‘কর দিয়ে হাসিমুখে ফিরে গেছেন সবাই’- নজিবুর রহমান

ঢাকা, সোমবার, ২৩ জুলাই ২০১৮ | ৭ শ্রাবণ ১৪২৫

‘কর দিয়ে হাসিমুখে ফিরে গেছেন সবাই’- নজিবুর রহমান

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৩:৩০ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ০৯, ২০১৭

print
‘কর দিয়ে হাসিমুখে ফিরে গেছেন সবাই’- নজিবুর রহমান

সদ্য শেষ হওয়া আয়কর মেলায় জনগণ কর দিয়ে হাসিমুখে ফিরে গেছেন বলে মন্তব্য করেছেন অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব ও এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান। বুধবার বিকেলে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে এনবিআরের নতুন ভবনে ‘কর বাহাদুর পরিবার ও সেরা করদাতা সম্মাননা’ প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, দেশে একটি রাজস্ববান্ধব পরিবেশ তৈরি হয়েছে। যা আমাদের অনুপ্রাণিত করছে। তিনি বলেন, করদাতাদের সেবা দিতে আমরা বদ্ধপরিকর। এই মেলায় এনবিআরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা করদাতাদের সেবা দিয়ে তা প্রমাণ করেছে।

কর দিয়ে জনগণ মেলা থেকে হাসিমুখে ফিরে গেছেন মন্তব্য করে তিনি বলেন, ঢাকায় আগামী ১২ থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত আয়কর মেলার সুবিধা নিয়ে জনগণ আয়কর পরিশোধ করতে পারবেন। আশাকরি এই সময়ে সবাই নিজ উদ্যোগে কর পরিশোধ করবে।

নজিবুর রহমান বলেন, ‘আমাদের জন্য মূল শিক্ষা হলো আমরা যদি জনগণকে উপযুক্ত পরিবেশ তৈরি করে দিতে পারি, ব্যবসা-বাণিজ্যের জন্য উপযুক্ত ক্ষেত্র প্রস্তুত করে দিতে পারি তাহলে তারা রাজস্ব প্রদানে কখনও পিছপা হবেন না।’

এনবিআর চেযারম্যান বলেন, আয়কর আদায়ে আমরা অসম্ভবকে সম্ভব করতে সক্ষম হয়েছি। এই কাজে প্রধানমন্ত্রী এনবিআরকে সার্বক্ষণিক সহায়তা দিচ্ছে।

এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, করদাতারা বিশেষ করে বিদ্যুৎ, গ্যাস ও অবকাঠামোর উন্নয়ন দেখতে চায়। যেমন পদ্মাসেতু এখন দৃশ্যমান হয়েছে। অন্যান্য খাতগুলোও যেন এভাবে দেখা যায়, সেই প্রত্যাশা থাকে তাদের।
তিনি বলেন, করদাতারা কর দিয়ে তখনই আনন্দ পান যথন তারা দেখেন, দেশের অবকাঠামোর উন্নয়ন হচ্ছে, চারদিকে আলো জ্বলছে, ব্রীজ তৈরি হচ্ছে, রাস্তা ও রেলের উন্নয়ন হচ্ছে।

মহিউদ্দিন বলেন, দেশের যেসব উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে সেসব সম্পন্ন করতে অবশ্যই অর্থের যোগান দরকার। আর এই অর্থ এসব আয়কর থেকেই আসে বলে। কর দেয়া এখন সংস্কৃতিতে রূপান্তর হয়েছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, মেলায় অভাবনীয় সাফল্য দেখা গেছে। নতুন করদাতা অনুসন্ধান ও তাদের করদানে উদ্বুদ্ধ করতে সম্মাননা দেয়া হয়েছে। এর ফলে অনেকে স্বপ্রণোদিত হয়ে কর দিতে এসেছে। এই জন্য এনবিআরকে ধন্যবাদ জানাই।

এবারের মেলায় সারাদেশে আয়কর আহরণ হয়েছে দুই হাজার ২শ ১৭ কোটি ৩৩ লাখ ১৪ হাজার ২২১ টাকা। গত বছরের চেয়ে এবার আয়কর বেশি আহরণ হয়েছে ৮৭ কোটি ৬৫ লাখ ৩৮ হাজার ৪১০ টাকা। যা গত বছর ছিল ২ হাজার ১শ ২৩ কোটি ৬৭ লাখ ৭৫ হাজার ৮১১ টাকা। অর্থাৎ এ বছর আয়করে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৪ দশমিক ১২ শতাংশ।

এছাড়া এবার আয়কর মেলা থেকে সেবা নিয়েছে ১১ লাখ ৬৯ হাজার ৫শ ৬৯ জন। গত বছর যা ছিল ৯ লাখ ২৮ হাজার ৯শ ৭৩ জন। আর রিটার্ন দাখিল করেছেন ৩ লাখ ৩৫ হাজার ৪শ ৮৭ জন। গত বছর এই সংখ্যা ছিল ১ লাখ ৯৪ হাজার ৫শ ৯৮ জন।

অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত প্রধান অতিথি ছিলেন। বিশেষ অতিথি অর্থ মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ড. আব্দুর রাজ্জাক, অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান সভায় সভাপতিত্ব করেন অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব ও চেয়ারম্যান, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড মো. নজিবুর রহমান। অর্থমন্ত্রী ও অর্থপ্রতিমন্ত্রী এবং আব্দুর রাজ্জাক অনুষ্ঠানে কোন বক্তব্য রাখেন নি।

এফএ/এএস

 
.



আলোচিত সংবাদ