বৈশাখী স্পেশাল ইলিশের ১৫ পদ

ঢাকা, ২ জুলাই, ২০১৯ | 2 0 1

বৈশাখী স্পেশাল ইলিশের ১৫ পদ

পরিবর্তন ডেস্ক ২:১৯ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৩, ২০১৯

বৈশাখী স্পেশাল ইলিশের ১৫ পদ

বৈশাখ আর ইলিশ এখন সমার্থক হয়ে গেছে। খাবারেও ইলিশের কয়েক পদ না করতে পারলে আপনার বৈশাখ যেন মাটিই হয়ে যাবে। খুব বেশি না হোক অল্প কয়েক পদ ইলিশের আইটেম তো করাই যায়। তাই আসুন এবার বৈশাখের জন্য আমরা জেনে নেই ইলিশের মজার স্বাদের ১৫ পদ।

১. স্মোকড ইলিশ উপকরণ:

ইলিশ মাছের টুকরা ৬-৮টি,
হলুদগুঁড়া সামান্য,
মরিচগুঁড়া আধা চা-চামচ,
লবণ পরিমাণমতো,
টমেটো সস ১ চা-চামচ,
ভিনেগার ১ চা-চামচ,
আদাবাটা ১ চা-চামচ,
পেঁয়াজবাটা ২ টেবিল-চামচ,
তেল কোয়ার্টার কাপ,
কাঠকয়লা ও ফয়েল

প্রণালি : একটি কড়াইতে মাছের সঙ্গে সব উপকরণ মাখিয়ে ২-৩ ঘণ্টা রেখে দিন। কড়াইটি চুলার উপর বসিয়ে মৃদু আঁচে ঢেকে দিন ১ ঘণ্টা। ঝোল শুকিয়ে একটু পোড়া ভাব হলে নামিয়ে নিন। মাছের টুকরোগুলো আলতো করে তুলে (ঝোলসহ) কাচের ঢাকনাসহ বাটিতে রাখুন। এবার ফয়েলের বাটি বানিয়ে কাচের বাটিতে (মাছের উপর) রেখে, কয়লা চুলার উপর দিয়ে লাল করে ফয়েলের বাটির উপর রাখুন। এবারে সামান্য ঘি, লাল করা কয়লার উপর দিয়ে স্মোক করে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিন। কয়েক মিনিট রেখে ঢাকনা খুলে কাঠকয়লা ও ফয়েল ফেলে পরিবেশন করুন।.

২. ইলিশে কাবাব উপকরণ :
ইলিশ মাছ আস্ত ১টি,
গোলমরিচগুঁড়া ১ টেবিল-চামচ,
পেঁয়াজকুচি আধা কাপ,
কাঁচা মরিচকুচি ১ টেবিল-চামচ,
টমেটো সস ২ টেবিল-চামচ,
আলু ম্যাশড্ ১ কাপ,
ধনেপাতাকুচি ২ টেবিল-চামচ,
রসুন ২ কোয়া (কুচি),
লেবুর রস ১ টেবিল-চামচ,
লবণ স্বাদমতো,
তেল আধা কাপ,
পেঁয়াজ বেরেস্তা আধা কাপ,
লেবুর খোসা (গ্রেট করা) কোয়ার্টার চা-চামচ,
টোস্ট বিস্কুটের গুঁড়া ১ কাপ

প্রণালি : মাছের মাথা ও লেজ কেটে আলাদা করুন। সামান্য হলুদ, মরিচগুঁড়া ও পরিমাণমতো লবণ মাখিয়ে মাথা ও লেজ হালকা ভেজে নিন। এবার বাকি মাছ লবণ, লেবুর রস ও সামান্য পানি দিয়ে সেদ্ধ করে কাঁটা বেছে নিন।

কড়াইতে তেল গরম করে রসুন ও পেঁয়াজকুচি হালকা ভেজে মাছের কিমা দিয়ে নাড়তে থাকুন। দু-এক মিনিট পর সেদ্ধ আলু দিয়ে কিছুক্ষণ রান্না করে, একে একে গোলমরিচগুঁড়া, কাঁচা মরিচকুচি, স্বাদমতো লবণ, টমেটো সস দিয়ে রান্না করে নামিয়ে ঠা-া করে নিন। অন্য একটি প্যানে সামান্য তেল দিয়ে বিস্কুটের গুঁড়া বাদামী করে ভেজে নিন। এবারে রান্না করা কিমার সঙ্গে ধনেপাতাকুচি,

