কুড়িগ্রামে খণ্ডিত পা ও এক পল্লী চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

কুড়িগ্রামে খণ্ডিত পা ও এক পল্লী চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি ৮:১৭ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২১, ২০১৯

কুড়িগ্রামে খণ্ডিত পা ও এক পল্লী চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার

কুড়িগ্রাম সদরের বেলগাছা ইউনিয়নের পশ্চিম কল্যান এলাকার একটি পুকুর পাড় থেকে মানব দেহের কোমর থেকে পায়ের নীচের অংশের একটি পা এবং অপরদিকে উলিপুর উপজেলার সাহেবের আলগা ইউনিয়নের সোনাপুর বাজারের নিকট ধান ক্ষেত থেকে এক পল্লী চিকিৎসকের লাশটি উদ্ধার করা হয়েছে।

একইদিনে একটি খন্ডিত পা ও এক পল্লী চিকিৎসকের লাশ উদ্ধারের বিষয়ে কুড়িগ্রামে আইনশৃঙ্খলা নিয়েও জনমনে প্রশ্ন উঠেছে। পা ও লাশ উদ্ধারে এখানে ডাবল মার্ডার হয়েছে এমনটি ধারনা এলাকাবাসীর। এই ঘটনার রহস্য উদঘাটনে পুলিশের যথাযথ ভূমিকা দেখতে চায় কুড়িগ্রামবাসী।

জানা গেছে, সোমবার সকালে কুড়িগ্রাম সদর পশ্চিম কল্যান এলাকার মোস্তাফিজার রহমানের বাড়ির পার্শ্বের পুকুর পাড়ে পলিথিনে মোড়ানো অর্ধগলিত মানুষের একটি পা পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে তা উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। তবে সেটি কার এবং কিভাবে এখানে এলো তা জানা যায়নি।

কুড়িগ্রাম সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মাহফুজুর রহমান জানা, যেহেতু কোমরের অংশ থেকে পায়ের পাতা পর্যন্ত অর্ধগলিত অবস্থায় এটি পাওয়া গেছে সেক্ষেত্রে মনে হচ্ছে এটি কোন হত্যাকাণ্ডের ঘটনা হয়ে থাকতে পারে। তদন্ত করে বিস্তারিত জানা যাবে বলেও জানান তিনি।

অন্যদিকে সোমবার সকালে নিহত পল্লী চিকিৎসক জয়নালের বাড়ির পাশের ধান ক্ষেতে একটি লাশ পড়ে থাকতে দেখে পথচারীরা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ ও নিহতের পরিবারের সদস্যরা এসে লাশটি পল্লী চিকিৎসক জয়নালের বলে চিহিৃত করে। লাশটি উদ্ধার করে করে নিয়ে যায় পুলিশ। নিহত জয়নালের শরীরে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলে জানায় প্রত্যক্ষদর্শীরা।

উলিপুর থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, পল্লী চিকিৎসক জয়নাল আবেদীনের রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করে মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য কুড়িগ্রাম মর্গে পাঠানো হয়েছে। হত্যার সঙ্গে জড়িতদের চিহিৃত করার চেষ্টা চলছে।

ইউএএ/এইচকে

 

রংপুর: আরও পড়ুন

আরও