বড়দিনের কেক সাজানোর উপকরণ

ঢাকা, বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

বড়দিনের কেক সাজানোর উপকরণ

পরিবর্তন ডেস্ক ১১:৫৩ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ০৫, ২০১৮

বড়দিনের কেক সাজানোর উপকরণ

দেখতে দেখতে চলেই এল বড়দিনের মাস। আর বড়দিন মানেই বাড়িতে চলবে নানা ধরনের কেক ও কুকিজের আয়োজন। যদি এসব আপনি বাহির থেকে কিনে নিয়ে আসেন তাহলে তো আপনাকে কোনো ঝামেলায় যেতে হবে না। তবে অনেকেই আছেন যারা বাড়িতে কেক, কুকিজ তৈরি করতে বেশি পছন্দ করেন। যারা বাড়িতে কেকে, কুকিজ তৈরি করতে বেশি পছন্দ করেন কিন্তু কেকের ডিজাইন করতে যেয়ে সমস্যায় পরে যান আজ আমাদের আয়োজন তাদের জন্য। কেক কীভাবে সহজে ডিজাইন করবেন এবং কেক ডিজাইন করার জন্য যেসব উপকরণ দরকার হয় আজ আমরা সে সম্পর্কে আপনাকে ধারণা দিব। আসুন তাহলে ছবি দেখে জেনে নেই কিভাবে এবং কি দিয়ে এবার আপনার বড় দিনের কেক ডিজাইন করবেন।

এগবিটার: মূলত ডিমের সাদা অংশ ফোম করার কাজে এগবিটার ব্যবহার করা হয়। কেক তৈরির অন্যান্য উপাদানও এর মাধ্যমে মেশানো হয়। নোভা, নোকা, মিয়াকোসহ বাজারে বিভিন্ন কোম্পানির এগবিটার পাওয়া যায়। দাম ১০০০-১৬০০ টাকার মধ্যে।

কেক ডাইস: বাজারে বিভিন্ন শেপের এবং বিভিন্ন ডিজাইনের ননস্টিক কেক ডাইস পাওয়া যায়। বাচ্চাদের আকর্ষণ করার জন্য আছে স্মাইলি,টেডি বেয়ার, ফ্লাওয়ার, জনপ্রিয় কার্টুন ফেসসহ নানা শেপ। পাবেন মাফিনের অনেক রকম ডাইস। ডিজাইন ও সাইজভেদে ননস্টিক ডাইসের দাম ১০০-৫৫০ টাকা।

মেজারিং কাপ, স্পুন: মেজারিং কাপ প্লাস্টিক এবং স্টিলের পাওয়া যায়। প্লাস্টিকের মেজারিং কাপের দাম ১৫০ টাকা। স্টিলের মেজারিং কাপের দাম ৩০০ টাকা। কাপ সেটের সাথেই মেজারিং স্পুন থাকে।

স্প্যাচুলা: কেক তৈরির জন্য ডিমের সাদা অংশ ফোম করা হয়। এই ফোমের সাথে ডিমের হলুদ অংশ, আইসিং সুগার এগবিটার দিয়ে বিট করে মেশানো হয়। এর পরে ময়দা মেশানোর কাজে স্প্যাচুলা ব্যবহার করা হয়। স্প্যাচুলার দাম ১২০ টাকা।

এগ সেপারেটর: ডিমের সাদা অংশ আলাদা করার জন্য এগ সেপারেটর ব্যবহার করা হয়। বাজারে বিভিন্ন উপাদানের তৈরি এগ সেপারেটর পাওয়া যায়। দাম ৪৫-১০০ টাকা।

নজল: ক্রিম দিয়ে কেকের ওপর নকশা করার কাজে নজল ব্যবহার করা হয়। বাজারে বিভিন্ন ডিজাইনের নজল পাওয়া যায়। ডিজাইনভেদে দাম ভিন্ন হয়ে থাকে। দাম ৫০-১০০ টাকা।

ফ্লেভার: শুধু কেক নয় বিভিন্ন ডেজার্ট আইটেমে ব্যবহার করার জন্য বাজারে ভ্যানিলা, লেমন, স্ট্রবেরি, ফ্লেভার/এসেঞ্জ পাওয়া যায়। ভালো কোম্পানির এসেঞ্জের দাম পড়বে ৫৫ টাকা।

কালার: কেক আকর্ষণীয় করতে বিভিন্ন কালার ব্যবহার করা হয়। ভালো ব্র্যন্ডের ফুড কালারের দাম পড়বে ৫০-৬৫ টাকা।

ব্রাশ: কেকে সিরাপ লাগানোর জন্যে ব্রাশ ব্যবহার করা হয়। কাঠ, প্লাস্টিক এবং রবারের হাতলওয়ালা ব্রাশ বাজারে পাওয়া যায়। দাম ৫০-১৫০ টাকা।

বোল, টান টেবিল, কেক লেভেলার: বোলে এগ বিট করা এবং ময়দা মেশানোর কাজ করা হয়। মেটালের পরিবর্তে ভালো মানের প্লাস্টিকের বোল কিনুন। কিচেন মার্কেটে যেখানে কেক তৈরির সামগ্রী কিনতে পাওয়া যায় সেখানে টান টেবিল ও কেক লেভেলার পাবেন। কেকে ক্রিম লাগানো এবং বিভিন্ন নকশা করা হয় টান টেবিলে রেখে। বিভিন্ন শেপ দেওয়ার জন্য কেক লেভেলার ব্যবহার করা হয়। এসব উপাদানের দাম পড়বে ৫০-২০০ টাকা।

কোথায় পাবেন: নিউমার্কেটের কিচেন মার্কেট, গুলশানের ডিসিসি মার্কেট এবং ঢাকার সব সুপারশপে কেক তৈরির সামগ্রী কিনতে পাওয়া যায়।

ইসি/