লেবুর খোসা ও বেরেস্তা ভেঙে আলতো করে মাখিয়ে নিন। সার্ভিং ডিশে দুই পাশে ভাজা লেজ ও মাথা রেখে, মাঝখানে মাখানো কিমা সাজিয়ে আস্ত মাছের মতো বানিয়ে নিন। সাজানো কিমার ওপর ভাজা বিস্কুটের গুঁড়া ছড়িয়ে চেপে দিন। কিমার উপর চা-চামচ দিয়ে মাছের আঁশের মতো বানিয়ে পরিবেশন করুন।

৩. আনারস ইলিশ উপকরণ :
ইলিশ মাছ ১টা (৮ টুকরা),
আনারস দেড় কাপ (গ্রেট করা),
পেঁয়াজকুচি কোয়ার্টার কাপ,
কাঁচা মরিচ ফালি ৪-৫টা,
হলুদগুঁড়া আধা চা-চামচ,
মরিচগুঁড়া ১ চা-চামচ,
আদাবাটা ১ চা-চামচ ,
চিনি আধা চা-চামচ (বা প্রয়োজনমতো),
তেল আধা কাপ,
লবণ পরিমাণ মতো

প্রণালি : মাছের টুকরোগুলো লবণ ও লেবুর রস দিয়ে মাখিয়ে ১০-১৫ মিনিট রেখে দিন। কড়াইয়ে তেল গরম করে পেঁয়াজকুচি নরম করে ভাজুন। এবার হলুদগুঁড়া, আদাবাটা, লবণ ও কাঁচা মরিচ দিয়ে কষান। গ্রেট করা আনারস দিয়ে নেড়ে ভালো করে কষিয়ে সামান্য পানি দিন। ফুটে উঠলে মাছগুলো দিয়ে মৃদু আঁচে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিন। পানি শুকিয়ে মাখা মাখা হলে চিনি দিয়ে নেড়ে নামিয়ে নিন।

৪. দই ইলিশ উপকরণ :
ইলিশ ৬ টুকরা (মাছের টুকরোগুলো লবণ মাখিয়ে ধুয়ে রাখুন) ,
তেল কোয়ার্টার কাপ,
পেঁয়াজবাটা আধা কাপ,
হলুদগুঁড়া ১ চিমটি,
কাঁচা মরিচবাটা ১ চা-চামচ,
টকদই ২ কাপ,
আদাবাটা আধা চা-চামচ,
লবণ পরিমাণমতো,
চিনি আধা চা-চামচ (বা প্রয়োজনমতো)

প্রণালি : কড়াইয়ে তেল গরম করে সব মসলা দিয়ে কষিয়ে নিন। এবার দই দিয়ে নেড়ে মাছের টুকরোগুলো দিন। চুলার আঁচ একেবারে কমিয়ে ঢেকে দিন। ১৫-২০ মিনিট পর তেল ভেসে উঠলে চিনি দিয়ে নামিয়ে নিন।

৫. ইলিশ মালাইকারি উপকরণ :
ইলিশ ৬-৮ টুকরা ,
পেঁয়াজবাটা ১ কাপ,
আদাবাটা ১ চা-চামচ,
পোস্তবাটা ১ টেবিল-চামচ,
শুকনো মরিচগুঁড়া আধা চা-চামচ,
কাঁচা মরিচ ৩-৪টি,
লবণ পরিমাণমতো,
তেল ১ কাপ,
নারকেলের দুধ ২ কাপ,
চিনি স্বাদমতো,
মালাই ৪ টেবিল-চামচ

