লাইভে জ্যান্ত অক্টোপাস খেতে গিয়ে রক্তাক্ত হলেন ব্লগার

ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৯ | ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

লাইভে জ্যান্ত অক্টোপাস খেতে গিয়ে রক্তাক্ত হলেন ব্লগার

পরিবর্তন ডেস্ক ৩:৪৯ অপরাহ্ণ, মে ০৮, ২০১৯

লাইভে জ্যান্ত অক্টোপাস খেতে গিয়ে রক্তাক্ত হলেন ব্লগার

চীনে লাইভ স্ট্রিমে জ্যান্ত অক্টোপাস খেতে গিয়ে নিজেই মুখে অক্টোপাসের কামড় খেয়ে নাকাল হয়েছেন একজন ব্লগার। অক্টোপাসটা নিজের প্রাণ বাঁচাতে ওই ব্লগার মেয়েটির মুখ কামড়ে ধরে থাকে এবং তাকে ছাড়াতে গিয়ে রক্তারক্তি কাণ্ড ঘটে যায়।

অক্টোপাস সাধারণত তার হাতগুলো শিকার ধরা বা আক্রমণ ঠেকানোর কাজে ব্যবহার করে।

অক্টোপাস অন্যান্য প্রাণীকে তাদের লম্বা হাতগুলো দিয়ে জড়িয়ে ধরে এবং এর শোষক দিয়ে শক্ত হয়ে প্রাণীটির শরীরের সঙ্গে আটকে থাকে।

ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম মেইল অনলাইন মঙ্গলবার জানায়, অক্টোপাসের হাতে নাকাল ওই ব্লগার ‘সি সাইড গার্ল লিটল সেভেন’ ছোট ছোট ভিডিওর ওয়েবসাইট কুয়াইশুতে তার ভিডিওগুলো আপলোড করেন।

ভিডিওর শুরুতে দেখা যায়, অক্টোপাসটা ওই মেয়ের মুখের সঙ্গে লেগে আছে, কিন্তু মেয়েটি ভয় পাচ্ছে না। এই ভক্তদেরকে তিনি বলেন, ‘দেখুন কত শক্ত হয়ে এটা চুষছে।’

কিন্তু পরে যখন মেয়েটি বুঝতে পারে অক্টোপাসটা তাকে ছাড়বে না, তখন মেয়েটি কাঁদতে শুরু করে।

ক্যামেরা চালু রেখেই সে চিৎকার করে বলতে থাকে, ‘ব্যাথা লাগছে। আমি এটা ছাড়াতে পারছি না।’ একই সঙ্গে সে সর্বশক্তি দিয়ে অক্টোপাসটি তার গাল থেকে ছুটানোর চেষ্টা করে।

শেষ পর্যন্ত অক্টোপাসটাকে মুখের ওপর থেকে সরানো গেলেও মেয়েটির চেহারা অনেকখানি বিকৃত হয়ে যায়।

অক্টোপাসটা সরানোর পর ব্লগারের তার আসল উদ্দেশ্য মনে পড়ে যাওয়ায় সে চিৎকার করে ওঠে, ‘আমি এটা আগামী ভিডিওতে খাব।’

এরপর যখন সে দেখে তার মুখে ছোট একটা রক্তাক্ত ক্ষত তখন সে আবার চিৎকার করে ওঠে, ‘আমার চেহারা নষ্ট হয়ে গেছে।’

ভিডিও ব্লগার সি সাইড গার্ল লিয়ানিউঙ্গাং শহরে বাস করেন এবং সামুদ্রিক খাবার খেতে ভালোবাসেন, জানা যায় তার কুয়েইশু একাউন্ট থেকে।

দুই সপ্তাহ আগে লাইভ স্ট্রিমিং চ্যানেল খুলে তিনি বিভিন্ন রকম সি-ফুড রান্না করে খেয়েছেন।

দৃশ্যত সি সাইড গার্ল বিখ্যাত হতে খুবই ইচ্ছুক। আগের ক্লিপে তাকে বলতে শোনা গেছে, ‘আমার কোনও ক্লিপ কেন ট্রেন্ডিং চার্টে বা আলোচনায় আসছে না?’

অদ্ভুত ভাবে তার সর্বশেষ অক্টোপাসের ভিডিওটি চীনের সামাজিক মাধ্যমে আলোড়ন তৈরি করেছে।

চীনে টুইটারের মতো সামাজিক মাধ্যম ওয়েইবোতে একজন দর্শক বলেন, ‘ওর এটাই হওয়া উচিৎ ছিল। ও অক্টোপাসটাকে খেতে গিয়েছিল, অক্টোপাসটাও ওকে খাওয়ার চেষ্টা করেছে।’

আরেকজন ওয়েইবো ইউজার ওই পোস্টে লেখেন, ‘চোখের বদলে চোখ, দাঁতের বদলে দাঁত।’

এমআর/এএসটি