‘অামানতের খিয়ানত করে না ঝন্টু’

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ জুলাই ২০১৮ | ৫ শ্রাবণ ১৪২৫

‘অামানতের খিয়ানত করে না ঝন্টু’

এম এম কবীর, রংপুর থেকে ২:২৬ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৬, ২০১৭

print
‘অামানতের খিয়ানত করে না ঝন্টু’

আমানত খিয়ানত করে না সরফুদ্দিন আহমেদ  ঝন্টু। কথা দিয়ে কথা রাখাই ঝন্টুর নীতি ও কাজ। নীতি আছে বলেই ঝন্টুর জনপ্রিয়তা আছে এবং থাকবে বলে জানিয়েছেন রসিকের আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু। তিনি শুক্রবার রাতে রংপুরের হাজির হাটে নির্বাচনী প্রচারণার এক পথসভায় ভোটারদের উদ্দেশ্য এ কথা বলেন।

তিনি বলেন,বিগত মেয়রের মেয়াদকালীন ভোটারদের কাছে যে প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছিল তা অক্ষরে অক্ষরে পালন করা হয়েছে বলে দাবি তার। তবে কয়েকটি এলাকায় কিছু কাজ চলমান অবস্থায় থাকায় হয়ত মানুষ ভাবছে আমি কিছু করিনি। ভোটারদের উদ্দেশ্য তিনি বলেন, আমি জনগণের কাছে যে ওয়াদা করেছিলাম তা পূরণ করতে চেষ্ঠা করেছি। এখন আবার সিটি নির্বাচনে আপনাদের কাছে এসেছি শেষবারের মতো বাকি কাজ করার জন্য ভোট চাইছি।

তিনি আরো বলেন, নৌকা শুধু আমার প্রতীক নয় এটা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতীক। এই প্রতীক আনার জন্য আমাদের দল থেকে ১৭ জন গিয়েছিলাম। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমার প্রতি বিশ্বাস রেখেই প্রতীকটি আমাকে দিয়েছেন। সুতরাং প্রতীকের সম্মান রাখার আমার যেমন দায়িত্ব তেমনি রংপুরের মানুষেরও উচিত তাঁর ইজ্জতের সম্মান দেয়া। আমাদের সকলে উচিত শেখ হাসিনার নৌকা মানে উন্নয়নের প্রতীক, সেই নৌকাকে রসিকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করা। নৌকাকে নির্বাচিত করলে এলাকার উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকবে অন্যথায় আমরা রংপুরবাসী আরো পিছিয়ে যাব। তাই নগরের উন্নয়নের জন্য হলেও নৌকাকে বিজয়ী করা ছাড়া কোন বিকল্প নেই।

তিনি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের আমলে রংপুরের উন্নয়ন হয়েছে কিনা সেই প্রসঙ্গ তুলে বলেন, জাতীয় পার্টির প্রার্থী আ'লীগ ও আমার নামে নানান অপপচার চালাচ্ছে নগরীতে। তিনি বিনয়ের সাথে যারা অপপচার চালাচ্ছে তাদের উদ্দেশ্য বলেন, হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের জন্য জীবন ছাড়া সবই দিয়েছিলাম। তাকে জেল থেকে মুক্ত করার জন্য দিনের পর দিন আন্দোলন করেছি। তখনকার সময় বাসায় থাকতে পারতাম না পুলিশের ভয়ে। কিন্তু সেই এরশাদই কিনা রংপুরবাসীর জন্য কিছুই করেননি। এই রংপুরে যত কাজ হয়েছে আওয়ামী লীগের হাত ধরেই হয়েছে সেটা কেউ অস্বীকার করবে না বা করার সুযোগও নেই। তাইতো এরশাদ আন্দোলনের প্রধান ভূমিকাকারী ব্যক্তিরা জাপা ছেড়ে আ'লীগের নৌকায় উঠছে। তারা দেশ ও দেশের মানুষের ভাগ্যের উন্নয়নের অংশীদার হওয়ার জন্যই আ'লীগের নৌকায় ভোট চাইছে। তাই নগরের উন্নয়নের জন্য নৌকা মার্কা ছাড়া বিকল্প চিন্তা ভাবনার প্রয়োজন নেই বলেও জানান তিনি। তবে তিনি বিশ্বাস করেন এবার নৌকা মার্কাকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করবে রংপুরবাসী।

এমকে/আরজি

 
.

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ




আলোচিত সংবাদ