প্রণালি : মাছ ধুয়ে, মাছে সামান্য লবণ মাখিয়ে রাখুন। এবার কড়াইয়ে তেল গরম করে একে একে পেঁয়াজবাটা, আদাবাটা, পোস্ত, মরিচগুঁড়া ও পরিমাণমতো লবণ দিয়ে কষিয়ে নারকেল দুধ ফুটিয়ে নিন। এবার মাছের টুকরো দিয়ে কাঁচা মরিচ ও চিনি ছড়িয়ে ঢেকে দিন। ৫-৭ মিনিট পর মাছের টুকরোগুলো উল্টিয়ে দিয়ে আবারও ঢেকে দিন। ঝোল মাখা মাখা হলে উপরে মালাই দিয়ে নামিয়ে ফেলুন।

৬. মচমচে ইলিশ ভাজা

উপকরণ:
ইলিশ মাছ ৮ টুকরা,
হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ,
মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ,
লবণ ১ চা চামচ,
তেল ৪ টেবিল চামচ।

প্রণালি:
মাছ বড় টুকরা করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন।
মাছে সব মসলা মাখিয়ে মেরিনেট করে কিছুক্ষণ রেখে দিন।
ফ্রাইপ্যানে তেল দিয়ে গরম মাছ সোনালি করে ভেজে নিন।
পরিবেশনের সময় মাছের ওপর পেঁয়াজ বেরেস্তা দিয়ে পরিবেশন করুন।

৭. নারিকেল দিয়ে ইলিশ ভাপা

উপকরণ:
ইলিশ মাছ ৬ টুকরা,
নারিকেল বাটা সিকি কাপ,
সরিষা বাটা ২ টেবিল চামচ,
পেঁয়াজ বাটা ১ চা চামচ,
রসুন বাটা ১ চা চামচ,
মরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ,
লেবুর রস আধা টেবিল চামচ,
সরিষার তেল ২ টেবিল চামচ,
লবণ ১ চা চামচ।

প্রণালি:
. মাছ ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন।
. মাছ ও বাকি উপকরণ একসঙ্গে মেখে ২০ মিনিট মেরিনেট করে রাখুন।
. ঢাকনাসহ বাটিতে মেরিনেট করা মাছ দিয়ে ঢাকনা আটকে দিন।
. চুলায় হাঁড়িতে পানি বসিয়ে ফুটতে আরম্ভ করলে বাটিটি বসিয়ে ভারী কিছু দিয়ে চাপা দিয়ে দিন।
.২৫ মিনিট ভাপিয়ে গরম ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করুন।

৮. সরষে ইলিশ

উপকরণ:
ইলিশ মাছ ৮ টুকরা,
সরিষা ৪ টেবিল চামচ,
কাঁচা মরিচ ৪টি,
কাঁচা মরিচ ফালি ৪টি,
পেঁয়াজ কুচি ২ টেবিল চামচ,
পেঁয়াজ বাটা ২ টেবিল চামচ,
হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ,
লবণ ১ চা চামচ স্বাদমতো
সরিষার তেল ৪ টেবিল চামচ।

প্রণালি:
. মাছ ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন।
. সরিষা, কাঁচা মরিচ ও এক চিমটি লবণ একত্রে বেটে নিন। বাটা সরিষার সঙ্গে আধা কাপ পানি মিশিয়ে তারের ছাঁকনিতে ছেঁকে নিন।
. কড়াইয়ে তিন টেবিল চামচ তেল দিন। তেল গরম হলে পেঁয়াজ কুচি ভেজে পেঁয়াজ বাটা ও হলুদ গুঁড়া দিয়ে কষিয়ে মাছ ও লবণ দিন।
. মাছ কষিয়ে ছেঁকে নেওয়া সরিষার পেস্ট দিয়ে নেড়ে ঢেকে ঢিমা আঁচে রান্না করুন।
. মাছ ঝোল শুকিয়ে গেলে কাঁচা মরিচ দিয়ে ঢেকে দিন।
. মাখা মাখা হলে নামিয়ে নিন।

৯. ইলিশ মাছের কোরমা রেসিপি

উপকরণ
ইলিশ-৬ টুকরো মাঝারি আকারের
পেঁয়াজ কুঁচি-আধা কাপ
পেঁয়াজ বাটা- তিন টেবিল চামচ
রসুন বাটা- আধা চা চামচ
আদা বাটা- আধা চা চামচ
টমেটো সস- এক টেবিল চামচ
দুধ- ৪টেবিল চামচ
কিসমিস- ১৫/২০টি

