দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডে বেড়েছে পাশের হার ও জিপিএ-৫

ঢাকা, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯ | ২৯ কার্তিক ১৪২৬

দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডে বেড়েছে পাশের হার ও জিপিএ-৫

দিনাজপুর প্রতিনিধি ৪:২৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৭, ২০১৯

দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডে বেড়েছে পাশের হার ও জিপিএ-৫

দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডে এবার এইচএসসিতে গতবারের তুলনায় বেড়েছে পাশের হার ও জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের সংখ্যা। পাশের হারে ছেলেদের তুলনায় মেয়েরা এগিয়ে থাকলেও জিপিএ-৫ প্রাপ্তির ক্ষেত্রে মেয়েদের তুলনায় এগিয়ে রয়েছে ছেলেরা।

এছাড়া এবার এই শিক্ষা বোর্ডে মোট অকৃতকার্য ৩৫ হাজার ৮২ জনের মধ্যে শুধুমাত্র ইংরেজীতেই ফেল করেছে ২৯ হাজার ৬৮ জন। দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডে এবার পাশের হার ৭১ দশমিক ৭৮ শতাংশ, আর জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪ হাজার ৪৯ জন। তবে ৭টি কলেজ থেকে কেউ পাশ করতে পারেনি।

দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর তোফাজ্জুর রহমান জানান, ২০১৯ সালের উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট পরীক্ষায় (এইচএসসি) দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডে মোট ১ লাখ ২৪ হাজার ৩১৫ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহন করে। এর মধ্যে পাশ করেছে ৮৯ হাজার ২৩৩ জন। পাশের হার ৭১ দশমিক ৭৮ শতাংশ। গতবছর পাশের হার ছিলো ৬০ দশমিক ২১ শতাংশ।

এবার বিজ্ঞান বিভাগে ২৮ হাজার ২৫৪ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ২২ হাজার ৭৭৫ জন। এই বিভাগে পাশের হার ৮০ দশমিক ৬১ শতাংশ। মানবিক বিভাগে ৮০ হাজার ৪৩৫ জনের মধ্যে পাশ করেছে ৫৫ হাজার ৮২৫ জন, পাশের হার ৬৯ দশমিক ৪০ শতাংশ। ব্যবসায়ে শিক্ষা বিভাগে ১৫ হাজার ৬২৬ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ১০ হাজার ৬৩৩ জন, পাশের হার ৬৮ দশমিক ০৫ শতাংশ।

দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডে এবার জিপিএ-৫ পেয়েছে মোট ৪ হাজার ৪৯ জন। গতবছর (২০১৮) এই বোর্ড থেকে জিপিএ-৫ পায় ২ হাজার ২৯৭ জন। জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের ক্ষেত্রে এবার মেয়েদের তুলনায় ছেলেরা এগিয়ে রয়েছে। জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের মধ্যে ছেলে রয়েছে ২ হাজার ২৭২ জন আর মেয়ে রয়েছে ১ হাজার ৭৭৭ জন।

অপরদিকে পাশের হারের দিক থেকে ছেলেদের তুলনায় মেয়েরা রয়েছে এগিয়ে। মেয়েদের পাশের হার ৭৫ দশমিক ৩৯ শতাংশ, আর ছেলেদের পাশের হার ৬৮ দশমিক ৩৭ শতাংশ।

দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ৮টি জেলার মোট ৬৫৮টি কলেজ থেকে শিক্ষার্থীরা এবার এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়। এর মধ্যে শতভাগ পাশ করেছে ২০টি কলেজ থেকে। আর ৭টি কলেজ থেকে কেউ পাশ করতে পারেনি। যেসব কলেজ থেকে কোন পরীক্ষার্থী পাশ করতে পারেনি, এসব কলেজগুলো হলো-পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলার আলহাজ্ব তমিজউদ্দীন কলেজ, কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার সিঙ্গার দবিরহাট বিএল হাই স্কুল এন্ড কলেজ, লালমনিরহাটের কালিগঞ্জ উপজেলার দক্ষিন ঘনশ্যাম স্কুল এন্ড কলেজ, আদিতমারী উপজেলার নামুরি হাই স্কুল এন্ড কলেজ, ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলার পীরগঞ্জ আদর্শ কলেজ, দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার বেপারীতলা আদর্শ কলেজ এবং গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বামুনডাঙ্গা এমএম আলহাজ্ব হোসেইন মোহাম্মদ এরশাদ স্কুল এন্ড কলেজ।

পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর তোফাজ্জুর রহমান জানান, এবার এই শিক্ষা বোর্ড থেকে মোট ১ লাখ ২৪ হাজার ৩১৫ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ফেল করেছে ৩৫ হাজার ৮২ জন। এর মধ্যে শুধুমাত্র ইংরেজীতেই ফেল করেছে ২৯ হাজার ৬৮ জন পরীক্ষার্থী।

তিনি জানান, নির্বাচনী পরীক্ষায় শুধুমাত্র নির্বাচিত পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষায় ফরম পুরনের সুযোগ দেয়ার জন্য দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদকের নজরদারীর কারনেই এবার পাশের হার বেড়েছে। এবার ফলাফল সন্তোষজনক হওয়ার পেছনে শিক্ষা বোর্ডের কোন ভুমিকা নেই বলে তিনি উল্লেখ করেন।

এটি/জেডএস/

 

রংপুর: আরও পড়ুন

আরও