বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ারছড়ার বেকাররা কাজ চায়

ঢাকা, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ারছড়ার বেকাররা কাজ চায়

ইউনুছ আলী আনন্দ, কুড়িগ্রাম ৭:০৭ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ০৭, ২০১৯

বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ারছড়ার বেকাররা কাজ চায়

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সু-নজর কামনায় কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ারছড়ার শত শত বেকার নারী-পুরুষ দাসিয়ারছড়ায় ন্যাশনাল সার্ভিস চালুসহ তাদের কর্মসংস্থানের দাবিতে মানববন্ধন করেছে।

শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় দাসিয়ারছড়ার কালিরহাটের দীপক সেন স্মরণি মোড়ে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে তারা।

এতে বক্তব্য রাখেন ফুলবাড়ী সদর ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হারুন অর রশিদ, বেকারদের পক্ষে কর্মসংস্থান দাবি আদায় আন্দোলনের উদ্যোক্তা শিক্ষিত যুবক জাকির হোসেন সরকার, হুমায়ুন কবীর শাহিনুর রহমান রুবেল, তাজুল ইসলাম, মোস্তাফিজুর রহমান, তানিয়া বেগম, কল্পনা খাতুন ও ছিটিমহল বিনমিয় সমন্বয় কমিটির নেতা মনির হোসেন প্রমুখ।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হারুন অর রশিদ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রচেষ্টায় বিলুপ্ত ছিটমহল বিনিময় হয়েছে। বৃহৎ ছিটমহল দাসিয়ারছড়া বাংলাদেশের সঙ্গে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার পর এখানকার শিক্ষিত বেকার যুবক-যুবতীদের বিশেষ প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। প্রশিক্ষণ পেলেও তাদের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হচ্ছে না।’

তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে দাসিয়ারছড়ার বেকারদের কর্মসংস্থানে দাবি জানান।

শিক্ষিত যুবক বেকার জাকির হোসেন সরকার বলেন, ‘আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ারছড়ার বেকার যুবক-যুবতীদের কর্মসংস্থান সৃষ্টির জোর দাবি জানাচ্ছি। দেশের পিছিয়ে থাকা এই বিলুপ্ত ছিটমহলের বেকারদের কর্মসংস্থান সৃষ্টি একটি মানবিকতার দাবি।’

ছিটিমহল বিনমিয় সমন্বয় কমিটির নেতা মনির হোসেন পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, ‘আমরা বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ারছড়াবাসী আজ বাংলাদেশি। আমাদের এখানকার বেকার ছেলে-মেয়েদের কর্মসংস্থান সৃষ্টি না হওয়ায় আমরা গলাকাটা মুরগির মতো ছটফট করছি।’

তিনি প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ারছড়ার বেকার নারী-পুরুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টির দাবি জানান।

বেকার যুবক মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ‘বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ারছড়ার আমরা বেকাররা কষ্টে দিনাতিপাত করছি। এখানে নেই কোনো অফিস বা ব্যাংক-বীমার কার্যালয়। ২০১৫ সালের ৩১ জুলাই ছিটমহল বিনিময় হওয়ার পর দাসিয়ারছড়া কালিরহাটে সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক নামের একটি ব্যাংক তার শাখা অফিস খুললেও তা বন্ধ করা হয়।’

এই ব্যাংকে তিনিসহ তার দুইভাইয়ের কর্মসংস্থান হওয়ার কথা ছিল। বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃপক্ষ এই সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক নামের ব্যাংকটির শাখা অনুমোদন না দেয়ায় তারা কর্মসংস্থান বঞ্চিত হন।

এ অবস্থায় তিনি প্রাধনমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ারছড়ার শত শত বেকার নারী-পুরুষের জন্য ন্যাশনাল সার্ভিস চালুসহ স্থায়ী কর্মসংস্থানের দাবি জানান।

বেকার তানিয়া বেগম জানান, ‘আমরা বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ারছড়ার নারী-পুরুষের স্থায়ী কর্মসংস্থানের ব্যবস্থার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সু-নজর কামনা করছি।

এইচআর

 

রংপুর: আরও পড়ুন

আরও