুয়ান গুইদোর অন্যতম সহযোগী এডগার সামব্রানোকে বন্দি করেছে দেশটির সরকার। তার বিরুদ্ধে সরকার উৎখাত প্রচেষ্টার অভিযোগ আনা হয়েছে৷

সরকার উৎখাতে ব্যর্থ অভ্যুত্থানের জের ধরে বিরোধী দলের নেতাদের গ্রেপ্তার শুরু করেছে ভেনিজুয়েলা৷

বুধবার দেশটির বিরোধীদলীয় নেতা, স্বঘোষিত প্রেসিডেন্ট জুয়ান গুইদোর দলের অন্যতম নেতা ও সংসদের ভাইস-প্রেসিডেন্ট এডগার সামব্রানোকে আটক করে গোয়েন্দা সংস্থা৷ প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর সরকার উৎখাতে সামরিক অভ্যুত্থান প্রচেষ্টায় মদত দেয়ার অভিযোগে তাকে আটক করা হয়েছে৷

ডয়চে ভেলের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে এ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়েছেন গুইদো৷ এক টুইট বার্তায় তিনি বলেছেন, ‘আমরা ভেনিজুয়েলার জনগণ এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে জানাচ্ছি যে, সরকার ভাইস-প্রেসিডেন্টকে অপহরণ করেছে৷ তারা ভেনিজুয়েলার জনগণকে প্রতিনিধিত্ব করা শক্তিকে ধ্বংস করতে চাচ্ছে, কিন্ত তা অর্জন তাদের পক্ষে সম্ভব হবে না৷’

এদিকে, দেশটি সংসদ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সরকার উৎখাতের প্রচেষ্টায় যারা জড়িত ছিল, তাদের প্রতি ক্ষমা প্রদর্শন করা হবে না৷ অভ্যুত্থান প্রচেষ্টায় নিরাপত্তা বাহিনী ও বিক্ষোভকারীদের মধ্যে দুই দিনব্যাপী সংঘর্ষে ৬ জন মারা গেছে বলে জানিয়েছেন দেশটির অ্যাটর্নি জেনারেল৷ এ সময় বহু মানুষ আহত ও ২৩৩ জন গ্রেপ্তার হয়েছেন৷

খবরে বলা হয়েছে, আটকের পর সামব্রানোকে কোথায় রাখা হয়েছে সেটি এখনো জানা যায়নি৷ তার দলের প্রধান নেতা কার্লোস প্রসপারি জানিয়েছেন, স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় দলের প্রধান কার্যালয় থেকে বের হওয়ার পরই তার গাড়িটিকে ঘিরে ফেলে গোয়েন্দা কর্মকর্তারা৷ এ সময় সামব্রানো গাড়ি থেকে বের হতে অস্বীকৃতি জানালে তাকে ভেতরে রেখেই গাড়িটিকে টেনে কারাকাসের একটি সরকারি ভবনের দিকে নিয়ে যাওয়া হয়৷

গুইদোর অভ্যুত্থানে সহযোগিতা দেয়ায় বুধবার আরো তিন আইন প্রণেতাকে অভিযুক্ত করেছে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট৷ এ নিয়ে মোট দশজন বিরোধীদলীয় সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধে সরকার উৎখাতের অভিযোগ আনা হলো৷

সামব্রানোকে আটকের ঘটনায় প্রতিবাদ জানিয়েছে বিভিন্ন দেশ৷ তার নাম উল্লেখ না করলেও প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মাদুরো সরকারের সমালোচনা করে জানিয়েছেন, যতদিন প্রয়োজন যুক্তরাষ্ট্র ভেনিজুয়েলার জনগণের পাশে থাকবে৷ এ ছাড়া নিন্দা জানিয়েছে আর্জেন্টিনা, কলম্বিয়া, চিলি ও পেরুর সরকারও৷

উল্লেখ্য, গত ২ এপ্রিল গুইদো প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোকে ক্ষমতাচ্যুত করার চেষ্টায় আন্দোলন শুরু করেন৷ সেনাবাহিনীর উদ্দেশ্যে তিনি মাদুরোর প্রতি আনুগত্য ত্যাগ করার ডাক দিলেও হাতে গোনা কয়েকজন সৈন্য ছাড়া কেউ সেই আহ্বানে সাড়া দেননি৷

আরপি

 

দক্ষিণ আমেরিকা: আরও পড়ুন

আরও