প্রস্তুত প্রণালী-
প্রথমে মাছের টুকরোগুলোতে পরিমাণ মত লবনে মিশিয়ে ১৫ মিনিট রেখে দিন। এতে মাছের ভেতর লবণ প্রবেশ করবে, স্বাদ বাড়বে। জলন্ত চুলায় কড়াইতে পরিমাণ মত তেল দিয়ে কিছুক্ষণ গরম করুন। গরম তেলে আধা কাপ পেঁয়াজ বাদামী করে ভেজে নিন। পেঁয়াজ বাদামী হলে এতে সামান্য পানি যুক্ত করে অন্যান্য মশলা দিন। পর্যায়ক্রমে পেঁয়াজ বাটা, আদা ও রসুন বাটা দিন। খুব সামান্য লবণ মিশিয়ে মশলা নাড়ুন। এরপর এক টেবিল চামচ টমেটো সস যুক্ত করুন। কাঁচা মরিচ দিন পরিমাণ মত। মশলা থেকে তেল বের হলে এক কাপ পানিতে চার টেবিল চামচ দুধ মিশিয়ে তা কড়াইতে ঢালুন। দুধ দেবার পর কিছুক্ষণ জ্বালিয়ে বলগ তুলুন। এরপর মাছগুলো ঢেলে দিন। চুলার আঁচ মিডিয়াম রেখে তিন-চার মিনিট জ্বালান। এরপর মাছগুলো সাবধানে উল্টে দিন।
কোরমার ঝোল কমলে কিসমিস ঢেলে দিন। ভালো সুবাসের জন্য পুনরায় কিছু কাঁচামরিচ দিন। ঝোল পছন্দ মত ঘন হলে পরিবেশন করুন।

১০. ইলিশ মাছের ভর্তা

উপকরণ :
ইলিশ মাছের টুকরো ৩-৪টি,
পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ,
ধনেপাতা কুচি ১ টেবিল চামচ,
কাঁচামরিচ কুচি ১ চা চামচ,
শুকনো মরিচ ১টি,
হলুদ গুঁড়া ১ চা চামচ,
মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ,
লবণ স্বাদ অনুযায়ী এবং সরিষা তেল ভাজার জন্য।

প্রণালি :
মাছের টুকরো ভালো করে ধুয়ে এতে মসলা ও লবণ মাখিয়ে কিছুক্ষণ রেখে দিন। কড়াইয়ে তেল গরম করে মাছগুলো ভালো করে ভেজে নিন। পেঁয়াজ, ধনেপাতা ও কাঁচামরিচ কুচি মচমচে করে ভেজে নিন। মাছ ঠান্ডা হলে কাঁটা বেছে নিন। এখন মাছের সঙ্গে ভাজা উপকরণগুলো ভালো করে হাত দিয়ে মাখিয়ে তৈরি করুন ইলিশের লোভনীয় ভর্তা।

১১. ভাপা ইলিশ
উপকরণ:
বড় ইলিশ মাছ ৬ টুকরো,
হলুদ ১/২ চা. চামচ,
পেঁয়াজ কুচি ১/২ কাপ,
জিরা বাটা ১/২ চা. চামচ,
কাঁচা মরিচ কুচি ২ টে. চামচ,
ধনে বাটা ১/২ চা. চামচ,
আদা বাটা ১/৪ চা. চামচ,
লবণ আন্দাজমত,
রসুন বাটা ১/৪ চা. চামচ,
বড় লাউ পাতা ৬টা,
মরিচ গুঁড়া ১ চা. চামচ,
সরিষার তেল ১ টে. চামচ।

প্রণালি : সব মসলা, তেল ও লবণ এক সঙ্গে ভালো করে মেখে নিতে হবে। এবার মাছের সঙ্গে ভালোমত মাখাতে হবে। লাউ পাতায় মাছ রেখে মুড়ে দিতে হবে। গরম পানির ওপর বাঁশের চালুনি রেখে তার ওপর পাতায় মোড়া মাছ রেখে ঢেকে দিতে হবে। ২০ মিনিট পর উল্টে দিতে হবে। আরও ২০ মিনিট পর নামিয়ে গরম ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করতে হবে।

