সেহেরিতে মাছ-মাংসের বিকল্প ‘সয়া বড়ির’ ৬ পদ

ঢাকা, ৩১ আগস্ট, ২০১৯ | 2 0 1

সেহেরিতে মাছ-মাংসের বিকল্প ‘সয়া বড়ির’ ৬ পদ

পরিবর্তন ডেস্ক ৯:২৭ পূর্বাহ্ণ, মে ২৩, ২০১৯

সেহেরিতে মাছ-মাংসের বিকল্প ‘সয়া বড়ির’ ৬ পদ

রোজার সময় অনেকেই মাছ-মাংস খেতে পছন্দ করেন না। আবার অনেকে খেতে চাইলেও নানা সমস্যার কারণে খেতে পারেন না। যাদের এমন সমস্যা তারা মাছ-মাংসের বদলে সয়াবড়ি খেতে পারেন। এটি একটি প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার। অনেকটা কুমড়ো বড়ির মতো। সয়াবড়ি পছন্দ করলে সেহেরিতে মাছ বা মাংসের বিকল্প হিসেবে রাখতে পারেন সয়াবড়ির ছয় পদ। আসুন আজ জেনে নেই সয়াবড়ির রেসিপিগুলো।

১. ‘সয়া মাঞ্চুরিয়ান’

উপকরণ:

সয়াবড়ি ২ কাপ,

ময়দা ৪ টেবিল চামচ

কর্নফ্লাওয়ার ২-৩ টেবিল চামচ,

আদা বাটা ১ চা চামচ

রসুন বাটা ১ চা চামচ

গোল মরিচ গুঁড়ো সিঁকি চা চামচ

সয়াবিন তেল পরিমাণ মতো

লবণ স্বাদ মতো

সস তৈরির জন্য :

পেঁয়াজ ১টি কুচি করে কাটা,

রসুন কুচি ৫-৬টি কোয়া

কাঁচা মরিচ কুচি ২টি

সাদা ভিনেগার ২ চা চামচ

টমেটো সস ২-৩ টেবিল চামচ

চিলি গার্লিক সস ২ টেবিল চামচ

কর্নফ্লাওয়ার ২-৩ চা চামচ

সোয়া সস ২ চা চামচ

সয়াবিন তেল ২-৩ টেবিল চামচ

আধ কাপ পানি

পেঁয়াজ কলি আধ কাপ (কুচি করে কাটা)

প্রণালি:

সয়াবড়ি সেদ্ধ করে ভালো মতো ধুয়ে পানি ঝড়িয়ে রাখুন৷ এবার ব্যাটার তৈরি করার জন্য একটা বাটিতে ময়দা, কর্নফ্লাওয়ার, আদা রসুন বাটা, গোল মরিচ ও স্বাদ মতো লবণ দিয়ে তাতে সামান্য তেল দিয়ে মিশিয়ে নিন৷ কড়াইতে তেল দিন৷ তেল গরম হলে এবার সয়াবড়ি ব্যাটারে ডুবিয়ে ডিপফ্রাই করে নিন যতক্ষণ না মচমচে হয়ে যায়৷

আলাদা একটা প্যানে ২ থেকে ৩ চেবিল চামচ তেল দিন৷ তাতে কুচি করে রাখা রসুন ও কাঁচা মরিচ দিয়ে নেড়ে নিন৷ এবার পেঁয়াজ কুচি দিয়ে আরও বেশ খানিকক্ষণ ভাজুন৷ টমেটো সস, সোয়া সস, চিলি গার্লিক সস ও ভিনেগার দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন৷ এবার আধ কাপ পানিতে কর্নফ্লাওয়ার গুলে কড়াইয়ে দিয়ে দিন, ঝোল ঘন হয়ো আসবে৷ এবার ভেজে রাখা সোয়াবড়ি দিয়ে পেঁয়াজ কলি কুচি ছড়িয়ে দিন৷ সয়া মাঞ্চুরিয়ান তৈরি৷

উপর থেকে সামান্য পেঁয়াজকলি কুচি ছড়িয়ে গরম গরম ভাত, রুটি বা পরোটার সাথে পরিবেশন করুন৷

