লালমনিরহাটে বাল্যবিয়ের দায়ে দুই জনের কারাদণ্ড

ঢাকা, রবিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

লালমনিরহাটে বাল্যবিয়ের দায়ে দুই জনের কারাদণ্ড

লালমনিরহাট প্রতিনিধি ৪:৩৯ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১০, ২০১৯

লালমনিরহাটে বাল্যবিয়ের দায়ে দুই জনের কারাদণ্ড

লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় বাল্যবিয়ের আয়োজন করায় কনের দাদা ও বরের চাচাকে বিভিন্ন মেয়াদে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শনিবার রাতে ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মুহাম্মদ মনসুর উদ্দিন এই কারাদণ্ড প্রদান করেন।

দণ্ডিতরা হলেন- উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের গন্ধমরুয়া গ্রামের শুকর আলীর ছেলে কনের দাদা আব্দুল কুদ্দুস (৬৫), ও কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার ঘড়িয়ালডাঙ্গা ইউনিয়নের ভিমসারমা গ্রামের জয়নাল আবেদীনের ছেলে বরের চাচা হাফিজুল ইসলাম (৪৫)। তাদের মধ্যে আব্দুল কুদ্দুসকে দুই মাসের ও হাফিজুল ইসলামকে এক মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

পুলিশ জানায়, উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের গন্ধমরুয়া গ্রামের জাহাঙ্গীর আলীর মেয়ে বালাপুকুর উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী জাহেদা খাতুনের (১৬) সঙ্গে রাজারহাটের ভিমসারমা গ্রামের রিয়াজুলের ছেলে আঙ্গুরের (১৯) বিয়ের আয়োজন হয়।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ইউএনও মুহাম্মদ মনসুর উদ্দিন বিয়ে বাড়িতে থানা পুলিশ নিয়ে অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সবাই পালিয়ে গেলেও কনের দাদা আব্দুল কুদ্দুস ও বরের চাচা হাফিজুলকে আটক করে পুলিশ। এসময় বাল্যবিয়ের আয়োজন করার দায়ে কনের দাদাকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে দুই মাসের এবং বরের চাচা হাফিজুলকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে এক মাসের বিনাশ্রম করাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

জরিমানা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিচারক ইউএনও মুহাম্মদ মনসুর উদ্দিন।

আদিতমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম জানান, ইতোমধ্যে সাজাপ্রাপ্তদের জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আরআর/এমকে

 

রংপুর: আরও পড়ুন

আরও