১২. নারকেল পোস্ত ইলিশ

উপকরণ
ইলিশ মাছ পাঁচ-ছয় টুকরা,
নারকেল বাটা চার টেবিল চামচ,
পোস্তদানা বাটা দুই টেবিল চামচ,
কাঁচামরিচ চার-পাঁচটি,
কালিজিরা আধা চা চামচ,
হলুদের গুঁড়া আধা টেবিল চামচ,
সরিষার তেল পাঁচ টেবিল চামচ,
গরম পানি এক কাপ
লবণ স্বাদ মতো।

প্রণালি
প্রথমে ইলিশ মাছের টুকরোগুলো ধুয়ে হলুদ ও লবণ দিয়ে মেখে আলাদা করে পাঁচ মিনিট রেখে দিন। নারকেল বাটা ও পোস্তদানা বাটা একসঙ্গে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। এরপর একটি প্যানে তিন টেবিল চামচ সরিষার তেল দিয়ে তাতে ইলিশ মাছ ভেজে আলাদা পাত্রে তুলে রাখুন।

প্যানে তেল দিয়ে তাতে কালিজিরা ও কাঁচামরিচ দিয়ে ভাজুন। এখন এতে নারকেল ও পোস্তদানা পেস্ট দিয়ে নাড়তে থাকুন। চার-পাঁচ মিনিট পর এক কাপ গরম পানি দিন। একটু ঘন হলে মাছের টুকরাগুলো দিয়ে তিন থেকে চার মিনিট রান্না করুন। ওপর থেকে এক টেবিল চামচ সরিষার তেল দিয়ে দিন। আপনি চাইলে সুন্দর ঘ্রাণের জন্য কয়েকটি কাঁচামরিচও দিতে পারেন। গ্রেভি তৈরি হয়ে গেলে চুলা থেকে নামিয়ে ফেলুন। কাঁচামরিচ দিয়ে সাজিয়ে গরম গরম ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করুন দারুণ সুস্বাদু নারিকেল পোস্ত ইলিশ।

১৩. কাঁটা গলানো ইলিশ
রেসিপি ও ছবিঃ সাইমা নাসরিন

উপকরনঃ
১. মাঝারি ইলিশ – একটা (তিন টুকরো করা),
২. সর্ষের তেল – দেড় কাপ ,
৩. সর্ষে বাটা – ৪/৫ টে চামচ ,

আরো লাগবেঃ
৪. পেঁয়াজ বাটা – আধা কাপ ,
৫. পেঁয়াজ কুঁচি – আধা কাপ ,
৬. হলুদ গুঁড়ো – দেড় চা চামচ ,
৭. মরিচ গুঁড়ো – ২ চা চামচ ,
৮. লবন – স্বাদ মতো ,
৯. লেবুর রস – এক টে চামচ ,
১০. কাঁচামরিচ – ৬/৭ টি
১১. ধনেপাতা

প্রনালি:
প্রথমে, আস্ত ইলিশ পরিষ্কার করে, ধুয়ে, তিন টুকরো করে আবার ধুয়ে নিতে হবে। বড় বোলে ৩ নং থেকে ৯ নং পর্যন্ত সব মিশিয়ে, ইলিশের সঙ্গে মাখিয়ে রাখতে হবে।

এবার প্রেশার কুকারে তেল দিয়ে, মাখানো ইলিশ সুন্দর করে বিছিয়ে দিয়ে, ইলিশের সমান সমান পানি দিয়ে, ঢেক, মৃদু আঁচে ৩০/৩৫ মিনিট রান্না করতে হবে।

হয়ে গেলে ঢাকনা খুলে, কাঁচামরিচ ও ধনে পাতা দিয়ে, সাবধানে পরিবেশন পাত্রে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

১৪. ইলিশ পাতুরি
ইলিশ মাছ ৪ টুকরো,
সর্ষে বাটা পরিমান মতো,
কাঁচা লঙ্কা ৫টি ৬ টি,
সর্ষের তেল,
হলুদ গুঁড়ো,
লবণ স্বাদ অনুযায়ী,
কলাপাতা, সূতো (কলাপাতা মোড়ার জন্য)।