২. সয়াবিনের নিরামিষ রেসিপি

উপকরণ

সয়াবিনের বড়ি বা নাগেটস ২৫০ গ্রাম

পেঁয়াজ বাটা ৩টা মাঝারি

রসুন বাটা - দেড় চা চামচ

আদাবাটা - দেড় চা চামচ

টমেটো- পিউরি দেড়টা মাঝারি

মরিচ গুঁড়ো- এক চা চামচ বা স্বাদ অনুযায়ী

হলুদ গুঁড়ো- দেড় চা চামচ

ধনেপাতা কুচি

লবণ স্বাদমতো

গোটা গরম মসলা- দুটো ছোট এলাচি, চারটি লবঙ্গ, আধা ইঞ্চি দারুচিনি

তেঁজপাতা- দুটো

সরিষার তেল- মাপ অনুযায়ী

ঘি- এক টেবল চামচ (ইচ্ছে হলে)

প্রণালি:

প্রথমে সয়াবিনের বড়িগুলো পানিতে ফোটাতে হবে। বড় বড় রসগোল্লার মত হয়ে ফুলে উঠবে। পানি থেকে তুলে রেখে দিন। এতে পানি ঝরে যাবে।

গ্যাসে কড়াই বসিয়ে গরম হলে সরিষার তেল ঢালুন। যদি ইচ্ছে হয় ঘি মেশান। ঘি পুরো গলে গিয়ে আরেকটু গরম হবে। তেঁজপাতা আর গরম মসলা দিন। সেগুলো ভাজা হয়ে সুগন্ধ বেরোলে পেঁয়াজ বাটা দিন, ভালো করে কষে হালকা বাদামি রঙ ধরলে টমেটো পিউরি দিন। ভালো করে কষুন। এবার রসুন বাটা দিন, কষে নিয়ে আদা বাটা দিন। কিছুক্ষণ ভেজে সেদ্ধ করে রাখা সয়াবিনের বড়িগুলো দিয়ে দিন। কিছুক্ষণ নেড়েচেড়ে লবণ, হলুদ আর মরিচের গুঁড়ো দিন। সব একসাথে কষুন। ভালো করে কষা হলে দুধ দিন। ফুটে উঠলে গ্যাস কমিয়ে ঢাকনা দিয়ে দিন। মিনিট দশেক রান্না হবে, মাঝে মাঝে ঢাকনা তুলে নেড়ে দেবেন।

দশ মিনিট পর ঢাকনা তুলে আঁচ বাড়িয়ে ট্গবগ করে ফুটিয়ে নিন। ঝোল রাখবেন। তবে চেহারা দেখে বুঝতে পারবেন রান্নাটা হয়েছে কিনা।

রান্না হয়ে গেলে নামানোর পর উপরে ধনেপাতা কুচি ছড়িয়ে দিন। ভাত বা রুটির সঙ্গে পরিবেশন করুন।

৩. চিলি সয়াবিন

উপকরণ: সয়াবিন ১০০ গ্রাম, ক্যাপসিকাম ২টি, পেঁয়াজ ২টি, কাঁচা লঙ্কা ৪-৫টি, সয়া সস ৩ টেবিল চামচ, রসুন ৩-৪ কোয়া, কর্নফ্লাওয়ার ৩ টেবিল চামচ, টোমেটো ১টি, ¯িপ্রং অনিয়ন এক মুঠো, ভিনিগার ২ চা চামচ, টোমেটো সস ২ টেবিল চামচ, নুন স্বাদ মতো, চিনি অল্প একটু, সাদা তেল ১ কাপ

প্রণালি:

