জিপি-রবির লাইসেন্স কেন বাতিল হবে না, জানতে চেয়ে নোটিশ

ঢাকা, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯ | ২৯ কার্তিক ১৪২৬

জিপি-রবির লাইসেন্স কেন বাতিল হবে না, জানতে চেয়ে নোটিশ

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৭:৩৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ০৫, ২০১৯

জিপি-রবির লাইসেন্স কেন বাতিল হবে না, জানতে চেয়ে নোটিশ

দুই মোবাইল অপারেটরের কাছ থেকে বিপুল অঙ্কের পাওনা আদায়ে নতুন পদক্ষেপ নিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

বকেয়া পরিশোধ না করায় মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীণফোন (জিপি) ও রবির টু-জি ও থ্রি-জি লাইসেন্স কেন বাতিল করা হবে না, জানতে চেয়ে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে সংস্থাটি।

বৃহস্পতিবার বিটিআরসির সিনিয়র সহকারী পরিচালক জাকির হেসেন খান এ তথ্য জানিয়েছেন।

নোটিশে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ আইন ২০০১ এর ৪৬(২) ধারা মোতাবেক দুই অপারেটরকে আগামী ৩০ দিনের মধ্যে জবাব দিতে বলা হয়েছে।

বিটিআরসির দাবি, গ্রামীণফোনের কাছে নিরীক্ষা আপত্তির দাবির ১২ হাজার ৫৭৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকা এবং রবির কাছে ৮৬৭ কোটি ২৩ লাখ টাকা পাওনা রয়েছে তাদের।

বকেয়া পরিশোধ না করায় সম্প্রতি বিটিআরসি গ্রামীণফোন ও রবির এনওসি দেয়া বন্ধ করে দিয়েছে। এর আগেও এ দুই অপারেটরের ইন্টারনেট ডাটা সীমিত করেছিল বিটিআরসি, পরে আবার সে সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে তারা।

দেশে গ্রাহকের হাতে থাকা ১৬ কোটি ৮২ হাজার নিবন্ধিত মোবাইল সিমের মধ্যে ৭ কোটি ৪৭ লাখ সিম গ্রামীণফোনের। আর রবির ৪ কোটি ৭৬ লাখ সিম রয়েছে গ্রাহকের হাতে। এই হিসাবে মোট গ্রাহকের ৪৬.৪৯ শতাংশ গ্রামীণফোন এবং ২৯.৬৫ শতাংশ রবির সেবা নিয়ে থাকেন।

দেশের ৯ কোটি ৪৪ লাখ ইন্টারনেট গ্রাহকের মধ্যে ৮ কোটি ৮৬ লাখই মোবাইল ফোনের ইন্টারনেট ব্যবহার করেন, যা মোট গ্রাহকের ৯৩.৮৭ শতাশংশ।

ওএস/এসবি

 

রাজস্ব: আরও পড়ুন

আরও