এবার একটি কলাপাতার টুকরো নিন, তাতে ভালো করে তেল মাখিয়ে নিন। এবার তাতে আগে থেকে সর্ষে দিয়ে মাখিয়ে রাখা একটি ইলিশ মাছের টুকরো রাখুন। এরপরে একটি বা দুটি কাঁচা লঙ্কা চিরে রেখে দিন। এবার কলাপাতাটিকে ভালো করে মুড়িয়ে সুতো বেঁধে নিন। একই ভাবে বাকি মাছের টুকরো গুলিকে কলাপাতায় মুড়িয়ে নিন।

এবার একটি তাওয়া, বা পাত্র গ্যাসে গরম করে নিন এরপর তাতে অল্প সর্ষের তেল দিয়ে এক একটি করে কলাপাতায় মোড়ানো ইলিশ রাখুন। এবার তাওয়া বা পাত্রটি ঢেকে দিন। এবার অল্প আঁচে রান্না হতে দিন। ১০ মিনিট পর ঢাকনা সরিয়ে কলাপাতা মোড়া অবস্থায় ইলিশগুলোকে উল্টে দেখুন। যদি একদিক কালো হয়ে যায় তবে তা উল্টে দিন। আবার ঢেকে দিন। আরও পাঁচ মিনিট রান্না হতে দিন। গ্যাস বন্ধ করুন। ইলিশ মাছের পাতুরি তৈরি। এবার গরম ভাতে কলাপাতা মোর ইলিশ মাছের পাতুরি পরিবেশন করুন।

১৫. ইলিশ পোলাও রান্নার রেসিপি

উপকরণ : পোলাও এর চাল ৫০০ গ্রাম, ইলিশ মাছ ১২ টুকরো, আদা বাটা ১ চা চামচ, রসুন বাটা ১/২ চা চামচ, টকদই ১ কাপ, লবণ স্বাদমত, দারুচিনি ২ টুকরা, এলাচ ৪টি, পেঁয়াজ বাটা ৩/৪ কাপ, পেঁয়াজ স্লাইস আধা কাপ, পানি ৪ কাপ, কাঁচামরিচ ১০টি, চিনি ১ চা চামচ, তেল আধা কাপ।

প্রণালি : দুটি বড় ইলিশ মাছের আঁশ ছাড়িয়ে ধুয়ে মাঝের অংশের টুকরোগুলো নিন। এবার মাছের টুকরোগুলোতে আদা, রসুন, লবণ ও দই মেখে ১৫ মিনিট মেরিনেট করে রাখুন। একটি পাত্রে তেল গরম করে দারচিনি, এলাচ দিয়ে নেড়ে বাটা পেঁয়াজ দিয়ে মসলা কষান। মসলা ভালো করে কষানো হলে মাছ দিয়ে কম আঁচে ২০ মিনিট ঢেকে রান্না করুন। মাঝে চিনি ও ৪টি কাঁচামরিচ দিয়ে একবার মাছ উল্টে দিন। পানি শুকিয়ে তেল ওপর উঠলে নামিয়ে নিন। মাছ মশলা থেকে তুলে নিন।

অন্য পাত্রে ২ টেবিল চামচ তেল গরম করে স্লাইস করা পেঁয়াজ সোনালি করে ভেজে বেরেস্তা করে নিন। বেরেস্তা তুলে নিয়ে চাল দিয়ে নাড়ুন। মাছের মশলা দিয়ে চাল কিছুক্ষণ ভেজে পানি ও স্বাদমতো লবণ দিয়ে ঢাকুন। পানি শুকিয়ে এলে মৃদু আঁচে ১৫ মিনিট রাখুন। চুলা থেকে নামান। একটি বড় পাত্রে পোলাওয়ের ওপর মাছ বিছিয়ে বাকি পোলাও দিয়ে মাছ ১০ মিনিট ঢেকে রাখুন। পরিবেশন পাত্রে ইলিশ পোলাও নিয়ে ওপরে পেঁয়াজ বেরেস্তা দিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

ইসি/

 

রেসিপি ও রেস্তোরা: আরও পড়ুন

আরও