একটি বাটিতে কর্নফ্লাওয়ার, পানি, লবণ, রসুন বাটা, মরিচের গুড়া দিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করুন। গরম পানিতে সয়াবিন ভিজিয়ে রাখুন রাখুন ৩০ মিনিট। এ বার হাত দিয়ে চেপে সয়াবিনের ভিতরকার অতিরিক্ত পানি বের করে দিন। এরপর তেল গরম করুন। সয়াবিন কর্নফ্লাওয়ারের গোলায় ডুবিয়ে তেলে লালচে করে ভেজে নিন। ওই তেলেই পেঁয়াজ কুচি, ক্যাপসিকাম কুচি, রসুন কুচি আর টমেটো কুচি দিয়ে ভাজুন। সবজি ভাজা হয়ে এলে সয়া সস, ভিনিগার আর টমেটো সস দিয়ে দিন। হালকা নেড়ে একে একে চেরা কাঁচা মরিচ, মরিচ গুড়া আর মৌরি গুড়া দিয়ে ভেজে রাখা সয়াবিন দিন। সয়াবিনের সঙ্গে গ্রেভি মিলেমিশে গেলে লবণ আর চিনি দিয়ে দিন। এপর পরিবেশন  করুন। পুরো রান্নাটাই কড়া তাপে করতে হবে। গ্রেভি শুকনো করতে দুই চামচ পানিতে আধ চামচ কর্নফ্লাওয়ার মিশিয়ে  গ্রেভিতে দিন। ভিনিগারের সঙ্গে ইচ্ছে হলে সামান্য পাতিলেবুর রসও গ্রেভিতে দিতে পারেন।

৪. সয়াবিন মোগলাই কারি

উপকরণ

সয়াবিনের বড়ি, পেঁয়াজ বাটা, রসুন বাটা, আদা বাটা, টমেটো পিউরি, শুকনো মরিচের গুঁড়ো, হলুদ গুঁড়ো, দুধ, ধনে পাতা কুচি, নুন স্বাদ অনুযায়ী, গোটা গরম মশলা দুটো ছোট এলাচ, চারটি লবঙ্গ, আধ ইঞ্চি দারচিনি, তেজপাতা দুইটি, সর্ষের তেল মাপ অনুযায়ী। ২৫০ গ্রাম সয়াবিনে, ৩ টি পেঁয়াজ, টমেটো, আদাবাটা এক চা চামচ, রসুন বাটা দেড় চা চামচ, মরিচের গুঁড়া এক চা চামচ, হলুদ এক চামচ. রান্না পুরোটাই দুধে হবে, সেই বুঝে দুধ নিন। আর দিন ধনে পাতা।

প্রণালি:

সয়াবিনের বড়িগুলো পানিতে ফোটান। বড় হয়ে ফুলে উঠবে। পানি থেকে তুলে রেখে দিন, নিজে থেকে পানি ঝরুক। কড়া গরম হলে সর্ষের তেল দিন। তেল গরম হলে তেজপাতা আর গরম মশলা দিন। সেগুলো ভাজা হয়ে সুগন্ধ বেরোলে পেঁয়াজ বাটা দিন, ভালো করে কষে হাল্কা বাদামী রঙ ধরলে টমেটো পিউরি দিন। ভালো করে কষুন। এবার রসুন বাটা দিন, কষে নিয়ে আদা বাটা দিন। কিছুক্ষণ ভেজে সেদ্ধ করে রাখা সয়াবিনের বড়ি গুলো দিয়ে দিন। দিয়ে কিছুক্ষণ নেড়েচেড়ে, নুন, হলুদ আর মরিচের  গুড়া দিন। ভালো করে কষা হলে দুধ দিন। মিনিট দশেক রান্না হবে, মাঝে মাঝে ঢাকা তুলে নেড়ে দেবেন কারণ দুধ লেগে গেলে পোড়া গন্ধ লাগবে, তখন আর খাওয়া যাবে না। যদি দেখেন ঝোল কমে যাচ্ছে অল্প গরম পানি দেবেন। দশ মিনিট বাদে ঢাকনা তুলে তাপ বাড়িয়ে টগবগ করে ফুটিয়ে নিন। এই রান্নাটায় ঝোল থাকবে, তবে চেহারা দেখে বুঝতে পারবেন রান্নাটা হয়েছে কিনা। সব উপকরণ মিশে ঝোলটার একটা সুন্দর কন্সিস্টেন্সি তৈরি হবে। হয়ে গেলে গ্যাস বন্ধ করে, ওপর থেকে ধনে পাতা কুচি ছড়িয়ে দিন। ভাত বা রুটির সাথে পরিবেশন করুন।

