এরশাদপুত্রের বিরুদ্ধে অবস্থান রংপুর জাপার

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

এরশাদপুত্রের বিরুদ্ধে অবস্থান রংপুর জাপার

রংপুর অফিস ৯:২১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ০৮, ২০১৯

এরশাদপুত্রের বিরুদ্ধে অবস্থান রংপুর জাপার

রংপুর-৩ সদর আসনের উপ-নির্বাচনে জাতীয় পার্টি প্রার্থীতা নির্বাচন নিয়ে উত্তেজনা বিরাজ করছে। স্থানীয় নেতাকর্মীরা সাদ এরশাদকে ‘বহিরাগত’ আখ্যা দিয়ে তার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে।

তাদের সুস্পষ্ট বক্তব্য, স্থানীয় কোনো নেতাকে মনোনয়ন দিতে হবে। নইলে তারা মাঠে নামবে না।

রংপুর-৩ আসনের উপনির্বাচনে এর আগে জাপা মহানগরের সাধারণ সম্পাদক এস এম ইয়াসিরকে মনোনয়ন দেয় জাপা কেন্দ্রীয় নির্বাচকমণ্ডলী।

তবে, জাপার মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গা নতুন করে রোববার এরশাদপুত্র সাদ এরশাদকে প্রার্থী ঘোষণা করেছেন।

এ নিয়ে ‘বহিরাগত’ এবং স্থানীয় জাপা নেতা-কর্মীদের মধ্যে বিরোধ চরম আকার ধারন করেছে।

স্থানীয় জাপা নেতা-কর্মীরা ঘোষণা দিয়েছেন তারা ‘বহিরাগত’ কাউকেই প্রার্থী মেনে নিবে না, তার পক্ষে কাজ করবে না।

এ বিষয়ে জাপা রংপুর মহানগর কমিটির সভাপতি এবং রংপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা বলেন, কেন্দ্রীয় কমিটি আমাদের মতামতের কোন গুরুত্ব দেয়নি। যেহেতু তারা আমাদের মতামতের গুরুত্ব দেয়নি তাই কেন্দ্রীয় কমিটি সাদ এরশাদকে বিজয়ী করার ব্যাপারে কাজ করবে, আমরা তার পক্ষে কাজ করবো না।

তিনি বলেন, আমরা কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দকে জানিয়েছিলাম আমাদের এখানে তিনজন প্রার্থী রয়েছেন- এস এম ইয়াসির, হাজী আব্দুর রাজ্জাক এবং এস এম ফখরুজ্জামান। এরমধ্যে যাকে প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা দেয়া হবে আমরা স্থানীয় নেতৃবৃন্দ তাকে বিজয়ী করতে যা যা করতে হয় তা করবো।

জাপা রংপুর মহানগরের সাধারণ সম্পাদক এবং কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব এস এম ইয়াসির জানান, জাপার নির্বাচকমণ্ডলী ইতিপূর্বে রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে আমাকে ঘোষণা দিয়েছিলেন। আবার নতুন করে সাদ এরশাদকে প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা দেয়া হলো, তা আমার বোধগম্য নয়।

তিনি বলেন, কি কারণে আমার প্রার্থীতা কেড়ে নেয়া হলো তা আমি জানতে চাই। আগামীকাল সোমবার পার্টি অফিসে বেলা ১১টায় এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে পরবর্তী কার্যক্রম ঘোষণা করবো।

রংপুর-৩ সদর আসনে উপনির্বাচনে লড়তে জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের পুত্র রাহগীর আল মাহী সাদ এরশাদসহ জাতীয় পার্টির ৩ জন এবং বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের ১২ জন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন।

রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা জিএম সাহাতাব উদ্দিন জানান, রোববার পর্যন্ত ১০ জন মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। এরা হলেন— জাতীয় পার্টির এসএম ফখর-উজ-জামান জাহাঙ্গীর, রাহগীর আল মাহী সাদ এরশাদ, এসএম ইয়াসির, স্বতন্ত্র হোসেন আসিফ শাহরিয়ার, আওয়ামী লীগের এডভোকেট রেজাউল করিম রাজু, আব্দুল মজিদ, বিএনপির কাওছার জামান বাবলা, পিপলস পার্টির রিটা রহমান, এনপিপিপির শফিউল আলম, খেলাফত মজলিশের তৌহিদুর রহমান মন্ডল রাজু, গণফ্রন্টের মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ এবং এনপিপি শফিউল আলম।

গত ১৪ জুলাই রংপুর সদর ৩ আসনের এমপি জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক প্রেসিডেন্ট ও বিরোধী দলীয় নেতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুর পর ১৬ জুলাই আসনটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

গত ১ সেপ্টেম্বর আসনটিতে নির্বাচনের জন্য তফশিল ঘোষণা করা হয়। তফশিল অনুযায়ী আগামী ৫ অক্টোবর এখানে ভোটগ্রহণ হবে ইভিএম পদ্ধতিতে। এজন্য মনোনয়নপত্র জমা দেয়া যাবে ৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। বাছাই হবে ১১ সেপ্টেম্বর। প্রত্যাহারের শেষ দিন ১৬ সেপ্টেম্বর।

রংপুর সদর উপজেলা এবং রংপুর সিটি কর্পোরেশনের ১-৮ নম্বর ওয়ার্ড ছাড়া বাকি এলাকা নিয়ে গঠিত রংপুর-৩ আসনে ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ৪১ হাজার ৬৭৩ জন। এই আসনে ভোটকেন্দ্র ১৩০টি, ভোট কক্ষ ৯১০টি।

এসবি

 

রংপুর: আরও পড়ুন

আরও