দরজা ভাঙতেই মিলল সোফায় বসা বাবার কঙ্কাল!

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

দরজা ভাঙতেই মিলল সোফায় বসা বাবার কঙ্কাল!

পরিবর্তন ডেস্ক ১১:৩৫ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ০২, ২০১৭

দরজা ভাঙতেই মিলল সোফায় বসা বাবার কঙ্কাল!

সত্তর বছরের ওই ব্যক্তির নাম কে পি রাধাকৃষ্ণণ। তিনি ভারতের কেরলের ডেন্টাল কলেজের শিক্ষক ছিলেন। অবসরের পর থেকে তিরুঅনন্তপুরমের ওল্ড মেডিকেল কলেজ রোডের একটি দোতলা বাড়িতে একাই থাকতেন।

স্ত্রী অম্বিকা কোট্টায়ামে মেয়ের সঙ্গে আলাদা থাকেন। স্ত্রী অম্বিকা এবং মেয়ের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ রাখতেন রাধাকৃষ্ণণ। মাঝেমধ্যে এসে মেয়ে তাকে দেখে যেতেন।

কিন্তু সপ্তাহখানেক ধরে বাবার খোঁজ-খবর পাচ্ছিলেন না মেয়ে। ঘরের দরজা বন্ধ ছিল। ফোনও বন্ধ ছিল। দরজার বাইরে বিল এবং চিঠি জমছিল। রোববার সেগুলো নিতে আসেন রাধাকৃষ্ণণের মেয়ে। পুলিশকেও খবর দেন তিনি।

রোববার দরজা ভেঙে ভিতরে ঢুকতেই আঁতকে ওঠেন মেয়ে। বৈঠকখানার সোফায় স্থির হয়ে পড়ে রয়েছেন বাবা। পচাগলা দেহ, কোথাও আবার কঙ্কাল বেরিয়ে পড়েছে।

মেয়ে জানান, সপ্তাহখানেক ধরে বাবার সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছিলেন না তিনি। একবার বাবার বাড়িতে এসে ঘুরেও গিয়েছেন। দরজা বন্ধ দেখে আর ডাকাডাকিতে সাড়া না পেয়ে ফিরে যান। উপায় না পেয়ে শেষ পর্যন্ত দরজা ভাঙারই সিদ্ধান্ত নেন।

মেডিকেল কলেজ পুলিশের এসএইচও গিরিলাল জানান, দরজা খুলতেই দুর্গন্ধে এক মুহূর্ত ভেতরে দাঁড়ানো যাচ্ছিল না। কোনো রকমে ভেতরে ঢোকেন। দেখেন সোফার উপরে ওই ব্যক্তির মৃতদেহটি পড়ে রয়েছে। পঁচেগলে গিয়েছিল দেহটি। কিছু কিছু জায়গায় কঙ্কালও বেরিয়ে পড়েছে।

মেয়ে বাবার মৃতদেহটি শনাক্ত করেছেন। কিভাবে ওই ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে তা জানার চেষ্টা করছে পুলিশ। অস্বাভাবিক খুনের মামলা রুজু করে তারা তদন্ত শুরু করেছে।

পরিবারগুলো ভাঙতে ভাঙতে এখন নিউক্লিয়ার হয়ে যাচ্ছে। সন্তানরা বাবা-মাকে ছেড়ে চলে যাচ্ছে বহু দূরে। একাকিত্ব এবং সন্তানদের বাবা-মায়ের প্রতি চরম ঔদাসীন্যই কি এমন করুণ মৃত্যুর কারণ- এমন প্রশ্ন রেখেই প্রতিবেদনটির ইতি টেনেছে আনন্দবাজার পত্রিকা।

এমএসআই

 

সম্পর্ক: আরও পড়ুন

আরও