৬ মাসে রাজস্ব আদায় ১০১৮০০ কোটি টাকা

ঢাকা, ২৫ মে, ২০১৯ | 2 0 1

৬ মাসে রাজস্ব আদায় ১০১৮০০ কোটি টাকা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ৫:৫৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৩, ২০১৯

৬ মাসে রাজস্ব আদায় ১০১৮০০ কোটি টাকা

২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রথম ৬ মাসে (ডিসেম্বর পর্যন্ত) ১ লাখ ১ হাজার ৮০০ কোটি টাকা আয়কর, ভ্যাট ও শুল্ক আদায় করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

অর্থবছরের এই সময়ে ১ লাখ ২৬ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল এনবিআরের। এ হিসাবে অর্থবছরের ৬ মাসে ২৪ হাজার কোটি টাকা কম রাজস্ব আদায় হয়েছে এনবিআরের।

এনবিআর সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

তথ্যানুযায়ী, চলতি অর্থবছরে সরকারের অর্থ মন্ত্রণালয় এনবিআরকে ২ লাখ ৯৬ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব আহরণের লক্ষ্যমাত্রা দিয়েছে। এর মধ্যে ভ্যাট বাবদ ১ লাখ ১০ হাজার কোটি টাকা আহরণের লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে এনবিআর।

এছাড়া আয়কর বাবদ ১ লাখ ২ হাজার কোটি ও শুল্ক ৮৪ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা স্থির করা হয়।

তবে অর্থবছরের প্রথম ৬ মাসে কোনো খাতই রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে পারেনি। ছয় মাসে ভ্যাট বাবদ ৫০ হাজার ৫৫০ কোটি টাকা লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে ৪০ হাজার ১৭০ কোটি আদায় করেছে এনবিআর। এ হিসাবে ভ্যাট খাতে ১০ হাজার ৩৮০ কোটি টাকা ঘাটতি সৃষ্টি হয়েছে।

এছাড়া অর্থবছরের ৬ মাসে কর রাজস্ব বাবদ ৩৪ হাজার ১০০ কোটি টাকা লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে ২৭ হাজার ৩৫০ কোটি টাকা আদায় করেছে এনবিআর। এ হিসাবে আয়কর খাতে প্রায় ৬ হাজার ৭৫০ কোটি টাকার ঘাটতি দেখা দিয়েছে।

একই ভাবে জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত সময়ে ৪১ হাজার ৬০০ কোটি টাকা আমদানি ও রপ্তানী শুল্ক আদায়ের বিপরীতে ৩৪ হাজার ২৮০ কোটি টাকা আদায় করেছে এনবিআর। সুতরাং ৬ মাসে এ খাতে ঘাটতি দেখা দিয়েছে প্রায় ৭ হাজার ৩২০ কোটি টাকা।

এনবিআর চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেন, অর্থবছরের শুরুতে সাধারণত রাজস্ব আদায় কম হয়। তাছাড়া এবার ছিল নির্বাচনী অর্থবছর। এবার কর প্রণোদনা দেওয়া হয়েছে অনেক বেশি খাতে। এসব কারণে রাজস্ব আদায় কছুটা কমেছে। তবে অর্থবছরের শেষ দিকে রাজস্ব আদায়ের এ ঘাটতি থাকবে না। কারণ প্রতিবছরই অর্থবছরের শেষ দিকে রাজস্ব আদায় বেশি হয়।

এফএ/এসবি

 

রাজস্ব: আরও পড়ুন

আরও