৫. সয়ানাগেট চিকেন কারি

উপকরণ

মুরগির মাংস ১ কেজি,

সয়ানাগেট ১ কাপ,

আদাবাটা ১ টেবিল চামচ,

রসুন বাটা ১ চা চামচ,

পেঁয়াজবাটা আধা কাপ,

পেঁয়াজকুচি ১ টেবিল চামচ,

মরিচের গুড়া ১ চা চামচ

ধনে গুড়ো ২ চা চামচ,

হলুদ গুড়ো আধা চা চামচ,

জিরা গুড়ো ১ চা চামচ,

টমেটো পিউরি আধা কাপ,

গরম মশলা গুড়ো ১ চা চামচ,

লবণ স্বাদমতো,

মিল্ক ক্রিম আধা কাপ,

তেল এক কাপ।

প্রণালি:

১ চা চামচ তেলে সয়ানাগেট পাঁচ মিনিট ভেজে প্রথমে ফুটন্ত জলে ১০ মিনিট পরে ঠাণ্ডা পানিতে ১০ মিনিট ভিজিয়ে পানি নিংড়ে নিন। মাংস পছন্দমতো টুকরা করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। হাঁড়িতে তেল দিন গরম হলে পেঁয়াজ দিন। পেঁয়াজ ব্রাউন করে ভেজে আদা-রসুন বাটা, পেঁয়াজ বাটা দিয়ে ভাজুন। এবার টমেটো পিউরি দিন। হলুদ, লঙ্কা, ধনিয়া, জিরা গুড়ো দিয়ে মাংস ও নাগেট দিয়ে কষান। মাংস কষানো হলে আধা কাপ গরম পানি দিয়ে ঢেকে দিন। মাংস সিদ্ধ হয়ে মাখামাখা হলে গরম মশলাগুড়ো ও মিল্ক ক্রিম দিয়ে ১০ মিনিট রাখুন। এরপর পরিবেশন করুন ভাত, রুটি বা পোলাওয়ের সঙ্গে।

৬. সয়ানাগেট চিকেন কারি

উপকরণ:

মুরগির মাংস ১ কেজি,

সয়ানাগেট ১ কাপ,

আদাবাটা ১ টেবিল চামচ,

রসুন বাটা ১ চা চামচ,

পেঁয়াজবাটা আধা কাপ,

পেঁয়াজকুচি ১ টেবিল চামচ,

মরিচ গুড়ো ১ চা চামচ (রুটি অনুযায়ী),

ধনিয়া গুড়ো ২ চা চামচ,

হলুদ গুড়ো আধা চা চামচ,

জিরা গুড়ো ১ চা চামচ,

টম্যাটো পিউরি আধা কাপ,

গরম মশলা গুড়ো ১ চা চামচ,

লবণ স্বাদমতো,

মিল্ক ক্রিম আধা কাপ,

তেল সিকি কাপ।

প্রণালি:

১ চা চামচ তেলে সয়ানাগেট ৫ মিনিট ভেজে প্রথমে ফুটন্ত জলে ১০ মিনিট পরে ঠাণ্ডা জলে ১০ মিনিট ভিজিয়ে পানি  নিংড়ে নিন। মাংস পছন্দমতো টুকরা করে ধুয়ে পানি  ঝরিয়ে নিন। হাঁড়িতে তেল দিন গরম হলে পেঁয়াজ দিন। পেঁয়াজ ব্রাউন করে ভেজে আদা-রসুন বাটা, পেঁয়াজ বাটা দিয়ে ভাজুন। এবার টম্যাটো পিউরি দিন। হলুদ, লঙ্কা, ধনিয়া, জিরা গুড়োদিয়ে কষিয়ে মাংস ও নাগেট দিয়ে কষান। নুন দিন। মাংস কষানো হলে আধা কাপ গরম পানি  দিয়ে ঢেকে দিন। মাংস সিদ্ধ হয়ে মাখামাখা হলে গরম মশলাগুড়ো ও মিল্ক ক্রিম দিয়ে ১০ মিনিট দমে রাখুন। গরম গরম পরিবেশন করুন ভাত, রুটি বা পোলাওয়ের সঙ্গে।

ইসি/

 

রেসিপি ও রেস্তোরা: আরও পড়ুন

আরও